বঙ্গবন্ধুর বাংলাদেশ শীর্ষক ‘হাতে লেখা’ রচনা প্রতিযোগিতা



নিউজ ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
ছবি: বার্তা২৪.কম

ছবি: বার্তা২৪.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

আগামী ১৭ মার্চ জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ১০২তম জন্মদিন। জাতীয়ভাবে এ দিনটিকে 'জাতীয় শিশু দিবস' হিসেবে পালন করা হয়। শিশুদের প্রতি বঙ্গবন্ধুর ভালোবাসা ছিল অপরিসীম। তাই তার জন্মদিনকে শিশুদের জন্য উৎসর্গ করে জাতীয় শিশু দিবস ঘোষণা করা হয়।

বিশেষ এই দিনকে ঘিরে শিশুদের জন্য ডাক বিভাগের মোবাইল ফাইন্যান্সিয়াল সার্ভিস নগদ ও জনপ্রিয় মাল্টিমিডিয়া গণমাধ্যম বার্তা২৪.কম আয়োজন করেছে বঙ্গবন্ধুর বাংলাদেশ শীর্ষক 'হাতে লেখা রচনা প্রতিযোগিতা'

বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে ৫০০-১০০০ শব্দের মধ্যে রচনা লিখে পাঠাতে হবে রেজিস্টার্ড ডাকযোগ অথবা কুরিয়ার সার্ভিসের মাধ্যমে।

রচনা প্রতিযোগিতার বিষয়

  • ৪র্থ শ্রেণি থেকে ৭ম শ্রেণি পর্যন্ত: 'বঙ্গবন্ধুর শৈশব ও কৈশোর'
  • ৮ম শ্রেণি থেকে এসএসসি পর্যন্ত: 'বঙ্গবন্ধুর ছাত্রজীবন'
  • এইচএসসি থেকে অনার্স ও ডিগ্রি প্রথম বর্ষ পর্যন্ত: 'আমাদের বঙ্গবন্ধু'

রচনা সাদা কাগজের এক পিঠে বাংলা ভাষায় স্পষ্টাক্ষরে লিখতে হবে। রচনা অবশ্যই স্বহস্তে লিখে স্কুলের প্রধান শিক্ষক/কলেজের অধ্যক্ষ/বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভাগীয় প্রধান দিয়ে সত্যায়িত করতে হবে। কোনোক্রমেই রচনার টাইপ করা অথবা ফটোকপি গ্রহণযোগ্য নয়।

প্রত্যেক বিষয় থেকে তিনজনকে বিজয়ী ঘোষণা করা হবে। বিজয়ীরা পাবেন আকর্ষণীয় পুরস্কার। এছাড়া তাদের ছবিসহ রচনা বার্তা২৪.কমে প্রকাশিত হবে। পাঠানো লেখার/রচনার সর্বস্বত্ব বার্তা২৪-এর।


রচনার সঙ্গে আলাদা কাগজে প্রতিযোগীর নাম, বাবা ও মায়ের নাম, যোগাযোগের পূর্ণ ঠিকানা, মোবাইল নম্বর, শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের নাম ও অধ্যয়নরত শ্রেণি উল্লেখ করতে হবে। খামের ওপর প্রতিযোগিতার বিষয় লিখে রচনা আগামী ১৭ মার্চের মধ্যে রেজিস্ট্রার ডাকযোগে অথবা কুরিয়ার সার্ভিসের মাধ্যমে পাঠাতে হবে।

ডাকযোগে পাঠানোর পূর্বে নাম-ঠিকানা-ছবিসহ রচনার স্ক্যান কপি বার্তা২৪.কমের অফিসিয়াল ফেসবুক পেজের ইনবক্স ও ইমেইলে ([email protected]) পাঠাতে হবে। ডাকযোগে রচনা না পাওয়া গেলে শুধু ইনবক্সেরটা গ্রহণ করা হবে না।

প্রতিটি পর্যায়ে তিনজন করে মোট নয়জন প্রতিযোগীকে নগদ অর্থ ও ক্রেস্ট উপহার দেওয়া হবে। বিজয়ীদের প্রাপ্ত আর্থিক উপহার ‘নগদ’-এর মাধ্যমে গ্রহণ করতে হবে। যে কারণে প্রত্যেক প্রতিযোগীর সচল ‘নগদ’ অ্যাকাউন্ট থাকা বাধ্যতামূলক।

যে কোনো মোবাইল ফোন থেকে *১৬৭# ডায়াল করে চার ডিজিটের পিন সেট করে মুহূর্তেই ‘নগদ’ অ্যাকাউন্ট খুলতে পারবেন। এছাড়াও ‘নগদ’ অ্যাপ ডাউনলোড করেও সহজে অ্যাকাউন্ট খুলতে পারবেন। ‘নগদ’ অ্যাকাউন্ট খুলতে ভিজিট করুন- https://nagad.com.bd/bn

রচনা পাঠানোর ঠিকানা
এডিটর ইন চিফ
বার্তা২৪.কম
রোড # ০৪, বাড়ি # ১০, গুলশান-১
ঢাকা-১২১২, বাংলাদেশ।

বার্তার অফিসিয়াল ফেসবুক পেজ: https://www.facebook.com/Barta24news/

বিস্তারিত নিয়মাবলী দেখতে এখানে ক্লিক করুন

করতোয়ায় নৌকাডুবি : নিহত বেড়ে ২৮



ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, পঞ্চগড়
করতোয়ায় নৌকাডুবি : নিহত বেড়ে ২৮

করতোয়ায় নৌকাডুবি : নিহত বেড়ে ২৮

  • Font increase
  • Font Decrease

পঞ্চগড়ের বোদা উপজেলায় নদী পাড় হতে গিয়ে নৌকা ডুবে নিহতের সংখ্যা বেড়ে ২৮ জনে দাঁড়িয়েছে।

সোমবার (২৬ সেপ্টেম্বর) সকালে নদীতে তল্লাশি শুরু হলে তিনজনের মরদেহ উদ্ধার করা হয়। এর আগে রোববার (২৫ সেপ্টেম্বর) রাত ১১টার দিকে আলোস্বল্পতার কারণে উদ্ধারকাজ স্থগিত করে ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স। সবশেষ তথ্য অনুযায়ী, এখনও ৩৭ জন নিখোঁজ রয়েছেন বলে জানা গেছে।

স্থানীয়রা জানান, রোববার বিকেলে মহালয়া উপলক্ষে পাঁচপীর, বোদা, মাড়েয়া, ব্যাঙহারি এসব এলাকার সনাতন ধর্মাবলম্বীরা নৌকায় করে বদেশ্বরী মন্দিরে যাচ্ছিলেন। এ সময় নৌকায় অতিরিক্ত যাত্রী ছিল। এ কারণে মাঝনদীতে পৌঁছানোর পর যাত্রীর চাপে নৌকা ডুবে যায়। এ সময় কিছু মানুষ সাঁতরে তীরে উঠতে পারলেও বেশির ভাগ যাত্রীই উঠতেই পারেনি। এখনও নিখোঁজ রয়েছেন তারা।

জেলা প্রশাসনের কন্ট্রোল রুমের দায়িত্বরত কর্মকর্তা ও তদন্ত কমিটির প্রধান অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট দীপঙ্কর রায় বলেন, নৌকাডুবির ঘটনায় এ পর্যন্ত ২৮ জনের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে।

পঞ্চগড় ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের স্টেশন অ‌ফিসার তুষার কা‌ন্তি রায় বলেন, আলোস্বল্পতার কারণে আমরা উদ্ধার অভিযান স্থ‌গিত করে‌ছি। তবে সোমবার ভোর ৫টা থে‌কে আবারও উদ্ধারকাজ শুরু হয়েছে। রাজশাহী থেকে আগত আরও এক‌টি ডুব‌রি ইউ‌নিটসহ মোট তিন‌টি ইউ‌নিট উদ্ধার অ‌ভিযানে যোগ দেবে।

;

রামনাথ বিশ্বাসের বসতভিটা দখলমুক্তের দাবিতে সাইকেল র‍্যালি মঙ্গলবার



নিউজ ডেস্ক, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
সংবাদ সম্মেলন

সংবাদ সম্মেলন

  • Font increase
  • Font Decrease

হবিগঞ্জের বানিয়াচংয়ে ভূ-পর্যটক রামনাথ বিশ্বাসের বসতভিটা ওয়াহেদ মিয়া নামে এক ব্যক্তি দখল করে রেখেছেন বলে অভিযোগ উঠেছে। সেই বসতিভিটা দখলমুক্ত করে সেখানে পাঠাগার ও বাইসাইকেল মিউজিয়াম গড়ে তোলার দাবি জানিয়েছে রামনাথ বিশ্বাসের বসতভিটা পুনরুদ্ধার ও সংরক্ষণ কমিটি।

রোববার (২৫ সেপ্টেম্বর) বিকেলে হবিগঞ্জ প্রেসক্লাবে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে কমিটির নেতৃবৃন্দ বলেন, কলকাতায় রয়েছে ‘রামনাথ বিশ্বাস সড়ক’, অথচ নিজভূমে তিনি হয়ে গেছেন পরবাসী। বানিয়াচংয়ে রামনাথের স্মৃতিবিজড়িত বাড়িটি দখল করে রেখেছেন আবদুল ওয়াহেদ মিয়া নামে আল-বদর পরিবারের এক সদস্য।

সংবাদ সম্মেলনে বক্তব্য রাখেন ‘ভূ-পর্যটক রামনাথ বিশ্বাসের বসতভিটা পুনরুদ্ধার ও সংরক্ষণ কমিটি’র আহ্বায়ক ভূ-পর্যটক ও লেখক আশরাফুজ্জামান উজ্জ্বল, যুগ্ম-আহ্বায়ক কবি শাহেদ কায়েস ও রামনাথ বিশ্বাস ফাউন্ডেশনের সাধারণ সম্পাদক টিপু চৌধুরী। লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন কমিটির যুগ্ম-আহ্বায়ক কথাসাহিত্যিক ও নাট্যকার রুমা মোদক ।

সংবাদ সম্মেলনে রুমা মোদক বলেন, হবিগঞ্জের মানুষের কাছে ভূ-পর্যটক রামনাথ বিশ্বাসকে নতুন করে পরিচয় করিয়ে দেওয়ার কিছু নেই। তিনি আমাদের হবিগঞ্জের তো বটেই, বাংলাদেশের, গোটা বাংলার গর্ব। প্রায় শত বছর আগে হবিগঞ্জের বানিয়াচং উপজেলার বিদ্যাভূষণ পাড়ার রামনাথ বিশ্বাস বাইসাইকেল নিয়ে বেরিয়েছিলেন ভূ-পর্যটনে। তিনি হিন্দু-মুসলিম নির্বিশেষে সকলকে ভালোবাসতেন। ১৯৪৬ সালের গ্রেট কলকাতা দাঙ্গায় নিজের জীবন বাজি রেখে বাঁচিয়েছিলেন ৩৯ জন মুসলিমের জীবন।

দখলদার ওয়াহেদ মিয়া এক সময় জামায়াত-বিএনপি করতেন উল্লেখ করে লিখিত বক্তব্যে বলা হয়, ওয়াহেদ মিয়া পরে আওয়ামী লীগে যোগ দিয়ে রীতিমত ওয়ার্ড কমিটির সভাপতির পদও বাগিয়ে নিয়েছিলেন। দলীয় পরিচয়ের জোরে রামনাথের বাড়ি দেখতে যাওয়া পর্যটক, বাইসাইকেল রাইডার ও সাংবাদিকের ওপর বিভিন্ন সময় হামলা চালিয়েছেন। সর্বশেষ গত ১১ সেপ্টেম্বর বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমের স্পেশাল অ্যাসাইনমেন্ট এডিটর রাজীব নূরসহ চার সাংবাদিক নিগৃহীত হয়েছেন দখলদার ওয়াহেদ ও তার পুত্রদের হাতে। রাজীব নূরের সঙ্গে নিগৃহীতদের মধ্যে ছিলেন সাংবাদিক মোশাহেদ মিয়া, তৌহিদ মিয়া ও আলমগীর রেজা।

সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের ওপর হামলার ঘটনারও নিন্দা জানানো হয় এবং এই হামলার ঘটনার দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি করা হয়।

আশরাফুজ্জামান উজ্জ্বল বলেন, রামনাথ বিশ্বাস সাইকেলে করে পৃথিবী ঘুরে বেড়িয়ে আসার পর বানিয়াচংয়ে এক সভায় বলেছিলেন, বাইন্ন্যাইচং আমার দুইন্ন্যাই'। অথচ বানিয়াচং এ রামনাথের বাড়িটি দখল করে রাখা হয়েছে। আসুন আমরা সবাই মিলে রামনাথের বসতভিটা দখলমুক্ত করে রামনাথকে তার বানিয়াচং ফিরিয়ে দেই, রামনাথকে তার দুনিয়া ফিরিয়ে দেই।

কবি শাহেদ কায়েস বলেন, আমরা রামনাথ বিশ্বাসের বাড়ি দখলমুক্ত করার বিষয়টি সরকারের নজরে আনার জন্য বেশ কিছু কর্মসূচি করতে যাচ্ছি। আশা করবো সরকার এই বিষয়ে কার্যকর পদক্ষেপ নেবে।

নেতৃবৃন্দ অভিযোগ করেন, আমরা সাইকেল র‍্যালি করার ঘোষণা তো আগেই করেছিলাম। সেই খবর গণমাধ্যমেও প্রকাশ হয়েছে। অথচ হবিগঞ্জে এসে জানতে পারলাম, স্থানীয় সড়ক ও জনপথ বিভাগ মঙ্গলবার বানিয়াচং যাওয়ার পথে একটি সেতুর সংস্কার কাজ করবে। এই ঘটনাটি উদ্দেশ্য প্রণোদিত কিনা? আমরা জানি না। তবে আমাদের সাইকেল র‍্যালি সুষ্ঠুভাবে করার জন্য স্থানীয় প্রশাসন সহযোগিতা করবে বলেও আশা করছি। আমরা রামনাথের বসতভিটায় দাঁড়িয়ে সেই বাড়িটি পুনরুদ্ধার করে সেখানে ভ্রমণ বিষয়ক বইয়ের বিশেষায়িত পাঠাগার এবং সাইকেল মিউজিয়াম করার দাবি জানাবো।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যের পর সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে কবি শাহেদ কায়েস বলেন, রামনাথের বসতভিটা উদ্ধারের জন্য আমাদের আন্দোলন চলমান থাকবে। আমাদের কমিটিতে কয়েকজন আইনজীবীও রয়েছেন, তারা বিষয়টির আইনি দিক নিয়ে কাজ করছেন। আমরা প্রয়োজনে উচ্চ আদালতের কাছে যাব। সবাইকে সঙ্গে নিয়ে রামনাথের বসতভিটা পুনরুদ্ধারের এই লড়াই অব্যহত রাখবো। আমাদের বিশ্বাস সরকার গুরুত্ব দিয়ে রামনাথের বসতভিটায় দ্রুত পাঠাগার এবং সাইকেল মিউজিয়াম করবে।

কর্মসূচি

নেতৃবৃন্দ জানান, সোমবার বিকেল ৪টায় বানিয়াচংয়ে ১ নম্বর ইউনিয়ন পরিষদ মিলনায়তনে সাংবাদিক ও সুধীজনের সঙ্গে অনুষ্ঠিত হবে মতবিনিময়। পরদিন মঙ্গলবার সকাল ১১টায় হবিগঞ্জ টাউন হল থেকে রামনাথের বাড়ির পথে বাইসাইকেল শোভাযাত্রা হবে। ওইদিনই সকাল ১১টায় বানিয়াচং শহীদ মিনারে সাংবাদিক দেবব্রত চক্রবর্তী বিষ্ণু প্রতীকী অনশন করবেন। বাইসাইকেল শোভাযাত্রাটি রামনাথের বাড়ি বিদ্যাভূষণ পাড়া ঘুরে এসে বানিয়াচং শহীদ মিনারে বিকেল ৪টায় সমাবেশ শেষে পরবর্তী কর্মসূচি ঘোষণা করবে।

এ আন্দোলকে সচল রাখার লক্ষ্যে মূলত লেখক, সাংবাদিক ও সংস্কৃতিকর্মীরা মিলে গঠন করেছে ‘ভূ-পর্যটক রামনাথ বিশ্বাসের বসতভিটা পুনরুদ্ধার ও সংরক্ষণ কমিটি’।

সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন হবিগঞ্জ প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক রাশেদ আহমদ খান, দৈনিক ইত্তেফাকের জেলা প্রতিনিধি মনসুর উদ্দিন আহমেদ ইকবাল, ডিবিসি নিউজ'র মো. ফজলুর রহমান, হবিগঞ্জ টিভি জার্নালিস্ট এসোসিয়েশনের সভাপতি আব্দুল হালীম, মাছরাঙ্গা টেলিভিশনের প্রতিনিধি চৌধুরী মাসুদ আলী ফরহাদ, একাত্তর টেলিভিশনের প্রতিনিধি শাকিল চৌধুরী, দ্য ডেইলি স্টারের মাসুক হৃদয় ও দৈনিক ইত্তেফাক অনলাইনের প্রতিবেদক ইফতেয়ার রিফাত।

;

কোথায় কখন লোডশেডিং



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

জ্বালানি সংকটের কারণে বিদ্যুৎ উৎপাদনের ঘাটতির জন্য দেশজুড়ে এলাকাভিত্তিক আজও লোডশেডিং শুরু হচ্ছে। সরকারের নির্দেশনা অনুযায়ী সোমবারের (২৬ সেপ্টেম্বর) তালিকা প্রকাশ করেছে বিদ্যুৎ বিতরণ কোম্পানিগুলো।

ঢাকা বিদ্যুৎ বিতরণ কোম্পানি (ডিপিডিসি), ঢাকা ইলেকট্রিসিটি সাপ্লাই কোম্পানি (ডেসকো), নর্দান ইলেকট্রিসিটি সাপ্লাই কোম্পানি (নেসকো), ওয়েস্টজোন পাওয়ার ডিস্ট্রিবিউসন কোম্পানি (ওজোপাডিকো), বাংলাদেশ পল্লী বিদ্যুতায়ন বোর্ড (বিআরইবি) এবং বাংলাদেশ বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ড (বিপিডিবি) এর ওয়েবাসাইটের নির্দিষ্ট লিংককে গিয়ে এই তালিকা দেখতে পারবেন গ্রাহকরা।

আজকে কোন এলাকায় কখন লোডশেডিং হবে, এর সূচি দেওয়া হয়েছে। দেখে নেওয়া যাক।

https://www.desco.org.bd/bangla/loadshed_b.php

http://www.wzpdcl.org.bd/

https://nesco.portal.gov.bd/site/page/13ccd456-1e1d-4b24-828d-5811a856f107

http://reb.portal.gov.bd/site/page/c65ac273-d051-416f-9a93-5cd300079047

https://bpdb.portal.gov.bd/site/page/cafea028-95e6-4fca-8fea-e4415aef9a60

https://www.desco.org.bd/bangla/loadshed_b.php

জ্বালানি সাশ্রয়ে উচ্চ ব্যয়ের ডিজেলচালিত বিদ্যুৎকেন্দ্র বন্ধ রাখার সরকারি সিদ্ধান্তের পর সরবরাহ সংকটে দেশজুড়ে প্রতিদিন সূচি ধরে কোথাও এক ঘণ্টা আবার কোথাও ২ ঘণ্টা করে লোডশেডিং করা শুরু হয় মঙ্গলবার (১৯ জুলাই) থেকে।

এর আগে ১৮ জুলাই লোডশেডিংয়ের সিদ্ধান্ত সরকারের পক্ষ থেকে জানানো হয়। প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে বিদ্যুৎ ও জ্বালানিবিষয়ক সমন্বয় সভায় এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

;

পঞ্চগড়ে নৌকাডুবি: নিহতের সংখ্যা বেড়ে ২৫



ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, পঞ্চগড়
পঞ্চগড়ে নৌকাডুবি

পঞ্চগড়ে নৌকাডুবি

  • Font increase
  • Font Decrease

পঞ্চগড়ের বোদা উপজেলায় নদী পাড় হতে গিয়ে নৌকা ডুবে নিহতের সংখ্যা বেড়ে ২৫ জনে দাঁড়িয়েছে।

সোমবার (২৬ সেপ্টেম্বর) সকালে নদীতে তল্লাশি শুরু হলে তিনজনের মরদেহ উদ্ধার করা হয়। এর আগে রোববার (২৫ সেপ্টেম্বর) রাত ১১টার দিকে আলোস্বল্পতার কারণে উদ্ধারকাজ স্থগিত করে ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স। সবশেষ তথ্য অনুযায়ী, এখনও ৩৭ জন নিখোঁজ রয়েছেন বলে জানা গেছে।

স্থানীয়রা জানান, রোববার বিকেলে মহালয়া উপলক্ষে পাঁচপীর, বোদা, মাড়েয়া, ব্যাঙহারি এসব এলাকার সনাতন ধর্মাবলম্বীরা নৌকায় করে বদেশ্বরী মন্দিরে যাচ্ছিলেন। এ সময় নৌকায় অতিরিক্ত যাত্রী ছিল। এ কারণে মাঝনদীতে পৌঁছানোর পর যাত্রীর চাপে নৌকা ডুবে যায়। এ সময় কিছু মানুষ সাঁতরে তীরে উঠতে পারলেও বেশির ভাগ যাত্রীই উঠতেই পারেনি। এখনও নিখোঁজ রয়েছেন তারা।

জেলা প্রশাসনের কন্ট্রোল রুমের দায়িত্বরত কর্মকর্তা ও তদন্ত কমিটির প্রধান অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট দীপঙ্কর রায় বলেন, নৌকাডুবির ঘটনায় এ পর্যন্ত ২৫ জনের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে।

পঞ্চগড় ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের স্টেশন অ‌ফিসার তুষার কা‌ন্তি রায় বলেন, আলোস্বল্পতার কারণে আমরা উদ্ধার অভিযান স্থ‌গিত করে‌ছি। তবে সোমবার ভোর ৫টা থে‌কে আবারও উদ্ধারকাজ শুরু হয়েছে। রাজশাহী থেকে আগত আরও এক‌টি ডুব‌রি ইউ‌নিটসহ মোট তিন‌টি ইউ‌নিট উদ্ধার অ‌ভিযানে যোগ দেবে।

;