চানখারপুলে ঢাবির সাবেক শিক্ষার্থীর ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

রাজধানীর চানখারপুল থেকে ঝুলন্ত অবস্থায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের সাবেক শিক্ষার্থী মাসুদ আল মাহাদী অপুর মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

সোমবার (২৭ সেপ্টেম্বর) দুপুরে চানখারপুলের স্বপ্ন বিল্ডিংয়ের ৮ তলা থেকে তার মরদেহ উদ্ধার করা হয়। অপুর রুমমেটরা প্রাথমিকভাবে এটিকে আত্মহত্যা বলে ধারণা করছে।

রহস্যজনক মৃত্যু উল্লেখ করে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টরিয়াল টিমের একজন সদস্য বলেন, একটি ভিডিও ফুটেজে দরজা খোলা এবং অপুর ফ্লোরে হাঁটু গেড়ে ঝুলার দৃশ্য দেখে এটাকে আত্মহত্যা মনে হয়নি। এটি রহস্যজনক মৃত্যু, সঠিক তদন্ত করলে হয়তো আসল ঘটনা বেরিয়ে আসবে।

অপুর রুমমেট জহিরুল ইসলাম বলেন, আমি ২টার দিকে লাঞ্চে এসে রুম বন্ধ দেখি। দরজার ছিদ্র দিয়ে শুধুমাত্র হাতটা দেখা যাচ্ছিল। আমি বাড়ির ম্যানেজারসহ কয়েকজনকে বিষয়টি জানাই। পরে সবাই মিলে দরজার লক ভেঙে ভেতরে প্রবেশ করে দেখি অপু ঝুলন্ত অবস্থায় রয়েছে।

তিনি আরও বলেন, অপু গতকাল রাতে একটা চাকরির পরীক্ষার জন্য প্রস্তুতি নিয়েছে, পড়ালেখাও করেছে রাত ১টা পর্যন্ত। আত্মহত্যা করার পেছনে কোনো কারণ আমি খুঁজে পাচ্ছি না।

ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে লালবাগ থানার ডিসি জসীম উদ্দীন মোল্লাহ বলেন, তার রুমমেটরা বলছেন আত্মহত্যা। তবে আমরা মরদেহের সুরতহাল করেছি। কিছু ভিডিও ফুটেজও পেয়েছি। সবকিছু যাচাই বাছাই করা হচ্ছে। সুরতহালের পর ময়নাতদন্তের জন্য মরদেহ মর্গে পাঠানো হয়েছে। ময়নাতদন্ত প্রতিবেদন হাতে পাওয়ার পর আমরা বলতে পারব এটা আত্মহত্যা নাকি অন্যকিছু।

জানা যায়, মাসুদ আল মাহাদী (অপু) পড়ালেখায় অত্যন্ত ভালো ছিলেন বলে জানিয়েছেন তার সহপাঠীরা। অপু অনার্সে প্রথম শ্রেণিতে প্রথম ও মাস্টার্সে প্রথম শ্রেণিতে দ্বিতীয় স্থান অধিকার করেন। অপু অনার্স ও মাস্টার্সে ভালো রেজাল্ট করে কিছুদিন সাংবাদিকতা করেছেন। চাকরি ছেড়ে গত দুই বছর ধরে প্রস্তুতি নিচ্ছিলেন বিসিএসের। তার গ্রামের বাড়ি পিরোজপুরের স্বরূপকাঠিতে। দুই ভাইয়ের মধ্যে তিনি বড়।