অর্থবছরের প্রথম ১১ মাসে ৫৮% এডিপি বাস্তবায়ন



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

চলতি অর্থবছরের (২০২০-২১) প্রথম ১১ মাসে (জুলাই-মে) বার্ষিক উন্নয়ন কর্মসূচির (এডিপি) ৫৮.৩৬ শতাংশ বাস্তবায়িত হয়েছে। টাকার অঙ্কে এর পরিমাণ প্রায় এক লাখ ২২ হাজার ১৩১ কোটি টাকা। করোনার কারণে সার্বিক এডিপি বাস্তবায়নে ধীরগতি দেখা গেছে।

পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ের বাস্তবায়ন, পরিবীক্ষণ ও মূল্যায়ন বিভাগ (আইএমইডি) থেকে এসব তথ্য জানা গেছে।

চলতি অর্থবছরে মোট ২ লাখ ৯ হাজার ৭২ কোটি টাকার সংশোধিত এডিপি বাস্তবায়ন করছে সরকার। এর মধ্যে মে মাসে এডিপি বরাদ্দের ১৯ হাজার ৪০১ কোটি টাকা খরচ হয়েছে।

আইএমইডি সূত্রমতে, গত বছরের তুলনায় এডিপি বাস্তবায়ন হার কিছুটা বেশি হয়েছে এ বছর। গত বছর এডিপি বাস্তবায়নের হার ছিল ৫৭ দশমিক ৩৭ শতাংশ, যা টাকার অংকে ১ লাখ ১৫ হাজার ৪২১ কোটি টাকা। ২০১৯-২০ অর্থবছরে মোট এডিপি বরাদ্দ ছিল ২ লাখ ১১ হাজার ৯৯ কোটি টাকা।

করোনার কারণে এবছরও এডিপি বাস্তবায়নে ধীরগতি দেখা গেছে। যেমন-২০১৮-১৯ অর্থবছরে মোট বরাদ্দ ছিল ১ লাখ ৭৬ হাজার ৬২০ কোটি টাকা। একই সময়ে এডিপি বাস্তবায়ন হার ছিল ৬৭ দশমিক ৯৭ শতাংশ, টাকার অংকে ১ লাখ ২০ হাজার ৪২ কোটি টাকা। ২০১৭-১৮ অর্থবছরে মোট এডিপি বরাদ্দ ছিল ১ লাখ ৫৭ হাজার ৫৯৪ কোটি টাকা। মে মাস পর্যন্ত বাস্তবায়ন হার ছিল ৬২ শতাংশ, টাকার অংকে ৯৮ হাজার ৯৭৮ কোটি টাকা। ২০১৬-১৭ অর্থবছরে মোট এডিপির আকার ছিল ১ লাখ ১৯ হাজার ২৯৬ কোটি টাকা। মে মাস পর্যন্ত বাস্তবায়ন হার ছিল ৬৪ শতাংশ, টাকার অংকে ৭৭ হাজার ২০৪ কোটি টাকা।

বৃহৎ বরাদ্দপ্রাপ্ত ১৫টি মন্ত্রণালয় ও বিভাগের মধ্যে সবচেয়ে বেহাল অবস্থা স্বাস্থ্যসেবা বিভাগে। সবচেয়ে কম অগ্রগতি দেখা গেছে এই বিভাগে। স্বাস্থ্যসেবা বিভাগে এডিপি বাস্তবায়ন হয়েছে ৩১ দশমিক ৩৮ শতাংশ, টাকার অংকে ৩ হাজার ৭৫৯ কোটি টাকা। ৫৩টি প্রকল্পে মোট বরাদ্দ ছিল ১১ হাজার ৯৭৯ কোটি টাকা। বাকি এক মাসে স্বাস্থ্যসেবা বিভাগকে ৮২২০ কোটি টাকা খরচ করতে হবে। চলতি অর্থবছর শেষ হবে ৩০ জুন। এই সময়ে শতভাগ এডিপি বাস্তবায়ন করতে হলে খরচ করতে হবে ৮৭ হাজার ১৪১ কোটি টাকা।

মঙ্গলবার (১৫ জুন) পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ের বাস্তবায়ন, পরিবীক্ষণ ও মূল্যায়ন বিভাগ (আইএমইডি) থেকে এসব তথ্য জানা গেছে।