একুশ শতকের চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় প্রস্তুত বস্ত্র ও পাট মন্ত্রণালয়



সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
একুশ শতকের চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় প্রস্তুত বস্ত্র ও পাট মন্ত্রণালয়

একুশ শতকের চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় প্রস্তুত বস্ত্র ও পাট মন্ত্রণালয়

  • Font increase
  • Font Decrease

বস্ত্র ও পাট মন্ত্রী গোলাম দস্তগীর গাজী বলেছেন, বস্ত্রখাতের সংশ্লিষ্ট অংশীজনদের সব ধরনের সহযোগীতা সদা সচেষ্ট বস্ত্র ও পাট মন্ত্রণালয়। একুশ শতক তথা চতুর্থ শিল্প বিপ্লবের চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় সর্বদা বস্ত্র ও পাট মন্ত্রণালয় আপনাদের পাশে থাকবে।

শনিবার (৪ ডিসেম্বর) বস্ত্র ও পাট মন্ত্রণালয় কর্তৃক ‘জাতীয় বস্ত্র দিবস ২০২১’ উদযাপন উপলক্ষে ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে আয়োজিত সম্মাননা প্রদান অনুষ্ঠানে এ কথা জানান মন্ত্রী।

অনুষ্ঠানে বস্ত্র ও পাট মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি মির্জা আজম, বস্ত্র ও পাট মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. আব্দুর রউফ, বস্ত্র ও পাট মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব মোহাম্মদ আবুল কালাম, বস্ত্র অধিদফতরের মহাপরিচালক মো. নুরুজ্জামান, বিজিএমইএ সভাপতি ফারুক হাসান, বিকেএমইএ, বিটিএমএ ও বস্ত্রখাতের সংশ্লিষ্ট অংশীজনদের প্রতিনিধিসহ বস্ত্র ও পাট মন্ত্রণালয়ের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাবৃন্দ এসময় উপস্থিত ছিলেন।

মন্ত্রী বলেন, বস্ত্রখাতের জন্য দক্ষ মানবসম্পদ তৈরির লক্ষ্যে সরকারি পর্যায়ে টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজ, টেক্সটাইল ইনস্টিটিউট, টেক্সটাইল ভোকেশনাল ইনস্টিটিউট, তাঁত প্রশিক্ষণ ইনস্টিটিউট এবং ফ্যাশন ডিজাইন ইনস্টিটিউট পরিচালিত হচ্ছে। বস্ত্রখাতে দক্ষ জনবলের ক্রমবর্ধমান চাহিদা মেটাতে এ ধরনের আরও শিক্ষা প্রতিষ্ঠান স্থাপনের কাজ চলমান রয়েছে। বাংলাদেশের সোনালী ঐতিহ্য মসলিনকে বড় পরিসরে বাণিজ্যিক রূপদানের জন্য ‘ঢাকাই মসলিন হাউজ’ প্রতিষ্ঠা করা হচ্ছে।

তিনি বলেন, বস্ত্রখাতে প্রধানমন্ত্রী কর্তৃক ঘোষিত বিশেষ প্রণোদনার কারণে এ খাত জাতীয় রফতানির ধারাকে করোনাভাইরাসের ক্ষতিকর প্রভাবমুক্ত রাখতে সক্ষম হয়েছে। বস্ত্রশিল্পের ধারাবাহিক উন্নয়ন ও আধুনিকায়নের গতি বেগবান করা এবং অভ্যন্তরীণ ও আন্তর্জাতিক বাজারে চাহিদা লক্ষ্য সামনে রেখে ‘জাতীয় বস্ত্র দিবস’ এবারের প্রতিপাদ্য বস্ত্রখাতের বিশ্বায়ন; বাংলাদেশের উন্নয়ন ।

অনুষ্ঠানে বিশ্বব্যাপী চলমান করোনাভাইরাস বিপর্যয়ের অভিঘাতে বস্ত্রখাতকে রক্ষায় অবদানের জন্য বস্ত্র ও পাট মন্ত্রণালয় কর্তৃক ‘জাতীয় বস্ত্র দিবস’ ২০২১ উদযাপন উপলক্ষে সাতটি সংগঠন বিজিএমইএ, বিকেএমইএ, বিটিএমএ,বিজিবিএ, বিজিবিএ,বিএসটিএমপিআইএ, বিটিটিএলএমইএ ও বাংলাদেশ জাতীয় তাঁতী সমিতিকে সম্মাননা প্রদান করা হয় ।

এর আগে সকালে জাতীয় বস্ত্র দিবস ২০২১ উদযাপন উপলক্ষে বর্ণাঢ্য র‌্যালি অনুষ্ঠিত হয় ।

মোংলায় ৫টি হরিণের চামড়াসহ যুবক আটক



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, মোংলা (বাগেরহাট)
ছবি: বার্তা২৪.কম

ছবি: বার্তা২৪.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

 

বাগেরহাটের মোংলা বন্দরের শিল্প এলাকা থেকে পাঁচটি হরিণের চামড়াসহ আল আমিন (২৫) নামে পাচারচক্রের এক সদস্যকে আটক করেছে র‌্যাব।

মঙ্গলবার (২৫ জানুয়ারি) রাত ১০টার দিকে ​দিগরাজ বাজার ​থেকে তাকে আটক করে র‌্যাব-৬ এর একটি দল। আটক আল আমিন খুলনার দাকোপ উপজেলার বানীশান্তা গ্রামের বাসিন্দা।

র‌্যাব-৬-এর কর্মকর্তা পুলিশ সুপার (এসপি) মো. মাহফুজুল ইসলাম জানান, সুন্দরবন থেকে হরিণ শিকার করে চামড়া চোরাই বাজারে বিক্রির জন্য নিয়ে এসেছিলেন আল আমিন। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে তাকে আটক করা হয়।

তিনি বলেন, আটক আল আমিন বন্যপ্রাণী পাচারচক্রের সদস্য। তাকে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদ শেষে হরিণের পাঁচটি চামড়াসহ মোংলা থানায় হস্তান্তর করা হবে। তার বিরুদ্ধে থানায় মামলা দায়েরও করা হবে।

;

মগবাজারে বাসচাপায় কিশোর নিহতের ঘটনায় গ্রেফতার ২



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

রাজধানীর মগবাজার মোড়ে যাত্রীবাহী দুই বাসের চাপায় রাকিব (১৪) নামের এক কিশোর নিহত হওয়ার ঘটনায় আজমেরি বাসের দুই চালককে গ্রেফতার করেছে র‍্যাব।

গ্রেফতারকৃত দুই চালক হলেন- মো. মনির হোসেন ও মো. ইমরান হোসেন।

মঙ্গলবার (২৫ জানুয়ারি) রাতে তাদের রাজধানীর পল্টন ও মুন্সীগঞ্জের শ্রীনগর এলাকা থেকে গ্রেফতার করা হয় বলে জানান র‍্যাবের লিগ্যাল অ্যান্ড মিডিয়া উইংয়ের সহকারী পরিচালক এএসপি আ ন ম ইমরান খান।

তিনি বলেন, এ বিষয়ে বুধবার দুপুরে বিস্তারিত সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে জানানো হবে।

এর আগে, বৃহস্পতিবার (২০ জানুয়ারি) বিকাল ৫টার দিকে এই দুর্ঘটনা ঘটে। গুরুতর আহত অবস্থায় কিশোর রাকিবকে উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালের জরুরি বিভাগে নিয়ে গেলে চিকিৎসক বিকাল সাড়ে ৫টায় মৃত ঘোষণা করেন।

;

রংপুরে আন্তঃজেলা মোটরসাইকেল চোর চক্রের সদস্য গ্রেফতার



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, রংপুর
রংপুরে আন্তঃজেলা মোটরসাইকেল চোর চক্রের সদস্য গ্রেফতার

রংপুরে আন্তঃজেলা মোটরসাইকেল চোর চক্রের সদস্য গ্রেফতার

  • Font increase
  • Font Decrease

রংপুরে সিসি টিভির ফুটেজ ও তথ্য প্রযুক্তির সহায়তায় আন্তঃজেলা মোটরসাইকেল চোর চক্রের সদস্য সাইফুল ইসলামকে (৩৫) গ্রেফতার করেছে পুলিশ। এসময় ২টি চোরাই মোটরসাইকেল উদ্ধার করা হয়।

মঙ্গলবার (২৫ জানুয়ারি) সন্ধ্যায় চুরি যাওয়া মোটরসাইকেল উদ্ধারের বিষয়টি নিশ্চিত করেন সহকারী পুলিশ সুপার (এসএএফ) ও অতিরিক্ত দায়িত্বে সি-সার্কেল আশরাফুল আলম।

গ্রেফতার সাইফুল ইসলাম কুড়িগ্রাম জেলার চিলমারী উপজেলার পাত্রখাতা গ্রামের রহমান হাজির গ্রামের ইয়াকুব আলীর ছেলে।

আশরাফুল আলম জানান, গত ১৮ জানুয়ারি পীরগাছা থানায় চোরাই মোটরসাইকেল উদ্ধারে একটি মামলা দায়ের করা হয়। মামলার বর্ণনা মতে ঘটনাস্থলের সিসি টিভি ফুটেজের সূত্র ধরে আসামি মশিউর রহমান সিজনকে পূর্বে গ্রেফতার করে পুলিশ। পরে তার দেওয়া তথ্য মতে এবং তথ্য প্রযুক্তির সহায়তায় সাইফুল ইসলামকে দুটি চোরাই মোটরসাইকেলসহ গ্রেফতার করা হয়।

অতিরিক্ত দায়িত্বে সি-সার্কেল মো. আশরাফুল আলম বলেন, গ্রেফতারকৃত আসামিকে আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে। এ চক্রের সঙ্গে অন্য কেউ জড়িত থাকার তথ্য পাওয়া গেলে তাদেরকে আইনের আওতায় আনা হবে।

;

দেশি ছোট মাছ রক্ষায় ১৬০ অভয়াশ্রম, দেখভালের দায়িত্বে জেলেরা



তরিকুল ইসলাম সুমন, সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট, বার্তা ২৪.কম, ঢাকা
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

এলাকা ভিত্তিক দেশীয় প্রজাতির বিলুপ্ত প্রায় ছোট মাছ চাষ, সংরক্ষণের অংশ হিসেবে দেশের ১০ জেলার ৪৯ উপজেলায় ১৬০ অভয়াশ্রম স্থাপন করা হবে বলে জানিয়েছেন মৎস্য অধিদফতরের মাহাপরিচালক খ. মাহবুবুল হক।

তিনি বার্তা২৪.কমকে জানান, সব বাঙালিরই প্রিয় ও পছন্দের খাবারের তালিকায় রয়েছে দেশীয় ছোট মাছ। কিন্তু সময়ের পরিবর্তনের সাথে সাথে হারিয়ে যাচ্ছে ছোট মাছ। বাংলাদেশের বিভিন্ন নদী-নালা, খাল-বিলে, হাওরে এখন আর মিলছে না তেমন ছোট মাছ। পানি দূষণ ও পানি স্বল্পতার অভাবে হারিয়ে যাচ্ছে। এই ছোট জাতের মাছ ফিরিয়ে আনার জন্য নানা উদ্যোগ নিয়েছে মৎস্য ও প্রাণী সম্পদ মন্ত্রণালয়। এরই ধারাবাহিকতায় মৎস্য অধিদফতর কাজ শুরু করেছে দেশের নদ-নদী ও হাওর বেষ্টিত ১০ জেলায় ছোট মাছ সংরক্ষণ ও চাষাবাদের।

মহাপরিচালক আরো বলেন, প্রকল্পের মাধ্যমে দেশোর ৪৯ উপজেলায় শুধু ১৬০ নতুন অভয়াশ্রম স্থাপনের পাশাপাশি ২৪০ অভয়াশ্রম পুনঃসংস্কার ও রক্ষণাবেক্ষণের ব্যবস্থা করা হবে। অভয়াশ্রমগুলো পাহারা দেয়ার জন্য সম সংখ্যক পাহারা শেড কাম ব্যবস্থাপনা ইউনিট নির্মাণ করা হবে। যা সমাজভিত্তিক গোষ্ঠী কর্তৃক পাহারা ও ব্যবস্থাপনা কার্যক্রম পরিচালিত হবে।

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, ইতিমধ্যে দেশীয় প্রজাতির ছোট-বড় অনেক মাছ হারিয়ে গেছে। গজার, টেপা মাছ, দেশি মাগুর, বোয়াল, চিতল, ফলি, ফাঁসা, নুনা মাছ, চেবলী, আইকার, তপসি, চাঁদা, ঢেলা, তারা বাইন, বাতাসি, বাইলা, শিং, ভেকটি, কৈ, মাগুর, শিং, পাবদা, টেংরা, পুঁটি, ডারকা, মলা, শাল চোপরা, শৌল, বোয়াল, আইড়, ভ্যাদা, বুড়াল, বাইম, খলিসা, চিংড়ি, মালান্দা, খরকাটি, গজার, শবেদা, চেং, টাকি, চিতল, গতা, পোয়া, বালিয়া, উপর চকুয়া, কাকিলা, গুত্তুম, বৌরানীসহ প্রায় ৫২ প্রজাতির মাছ বিলুপ্তির পথে। অনেক আবার হারিয়ে গেছে।

মৎস্য গবেষণা ইনস্টিটিউটের মহাপরিচালক ড. ইয়াহিয়া মাহমুদ বার্তা২৪.কমকে বলেন, ছোট মাছের পুষ্টি ও স্বাদের দিক দিয়ে আমাদের সবার কাছেই প্রিয়। একারণে বেশ কয়েক বছরের গবেষণার মাধ্যমে হারিয়ে যাওয়া ও বিপন্ন প্রায় প্রজাতির মধ্য থেকে ৩১ প্রজাতির ছোট মাছ ফিরিয়ে আনা হয়েছে। যা মৎস্য অধিদফতরের মাধ্যমে দেশব্যাপী চাষপদ্ধতি সম্পসারণ করা হচ্ছে।

প্রকল্প পরিচালক এসএম আশিকুর রহমান বার্তা২৪.কমকে জানান, ফাগুন-চৈত্র মাসে খাল-বিল, নদী-নালা শুকিয়ে যাওয়ায় দেশীয় প্রজাতির ছোট মাছ প্রজনন করতে পারে না। এ কারণে বর্ষা মৌসুম শুরুর আগ থেকেই আমরা কাজ শুরু করেছি। প্রকল্প ভুক্ত এলাকার যে সব জায়গায় এসব মাছ বেশি পাওয়া যাবে। সে সব এলাকা চিহ্নিত করে অভয়াশ্রম স্থাপন করা হবে। যেখানে সারা বছর কম বেশি পানি থাকবে।

তিনি বলেন, এ প্রকল্পে আওতায় খাঁচায় মাছ চাষ, ধানক্ষেতে মাছ চাষ, বিকল্প কর্মসংস্থান সৃষ্টি, মৎস্যচাষ প্রশিক্ষণ, নিরাপদ মৎস্য উৎপাদন বৃদ্ধির লক্ষ্যে দক্ষ ও প্রশিক্ষিত জনবল গড়ে তোলা হবে।

;