পেঁয়াজ চাষি মরছে আমদানিতে আর পোয়াবারো পুঁজিপতিদের



ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, মেহেরপুর
পেঁয়াজ চাষি মরেছে আমদানীতে আর পোয়া বারো পুঁজিপতিদের

পেঁয়াজ চাষি মরেছে আমদানীতে আর পোয়া বারো পুঁজিপতিদের

  • Font increase
  • Font Decrease

মেহেরপুর জেলায় কৃষকের ঘরে পেঁয়াজ নেই। পেঁয়াজ তোলার সাথে সাথেই চাষিদের ৮০ ভাগের উপরে পেঁয়াজ বিক্রি করে থাকেন। বিত্তবান চাষিদের ঘরে কিছু পেঁয়াজ থাকলেও তার পরিমাণ খুব বেশি নয়। পেঁয়াজ সংরক্ষণকারী ব্যবসায়ীদের হাতে রয়েছে পেঁয়াজ। ফলে পেঁয়াজের দর বৃদ্ধির সুবিধা পাচ্ছেন সংরক্ষণকারীরা। অপরদিকে পেঁয়াজ তেলার ভরা মৌসূমে পেঁয়াজ আমদানী করায় লোকসান গুনতে হয়েছে  চাষিদের।

জানা গেছে, ভরা মৌসূমে অথাৎ মার্চের শুরুতে পেঁয়াজ আমদানির ফলে পেঁয়াদের দর পতন হয়। ফেব্রুয়ারীর শেষ সপ্তাহ থেকে মার্চের প্রথম সপ্তাহ পেঁয়াজ তোলার ভরা মৌসূম। এসময় পাইকারীতে ১৭-১৯ টাকা কেজি দরে পেঁয়াজ বিক্রি করেছেন চাষিরা। আমদানী বন্ধ হওয়ায় এখন পেঁয়াজের দর বেড়েছে।  মেহেরপুর জেলায় পাইকারীতে ৩২-৩৩ টাকা এবং খুচরা ৪০-৪৫ টাকা কেজি বিক্রি হচ্ছে। তবে এর সুফল পাচ্ছেন না পেঁয়াজ উৎপাদনকারী চাষিরা। দরিদ্র চাষিদের কাছ থেকে পেঁয়াজ কিনে যারা সংরক্ষণ করেছেন তারাই মূলত বেশি দরের সুবিধা পাচ্ছেন।

গাংনীর গোপালনগর গ্রামের বর্গা চাষি আব্দুল জাব্বার এ মৌসূমে ৪ বিঘা জমিতে পেঁয়াজ আবাদ করেছিলেন। এবার তার বড় ধরনের লোকজন হয়েছে বলে জানান এই পেঁয়াজ চাষি।

তিনি জানান, জমি লিজ থেকে শুরু করে পেঁয়াজ ঘরে তোলা পর্যন্ত বিঘায় খরচ প্রায় ৩০ হাজার টাকা। বিঘায় এবার ফলন ছিল প্রায় ৮০ মণ। পেঁয়াজ তোলার সাথে সাথেই বিক্রি করেছেন ১৭ টাকা কেজি। ফলে প্রতি বিঘায় তার লোকসানের পরিমাণ প্রায় ২৫ হাজার টাকা। 

নওপাড়া গ্রামের পেঁয়াজ চাষি রুবেল হোসেন জানান, তিনি ৬ বিঘা জমিতে পেঁয়াজ আবাদ করেছিলেন। তার ঘরে দুই বিঘা জমির পেঁয়াজ রয়েছে। চাষের খরচ জোগানোর জন্য তিনি কিছু বিক্রি করেছেন। আর বাড়তি দরের আশায় কিছু পেঁয়াজ সংরক্ষণ করেন।

রুবেল হোসেন বলেন, পেঁয়াজ বীজ, সার ও কীটনাশক বাকিতে কেনা হয়। ফলে পেঁয়াজ তোলা শুরু হলেই বাকি পরিশোধ করা হয়ে থাকে। যার কারণে চাষিরা পেঁয়াজ সংরক্ষণে রাখতে পারে না।

পেঁয়াজ আমদানী বন্ধের পর হঠাৎ দর বৃদ্ধি পেলেও তা স্থীতিশীল। দুই সপ্তাহ আগে দর বৃদ্ধির পর ৪০ টাকার নিচে রয়েছে পাইকারী দর।

চাষিরা জানান, গেল বছর পেঁয়াজের দর বেশি থাকায় চাষিরা আবাদ বৃদ্ধি  করেছেন। প্রতি বছর কতো উৎপাদন আর চাহিদা সেই হিসেবে করে আমদানী করতে হবে। আর কখন আমদানী করতে হবে সেই বিষয়টিও মূখ্য। দেশের চাষিরা সুযোগ পেলে পেঁয়াজে স্বংসম্পূর্ণতা অর্জন করা সম্ভভ বলে মনে করেন চাষিরা।

প্রধানমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিলে ৩০৪ কোটি টাকা দিল ব্যাংক-আর্থিক প্রতিষ্ঠান



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

বন্যার্তদের সাহায্যার্থে প্রধানমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিলে ৩০৪ কোটি ৪১ লাখ টাকা অনুদান দিয়েছে ৪৩ ব্যাংক ও দুটি আর্থিক প্রতিষ্ঠান

সোমবার (২৭ জুন) সকালে প্রতিষ্ঠানগুলোর শীর্ষ পর্যায়ের কর্মকর্তারা প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে অনুদানের চেক হস্তান্তর করেন। অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গণভবন থেকে ভার্চুয়ালি যোগ দেন।

ত্রাণ তহবিলে অনুদান দেওয়া ব্যাংকের মধ্যে রয়েছে সোনালী ব্যাংক, রুপালী ব্যাংক, জনতা ব্যাংক, অগ্রণী ব্যাংক ও রাজশাহী কৃষি উন্নয়ন ব্যাংক। আর্থিক প্রতিষ্ঠানের মধ্যে রয়েছে ইডকল, বিআইএফএফএল।

বেসরকারি ব্যাংকের মধ্যে রয়েছে এক্সিম ব্যাংক, আল-আরাফাহ ইসলামী ব্যাংক, ইউনাইটেড কমার্শিয়াল ব্যাংক, ব্যাংক এশিয়া ও ইসলামী ব্যাংক বাংলাদেশ লিমিটেড।

;

চট্টগ্রামে একদিনে ৬৬ জন করোনা আক্রান্ত



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, চট্টগ্রাম
ছবি: বার্তা২৪.কম

ছবি: বার্তা২৪.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

বন্দরনগরী চট্টগ্রামে গত ২৪ ঘণ্টায় ৯৩৭টি নমুনা পরীক্ষা করে ৬৬ জনের করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়েছে। নমুনা পরীক্ষার তুলনায় শনাক্তের হার ৭ দশমিক শূন্য ৪ শতাংশ।

সোমবার (২৭ জুন) জেলা সিভিল সার্জন কার্যালয় থেকে প্রকাশিত প্রতিবেদনে এসব তথ্য জানানো হয়।

এদিন চট্টগ্রামের ১২টি ল্যাবে এসব নমুনা পরীক্ষা করা হয়।

একই সময়ে বিআইটিআই ল্যাবে ১৭ নমুনা পরীক্ষা করে ৫টি পজিটিভ পাওয়া যায়, চমেক হাসপাতাল ল্যাবে ১৩৮টি নমুনায় ১৭টি, সিভাসু ল্যাবে ৪১টি নমুনায় ২টি, ইমপেরিয়াল ল্যাবে ৩৬টি নমুনায় ৪টি, ইপিক ল্যাবে ৩৯টি নমুনায় ১টি, শেভরন ল্যাবে ২৯টি নমুনায় ৯টি, মেট্রোপলিটন হাসপাতাল ল্যাবে ১১৮টি নমুনায় ৬টি এবং এশিয়ান হাসপাতাল ল্যাবে ২২টি নমুনায় পরীক্ষা ৫টি পজিটিভ আসে। সবমিলে এদিন নগরে নতুন শনাক্ত হয় ৫৪ জন। এদিন উপজেলায় রোগী শনাক্ত হয় ১২ জন।

এনিয়ে চট্টগ্রামে করোনায় শনাক্ত হয়েছেন ১ লাখ ২৭ হাজার ১২ জন। মৃত্যুর সংখ্যা ১ হাজার ৩৬২ জন।

;

শস্যদানার মানচিত্রে কমলনগর উপজেলা



ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, লক্ষ্মীপুর
শস্যদানার মানচিত্রে কমলনগর উপজেলা

শস্যদানার মানচিত্রে কমলনগর উপজেলা

  • Font increase
  • Font Decrease

লক্ষ্মীপুরের কমলনগর উপজেলা ৯টি ইউনিয়ন নিয়ে গঠিত। ওই উপজেলার মানচিত্রে নয়টি ইউনিয়নকে সাজানো হয়েছে বিভিন্ন শস্যদানা দিয়ে। শস্যদানার ফসলি ওই মানচিত্রে পুরো উপজেলা ফুটে উঠেছে। সেখানে আয়োজিত কৃষি মেলায় শস্যদানার এমন মানচিত্র সবাইকে মুগ্ধ করেছে।

তিনদিন ব্যাপী ওই কৃষিমেলার দ্বিতীয় দিন সোমবার (২৭ জুন) সকালে উপজেলা পরিষদ প্রাঙ্গণে গিয়ে ব্যতিক্রমী এমন মানচিত্র দেখা যায়।

মানচিত্রে ধান, গম, ডাল, পেঁয়াজ, রসুন, সয়াবিন, মরিচ ও বাদামসহ বিভিন্ন শস্যদানা ব্যবহার করা হয়েছে। এতে উপজেলার চর কালকিনি, সাহেবেরহাট, চর ফলকন, হাজিরহাট চর লরেন্স, চর মার্টিন, পাটারিরহাট, তোরাবগঞ্জ ও চর কাদিরা ইউনিয়নে কৃষি চিত্র ফুটে উঠে।

কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতরের আয়োজিত লক্ষ্মীপুরের কমলনগরে তিন দিনব্যাপী কৃষি মেলা শুরু হয়।

জানা যায়, রোববার সকালে উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতরের আয়োজনে মেলার উদ্বোধন শেষে র‌্যালি বের হয়। পরে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ কামরুজ্জামানের সভাপতিত্বে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

এসময় বক্তব্য দেন উপজেলা চেয়ারম্যান মেজবাহ উদ্দিন আহমেদ বাপ্পী, লক্ষ্মীপুর জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতরের উপ-পরিচালক ড. মো. জাকির হোসেন, উপজেলা প্রাণি সম্পদ কর্মকর্তা ডা. মো. আকতারুজ্জামান, উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মো. আতিক আহমেদ, ভাইস চেয়ারম্যান ওমর ফারুক সাগর ও সমাজ সেবা কর্মকর্তা মো. মাসুদ তালকদার প্রমুখ।

নোয়াখালী, লক্ষ্মীপুর, চাঁদপুর ও চট্টগ্রাম কৃষি উন্নয়ন প্রকল্প (১ম সংশোধিত) এর আওতায় এ মেলায় ১৫টি স্টল অংশ নিয়েছে।

;

পদ্মা সেতুতে ২৪ ঘণ্টায় টোল আদায় ২ কোটি ৯ লাখ টাকা



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

বাংলাদেশের গর্ব ও অহংকার স্বপ্নের পদ্মা সেতুতে যান চলাচলের প্রথম দিনে টোল আদায় করা হয়েছে ২ কোটি ৯ লাখ ৪০ হাজার ৩০০ টাকা। এসময় গাড়ি চলাচল করেছে ৫১ হাজার ৩১৬টি।

সোমবার (২৭ জুন) সকালে বাংলাদেশ সেতু কর্তৃপক্ষের নির্বাহী প্রকৌশলী মো. আবুল হোসেন জানান, রোববার (২৬ জুন) সকাল ছয়টা থেকে আজ সোমবার (২৭ জুন) সকাল ছয়টা পর্যন্ত সেতুর দুই প্রান্তের (মাওয়া ও জাজিরা) এই হিসাব।

তিনি আরও জানান, মাওয়া প্রান্ত দিয়ে সেতু পার হয়েছে ২৬ হাজার ৫৮৯টি গাড়ি এবং টোল আদায় হয়েছে এক কোটি ৮ লাখ ৯৫ হাজার ৯০০ টাকা। একই সময়ে জাজিরা প্রান্ত দিয়ে সেতু পার হয়েছে ২৪ হাজার ৭২৭টি গাড়ি এবং টোল আদায় হয়েছে এক কোটি ৪৪ হাজার ৪০০ টাকা।

সেতুর টোলপ্লাজায় দায়িত্বরত এক কর্মকর্তা বলেন, সকাল থেকেই আমরা প্রস্তুত ছিলাম। ৬টার আগেই আমরা যানচলাচলের জন্য কাজ শুরু করি।

রোববার ভোর ৫টা ৪০ মিনিটে সর্বসাধারণের জন্য খুলে দেওয়া হয় পদ্মা সেতু। দক্ষিণাঞ্চলের মানুষের দীর্ঘ প্রতীক্ষিত পদ্মা সেতু পার হয়ে ঢাকায় আসতে দীর্ঘদিন যে অসহনীয় দুর্ভোগ ও কষ্ট ছিল তা দূর হয়েছে।

এর আগে, গত শনিবার দুপুর ১২টার দিকে পদ্মা সেতু উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এরপর তিনি টোল দিয়ে সেতু পার হন।

;