সারাদেশে সুপেয় পানি সরবরাহে গ্রিড লাইন স্থাপনে মাস্টারপ্ল্যান হচ্ছে



সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রী মো. তাজুল ইসলাম

স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রী মো. তাজুল ইসলাম

  • Font increase
  • Font Decrease

উপকূলীয় অঞ্চলসহ সারাদেশে সুপেয় পানি সরবরাহে ওয়াটার গ্রিড লাইন স্থাপনে একটি মাস্টার প্ল্যান প্রণয়নে স্ট্যাডির কাজ চলছে বলে জানিয়েছেন স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রী মো. তাজুল ইসলাম।

বৃহস্পতিবার (২ ডিসেম্বর) রাজধানীর বাংলাদেশ প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের কাউন্সিল ভবনে আইটিএন-বুয়েট আয়োজিত ‘শহরব্যাপী অন্তর্ভুক্তিমূলক স্যানিটেশনের প্রসার এবং স্যানিটেশন উদ্ভাবন’ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা জানান।

স্থানীয় সরকার মন্ত্রী বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ক্ষমতায় এসে পানি ও স্যানিটেশন ব্যবস্থাপনাসহ মানুষের উন্নত জীবন ব্যবস্থার জন্য সব ধরনের উদ্যোগ হাতে নিয়েছেন। ২০৪১ সালের মধ্যে উন্নত-সমৃদ্ধ দেশ গড়তে হলে অর্থনৈতিক উন্নয়নের পাশাপাশি জাতিসংঘের অনেকগুলো পূর্ব-শর্ত পূরণ করতে হবে। এজন্য সমন্বিত উদ্যোগ দরকার। তাই সকল শ্রেণি-পেশার মানুষকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করার আহ্বান জানান তিনি।

তিনি আরও জানান, দেশে ইকোনমিক জোন হচ্ছে। যেখানে অনেক ধরনের শিল্প কারখানা প্রতিষ্ঠিত হবে। সেখানে প্রচুর পানির প্রয়োজন হবে। এখন থেকে যদি পানি সরবরাহে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা না হয় তাহলে পরবর্তীতে সংকট দেখা দিবে। এসময় মিরেরসরাই ইকোনমিক জোনে মেঘনা নদী থেকে পানি উত্তোলন করা হবে বলেও জানান।

চট্টগ্রাম ওয়াসা নতুন একটি ওয়াটার ট্রিটমেন্ট প্লান্ট স্থাপন করতে যাচ্ছে জানিয়ে মো. তাজুল ইসলাম বলেন, দেশের পানির সমস্যা সমাধানে স্থানীয় সরকার বিভাগের আওতাধীন ঢাকা ওয়াসাসহ অন্যান্য ওয়াসা অনেকগুলো ওয়াটার ট্রিটমেন্ট প্লান্ট স্থাপন করেছে। এছাড়া জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদফতর প্রান্তিক জনগোষ্ঠীর জন্য পানি ও স্যানিটেশন নিয়ে নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে।

মন্ত্রী বলেন, নগরায়ন বৃদ্ধির সাথে সাথে শহরগুলোতে স্যানিটেশন সমস্যা বৃদ্ধি বৃদ্ধি পাচ্ছে। দীর্ঘমেয়াদি পরিকল্পনা, প্রযুক্তিগত উদ্যোগ, প্রাতিষ্ঠানিক সংস্কার এবং আর্থিক ব্যবস্থাপনাকে অন্তর্ভুক্ত করার মাধ্যমে ব্যাপকভাবে স্যানিটেশনের উন্নয়ন কাজ করতে হবে।

নিরাপদ স্যানিটেশন শুধু বাংলাদেশ নয় সারা বিশ্বই এই চ্যালেঞ্জ মোকাবিলা করছে উল্লেখ করে তিনি জানান, শহরব্যাপী অন্তর্ভুক্তিমূলক স্যানিটেশন বা সিটি ওয়াইড ইনক্লুসিভ স্যানিটেশন' স্যানিটেশনের সামগ্রিক ইস্যুকে প্রাধান্য দেয়। এটি সকলের জন্য সমতাভিত্তিক, নিরাপদ এবং টেকসই স্যানিটেশন সমাধান নিশ্চিত করায় বিশ্বব্যাপী গ্রহণযোগ্যতা রয়েছে।

দেশে বর্জ্য থেকে বিদ্যুৎ উৎপাদনের নতুন দিগন্ত উন্মোচন হয়েছে উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, বাসাবাড়ির ও মেডিকেল বর্জ্যসহ সব ধরনের ময়লা-আবর্জনা নির্দিষ্ট স্থানে ফেলতে হবে। পরিবেশ রক্ষায় সবাইকে সচেতন থাকতে হবে।

মো. তাজুল ইসলাম বলেন, ঢাকা শহরের আবাসিক এলাকার অনেক বাসাবাড়ি নিজস্ব সেপটিক ট্যাংক নেই। তারা স্যুয়ারেজ লাইন সরাসরি লেকে বা খালে ফেলে দেয়। এব্যাপারে সকলকে সচেতন করতে ক্যাম্পেইন চালানো হচ্ছে। এ সময়ে মধ্যে নিজেদের সেপটিক ট্যাংক না করলে ব্যবস্থা নেওয়ার কথা উল্লেখ করেন তিনি।

বুয়েটের ভাইস চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. সত্য প্রসাদ মজুমদারের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন স্থানীয় সরকার বিভাগের সিনিয়র সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ এবং বুয়েটের প্রো-ভাইস চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. আবদুল জব্বার খান। গেস্ট অব অনার হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিল অ্যান্ড মেলিন্ডা গেটস ফাউন্ডেশনের ডেপুটি ডিরেক্টর ড. রোসান রাজ শ্রেষ্ঠা।

এছাড়া, এলজিইডি প্রধান প্রকৌশলী মো. আব্দুর রশিদ খান, জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদফতরের প্রধান প্রকৌশলী মো. সাইফুর রহমান, ঢাকা ওয়াসার ব্যবস্থাপনা পরিচালক তাকসিম এ খানসহ বিভিন্ন সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তা এবং বুয়েটের সংশ্লিষ্ট বিভাগের শিক্ষকগণ উপস্থিত ছিলেন।

বিধিনিষেধ উপেক্ষা করে বাসাইলে বিজ্ঞানমেলা অনুষ্ঠিত



ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট বার্তা২৪.কম, টাঙ্গাইল
ছবি: বার্তা২৪.কম

ছবি: বার্তা২৪.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

করোনা বিধিনিষেধ উপেক্ষা করে টাঙ্গাইলের বাসাইলে ৪৩তম জাতীয় বিজ্ঞান মেলা ও প্রযুক্তি সপ্তাহ অনুষ্ঠিত হয়েছে।

সরকারি নির্দেশনা অনুযায়ী গত ১৩ জানুয়ারি থেকে সকল ধরনের সামাজিক, রাজনৈতিক ও ধর্মীয় সমাবেশ বন্ধ রাখার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।
করোনাভাইরাস সংক্রমণ ঠেকাতে ২১জানুয়ারি থেকে ৬ফেব্রুয়ারি স্কুল কলেজ বন্ধ রাখার নির্দেশনা দেয়া হলেও শনিবার (২২ জানুয়ারি) উপজেলা প্রশাসনের আয়োজনে বাসাইল ডিগ্রি কলেজ মাঠে  এ মেলার উদ্বোধন করা হয়। মেলায় বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান তাদের বিজ্ঞান উপকরণ নিয়ে উপস্থিত হয়। 

উপজেলা নির্বাহী অফিসার নাহিদা পারভীনের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন স্থানীয় সাংসদ বীর মুক্তিযোদ্ধা জোয়াহেরুল ইসলাম ভিপি জোয়াহের।

এ সময় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন  উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান কাজী অলিদ ইসলাম, উপজেলা সহকারি কমিশনার ভূমি নাহিয়ান নূরেন, পৌর মেয়র বীর মুক্তিযোদ্ধা রহিম আহমেদসহ বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের প্রধান শিক্ষক ও শিক্ষক-শিক্ষিকাবৃন্দ। 

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নাহিদা পারভীন বলেন,বিজ্ঞান মেলা কোনো ক্লাস না, একদিনের জন্য সীমিত পরিসরে ছোট একটি অনুষ্ঠান। সরকারি অনুষ্ঠান বন্ধ এটা তো কোথাও বলা নাই।পরিপত্রে লিখা আছে ১০০ জন মাস্ক পড়ে অনুষ্ঠানে আসতে পারবে।এই অনুষ্ঠানের সাথে স্কুল কলেজে বন্ধ থাকার কোনো মিল নাই।এই অনুষ্ঠানটি স্বাস্থ্যবিধি মেনেই অনুষ্ঠিত হচ্ছে।

;

মহানায়কের স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উপলক্ষে সেমিনার



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম,টাঙ্গাইল
ছবি: মহানায়কের স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উপলক্ষে সেমিনার

ছবি: মহানায়কের স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উপলক্ষে সেমিনার

  • Font increase
  • Font Decrease

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বদেশ প্রত্যাবর্তন উপলক্ষে অনলাইন সেমিনার করেছে সরকারি সা'দত কলেজ করটিয়ার ইতিহাস বিভাগ।

শনিবার(২২ জানুয়ারি) বেলা ১১ টা থেকে ঘন্টা ব্যাপী অনলাইন প্লাটফর্ম জুমের মাধ্যমে ইতিহাস বিভাগের বিভাগীয় প্রধান প্রফেসর ড.তাহমিনা খানের সভাপতিত্বে এই সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়। ইতিহাস বিভাগ আয়োজিত এই অনুষ্ঠানে ইতিহাস বিভাগের সকল শিক্ষক ও শিক্ষার্থীরা অংশগ্রহণ করেন।

অনুষ্ঠানে স্বদেশ প্রত্যাবর্তন উপলক্ষে স্বদেশ প্রত্যাবর্তনের তাৎপর্য তুলে ধরে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। আলোচনাকালে বঙ্গবন্ধুর স্বদেশ প্রত্যাবর্তনের মাধ্যমে বাঙালির বিজয় পূর্ণতা পেয়েছিল বলে বক্তারা উল্লেখ করেন।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে সরকারি সা'দত কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ প্রফেসর মৃদুল চন্দ্র পোদ্দার শুরুতেই হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙ্গালী বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্মৃতির প্রতি বিনম্র শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। তিনি তার বক্তব্যে স্বদেশ প্রত্যাবর্তনকালে জাতির পিতার যুক্তরাজ্য ও ভারত সফরের মাধ্যমে সূচিত বাংলাদেশের কূটনৈতিক ও রাজনৈতিক বিজয়ের প্রসঙ্গ তুলে ধরেন। বাংলাদেশের স্বাধিকার প্রতিষ্ঠার মাধ্যমে সকল প্রকার শোষণ-নিপীড়ন-বঞ্চনার ইতি টেনে বাঙ্গালী জাতির আর্থ সামাজিক মুক্তির লক্ষ্যে এই মহানায়কের সূচিত অগ্রযাত্রার এক ঐতিহাসিক আলেখ্য তিনি উপস্থিত সকলের সামনে তুলে ধরেন।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন সরকারি সা'দত কলেজের অর্থনীতি বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ও শিক্ষক পরিষদের সম্পাদক মো. মোশারফ হোসেন প্রাবন্ধিক উপস্থাপন করেন ইতিহাস বিভাগের প্রভাষক মো.হান্নান মিয়া,মূখ্য আলোচক ছিলেন ইতিহাস বিভাগের সহকারী অধ্যাপক সানজিদা আক্তার কেয়া ।
অনুষ্ঠানে সঞ্চালক ছিলেন ইতিহাস বিভাগের সহকারী অধ্যাপক দিলরুবা নার্গিস ।

;

প্রশ্নপত্র জালিয়াতি চক্রের ১০ সদস্য গ্রেফতার



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
ছবি: বার্তা২৪.কম

ছবি: বার্তা২৪.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

সরকারি নিয়ােগ পরীক্ষায় প্রশ্নপত্র ফাঁস ও প্রশ্নের উত্তর সরবরাহকারী চক্রের ১০ সদস্যকে গ্রেফতার করেছে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) গোয়েন্দা বিভাগ।

শুক্রবার (২১ জানুয়ারি) রাতে রাজধানীর মিরপুর, তেজগাঁও শিল্পাঞ্চল ও কাকরাইল এলাকা হতে তাদের গ্রেফতার করা হয় ।

এসময় তাদের কাছ থেকে ৬টি ইয়ার ডিভাইস, মাস্টার কার্ড, মােবাইল সিম, ব্যাংকের চেক ৫ টি, নন জুডিশিয়াল স্ট্যাম্প ৭টি, স্মার্ট ফোন ১০টি, বাটন মােবাইল ৬টি, প্রবেশপত্র ১৮টি ও চলমান পরীক্ষার ফাঁস হওয়া প্রশ্নপত্র ৩ সেট জব্দ করা হয়।

শনিবার (২২ জানুয়ারি) দুপুরে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) গোয়েন্দা বিভাগের (ডিবি) অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার (প্রধান) এ কে এম হাফিজ আক্তার এ তথ্য জানান।

গ্রেফতারকৃতরা হলেন, নােমান সিদ্দিকী, মাহমুদুল হাসান আজাদ, আল আমিন রনি, নাহিদ হাসান, শহীদ উল্লাহ, তানজির আহমেদ, মাহবুবা নাসরীন রুপা, রাজু আহমেদ, হাসিবুল হাসান ও রাকিবুল হাসান।

হাফিজ আক্তার বলেন, গ্রেফতারকৃতদের মধ্যে মাহমুদুল হাসান আজাদ সিজিএ অফিসের সরকারী কর্মকর্তা এবং মাহবুবা নাসরীন রুপা বগুড়ার ধুপচাঁচিয়া উপজেলার ভাইস চেয়ারম্যান।

গােয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে ডিবি পুলিশ কাকরাইলে অবস্থিত নিউ শাহিন হােটেল থেকে অসাধু উপায়ে অবলম্বনকারী দু'জন পরীক্ষার্থীকে গ্রেফতার করেন।
তাদের দেওয়া তথ্যমতে কাফরুল থানার সেনপাড়া এলাকার একটি অ্যাপার্টমেন্ট থেকে ডিভাইস, প্রশ্নপত্র এবং উত্তর পত্রের খসড়াসহ ৪ জনকে গ্রেফতার করা হয়।

ডিবি পুলিশের অপর দল বিজি প্রেস উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রে অভিযান চালিয়ে পরীক্ষার্থী এবং পরিকল্পনাকারী মাহবুবা নাসরীন রুপাকে টাকা, ডিজিটাল ডিভাইসসহ গ্রেফতার করেন। পরবর্তীতে তার দেওয়া তথ্যমতে অপর আসামিদেরকে গ্রেফতার করা হয় বলে জানান তিনি।

ডিবির এই কর্মকর্তা বলেন, গ্রেফতারকৃত আসামিদের মধ্যে মাহমুদুল হাসান আজাদ, নাহিদ হাসান, আল আমিন সিদ্দিকী ইতিপূর্বেও প্রশ্নপত্র ফাঁস সংক্রান্তে ২০১৩, ২০১৬ এবং ২০১৯ সালে গ্রেফতার হয়েছিল।

উল্লেখ্য, শুক্রবার (২১ জানুয়ারি) দুপুর ৩টা থেকে বিকেল ৪টা ১৫ মিনিট পর্যন্ত প্রতিরক্ষা মহাহিসাব নিরীক্ষকের কার্যালয়ের অধীন ডিফেন্স ফাইন্যান্স ডিপার্টমেন্টের ৫৫০টি অডিটর পদে নিয়ােগের জন্য ৭০ নম্বরের এমসিকিউ পরীক্ষা ঢাকা মহানগরীর বিভিন্ন অঞ্চলের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের হলগুলােতে অনুষ্ঠিত হয়। ঢাকা মহানগর ডিবি পুলিশের নিকট তথ্য ছিল পূর্বে বিভিন্ন সময় গ্রেফতার হওয়া কতিপয় ব্যক্তি ইলেকট্রনিক ডিভাইস, মােবাইল অ্যাপস এবং ব্যক্তি পরিবর্তন করে পরীক্ষায় প্রশ্নপত্র ফাঁস, উত্তর/সমাধান সরবরাহসহ অসদুপায় অবলম্বন করতে পারে। ওই গোপন সংবাদের ভিত্তিতে অভিযান পরিচালনা করে তাদের গ্রেফতার করা হয়।

;

যাত্রাবাড়ীতে গাজাসহ দুই মাদক চোরাকারবারি গ্রেফতার



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

রাজধানীর যাত্রাবাড়ীতে ১৪ কেজি গাজাসহ ২ মাদক চোরাকারবারিকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব।

গ্রেফতারকৃতরা হলেন, মো. সোহাগ (২২) ও মো. জাহাঙ্গীর (২৮)। এসময় তাদের নিকট থেকে ২টি মোবাইল ফোন জব্দ করা হয়। 

শনিবার (২২ জানুয়ারি) র‍্যাব-১০ এর সহকারী পরিচালক (মিডিয়া) এএসপি এনায়েত কবির শোয়েব এ তথ্য জানান। 

তিনি জানান, শুক্রবার (২১ জানুয়ারি) রাতে র‌্যাব-১০ এর একটি আভিযানিক দল রাজধানী ঢাকার যাত্রাবাড়ী থানার ধলপুর এলাকায় অভিযান করে আনুমানিক ৪ লাখ বিশ হাজার টাকা মূল্যের ১৪ কেজি গাঁজাসহ ২ জন মাদক ব্যবসায়ীকে গ্রেফতার করে। 

প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে গ্রেফতারকৃত ব্যক্তিরা পেশাদার মাদক ব্যবসায়ী বলে স্বীকার করে। তারা বেশ কিছুদিন যাবৎ যাত্রাবাড়ীসহ ঢাকা শহরের বিভিন্ন এলাকায় গাজাসহ অন্যান্য মাদকদ্রব্য সরবরাহ করে আসছিল বলে জানায় এই কর্মকর্তা।

;