দৌলতদিয়াতে পারের অপেক্ষায় ৪ শতাধিক ট্রাক



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, রাজবাড়ী
বার্তা ২৪.কম

বার্তা ২৪.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

রাজবাড়ীর গোয়ালন্দের দৌলতদিয়া প্রান্তে পদ্মা নদী পারের অপেক্ষায় রয়েছে প্রায় চার শতাধিক পণ্যবাহী ট্রাক। দীর্ঘ সময় অপেক্ষায় থাকতে থাকতে চরম হতাশায় ভুগছেন ট্রাক চালক ও সহকারীরা। টয়লেট, পানি ও খাবারের কোন ব্যবস্থা না থাকায় তারা চরম মানবেতর জীবনযাপন করছে।

অন্যদিকে করোনারোধে সরকারের নির্দেশিত সকল নির্দেশনা এখানে উপেক্ষিত। কোন ট্রাক চালকদের মধ্যেই নেই জনসচেতনতার বালায়। তাছাড়া লকডাউনের মধ্যে দূরপাল্লার পরিবহন বন্ধ থাকার পরেও দীর্ঘ সময় আটকে থাকায় ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন অনেক চালক।

মঙ্গলবার (১৩ এপ্রিল) সকালে সরেজমিন দেখা যায়, নদী পারের অপেক্ষায় গোয়ালন্দ মোড়ে দৌলতদিয়া-কুষ্টিয়া আঞ্চলিক মহাসড়কে রাজবাড়ীর দিকে প্রায় তিন কিলোমিটার কল্যানপুর বাজার পর্যন্ত প্রায় তিন শতাধিক পণ্যবাহী ট্রাক অপেক্ষা করছে সড়কে। 

অপরদিকে দৌলতদিয়া ঘাটের ৩ নং পল্টনের কাছ থেকে ঢাকা-খুলনা মহাসড়কে আরো প্রায় শতাধিক পণ্যবাহী ট্রাক অপেক্ষা করছে নদী পারের জন্য।

মাগুরা থেকে ছেড়ে আসা ট্রাক চালক মজিদ মোল্লা বার্তা২৪.কমকে বলেন, মঙ্গলবার রাতে এখানে এসেছি। এখনো নদী পার হতে পারিনি। লকডাউনের মধ্যে দূরপাল্লার বাস বন্ধ থাকার পরেও কেন এতো সময় আটকে থাকতে হচ্ছে তা বুঝতে পারছিনা।

বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌপরিবহন সংস্থা  (বিআইডব্লিউটিসি) দৌলতদিয়া কার্যালয়ের সহকারী মহাব্যবস্থাপক (এজিএম) ফিরোজ শেখ বার্তা২৪.কমকে বলেন, রাত থেকে ঘাট এলাকাতে পণ্যবাহী ট্রাকের চাপ কিছুটা বেড়েছে। বর্তমান দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া নৌরুটে ১৭টি ফেরি চলাচল করছে। খুব দ্রুতই নদী পার হতে পারবে এ সকল ট্রাক।