চুরির অভিযোগে শিশুকে গাছে বেঁধে নির্যাতন



উপজেলা করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, গৌরীপুর (ময়মনসিংহ)
চুরির অভিযোগে শিশুকে গাছে বেঁধে নির্যাতন

চুরির অভিযোগে শিশুকে গাছে বেঁধে নির্যাতন

  • Font increase
  • Font Decrease

মোবাইল চুরির অভিযোগে ময়মনসিংহের গৌরীপুরে রিফাত (৯) নামের এক শিশুকে গাছে বেঁধে নির্যাতনের অভিযোগ পাওয়া গেছে।

গত ৪ জুন উপজেলার রামগোপালপুর ইউনিয়নের মধুবন আদর্শ (গুচ্ছগ্রাম) গ্রামে এই ঘটনা ঘটে। পরবর্তী সময়ে নির্যাতনের ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়লে বৃহস্পতিবার (১০ জুন) পুলিশ অভিযুক্ত মা ও ছেলেকে আটক করে।

আটককৃতরা হলেন- ডৌহাখলা ইউনিয়নের তাতকুড়া গ্রামের প্রয়াত বারেক মিয়ার স্ত্রী ফাতেমা বেগম ও তার ছেলে হিমেল মিয়া।

জানা গেছে, রিফাত রামগোপালপুর ইউনিয়নের মধুবন আদর্শ গ্রামের সুরুজ মিয়ার ছেলে। সে স্থানীয় স্কুলে দ্বিতীয় শ্রেণিতে পড়াশোনা করে। তার মা প্রবাসী শ্রমিক।

গত ৬ জুন শুক্রবার আম পাড়ার কথা বলে রিফাতকে বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে যায় ফাতেমা বেগম ও তার ছেলে হিমেল। আম গাছে উঠার পর রিফাতকে গাছ থেকে নামিয়ে মোবাইল চুরির অপবাদ দিয়ে রশি দিয়ে গাছে বাঁধা হয়। এরপর মা ও ছেলে মিলে নির্যাতন করে রিফাতকে।

এদিকে রিফাতের ওপর নির্যাতনের ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ে। সেই সূত্র ধরেই ফাতেমা বেগম ও তার ছেলে হিমেল মিয়াকে আটক করে পুলিশ।

নির্যাতিত শিশুটির বাবা সুরুজ মিয়া বলেন, মোবাইল চুরির অপবাদ দিয়ে আমার ছেলেকে গাছে বেঁধে নির্যাতন করা হয়েছে। খবর পেয়ে আমি স্থানীয়দের সহযোগিতায় ছেলেকে উদ্ধার করি। স্থানীয়রা আমাকে বিচারের আশ্বাসও দিয়েছিলেন। এদিকে নির্যাতনের পর আমার ছেলে বেশ কয়েকদিন জ্বরে ভুগেছে।

গৌরীপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আবদুল হালিম সিদ্দিকী জানিয়েছেন, শিশুটিকে নির্যাতনের অভিযোগে মা-ছেলেকে আটক করা হয়েছে। তাদের জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।