২৬৪৮ গাড়িকে মামলা, জরিমানা আদায় সাড়ে ৭১ লাখ টাকা



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

২০২২ সালে ফিটনেসবিহীন যানবাহনের বিরুদ্ধে ভ্রাম্যমাণ আদালত অভিযান চালিয়ে ২ হাজার ৬৪৮টি মামলা দিয়েছে। সেসব মামলায় ৭১ লাখ ৫২ হাজার ৫৯০ টাকা জরিমানা আদায় করেছে বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন কর্তৃপক্ষ (বিআরটিএ)।

রোববার (২৯ জানুয়ারি) সংসদ সদস্য এ কে এম রহমতুল্লাহর লিখিত প্রশ্নের জবাবে জাতীয় সংসদে এসব তথ্য জানান সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

তিনি বলেন, মেয়াদোত্তীর্ণ যানবাহন এবং ফিটনেসবিহীন বা বিধিবহির্ভূত যানবাহনের বিরুদ্ধে নিয়মিত মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করে বিআরটিএ। ২০২২ সালের জানুয়ারি থেকে ডিসেম্বর পর্যন্ত মেয়াদোত্তীর্ণ এবং ফিটনেসবিহীন যানবাহনের বিরুদ্ধে বিআরটিএ মোবাইল কোর্ট পরিচালনার মাধ্যমে ২ হাজার ৬৪৮টি মামলায় ৭১ লাখ ৫২ হাজার ৫৯০ টাকা জরিমানা আদায় করেছে। এ ছাড়া নয়টি গাড়ি ডাম্পিং স্টেশনে পাঠানো হয়েছে।

এমপি বেনজীর আহমদের অপর এক প্রশ্নের জবাবে ওবায়দুল কাদের বলেন, মেয়াদোত্তীর্ণ যানবাহন ও ফিটনেসবিহীন যানবাহনের বিরুদ্ধে বিআরটিএর নিয়মিত মোবাইল কোর্ট পরিচালনা অব্যাহত আছে। এ ছাড়া, জেলা ও হাইওয়েতেও জেলা ম্যাজিস্ট্রেট এবং হাইওয়ে পুলিশ এ বিষয়ে যথাযথ দায়িত্ব পালন করছে। বর্তমানে দেশে বিআরটিসি বাসের সংখ্যা ১ হাজার ৩৫০।

সরকারি দলের সদস্য মীর মোস্তাক আহমেদ রবি’র টেবিলে উপস্থাপিত এক প্রশ্নের জবাবে সড়ক পরিবহন মন্ত্রী বলেন, সারাদেশে সড়ক পথে রেল ক্রসিংগুলিতে দুর্ঘটনা প্রতিরোধে নিরাপদ ও নিরবচ্ছিন্ন যানবাহন চলাচলের জন্য বিভিন্ন প্রকল্পের আওতায় রেলওয়ে ওভারপাস নির্মাণ করা হয়ে থাকে। ইতিমধ্যে দেশব্যাপী সড়ক পথে রেল ক্রসিংগুলিতে দুর্ঘটনা প্রতিরোধে বিভিন্ন প্রকল্পের মাধ্যমে ২২টি রেলওয়ে ওভারপাস নির্মাণ করা হয়েছে।

   

গাজীপুরে বিষাক্ত মদপানে ২ মাংস বিক্রেতার মৃত্যু



ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, গাজীপুর
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

গাজীপুরের কালিয়াকৈরে বিষাক্ত মদপানে দুই মাংস বিক্রেতার মৃত্যু হয়েছে।

শুক্রবার (১ মার্চ) দিবাগত রাত ১২টার দিকে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তাদের মৃত্যু হয়।

এর আগে, ২৯ ফেব্রুয়ারি রাতে ওই দুই মাংস বিক্রেতা চুলাই মদ পান করেন। ঘটনার একদিন পর তারা হঠাৎ অসুস্থ হয়ে পড়লে তাদের স্থানীয় একটি হাসপাতালে ভর্তি করেন। সেখানে অবস্থার অবনতি হলে চিকিৎসক তাদের পার্শ্ববর্তী টাঙ্গাইলের মির্জাপুর কুমুদীনি মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করেন।

নিহতরা হলেন, জয়পুরহাট জেলার পাঁচবিবি উপজেলার বালিঘাটা গ্রামের আজিবর মিয়ার ছেলে হেলাল উদ্দিন (৪৫) ও দিনাজপুর জেলার বিরামপুর উপজেলার শিমুলতলী গ্রামের তোফাজ্জল হোসেনের ছেলে কাদেরুল (২৮)। তারা বর্তমানে কালিয়াকৈর পৌরসভার হরিণহাটি, সরকারবাড়ি এলাকায় দুলাল উদ্দিন সরকারের আবাসিক কলোনিতে ভাড়া থেকে স্থানীয় বাজারে মাংস বিক্রি করতেন।

কালিয়াকৈর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা এ এফ এম নাসিম বলেন, চিকিৎসাধীন অবস্থায় তাদের মৃত্যু হয়েছে। লাশ ময়নাতদন্তের পর মৃত্যুর সঠিক কারণ নিশ্চিত হওয়া যাবে।

;

প্রধানমন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ারদের দেশ গড়ার কাজে লাগাতে বলেছেন: নওফেল 



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম
ছবি: বার্তা ২৪

ছবি: বার্তা ২৪

  • Font increase
  • Font Decrease

শিক্ষামন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী বলেছেন, যারা ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ারিং পাশ করেছেন তাদেরকে দেশ গড়ার কাজে লাগাতে বলেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। শিক্ষার কাজে তাদেরকে নিয়োজিত হতে বলেছেন। রাষ্ট্রের প্রয়োজনে তাদের লব্ধ জ্ঞান এবং মেধা ব্যবহার করার জন্য বলেছেন তিনি।

শনিবার (২ মার্চ) রাজধানীর ইনস্টিটিউট অব ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার্স, বাংলাদেশ (আইডিইবি ) এর ২ দিনব্যাপী প্রতিনিধি সম্মেলনের উদ্বোধন অনুষ্ঠান তিনি এসব কথা বলেন।

মহিবুল হাসান বলেন, বেসরকারি বিদ্যালয় পর্যায়ে বর্তমানে নতুন কারিকুলামের সকলের জন্য গণিতের যে প্রচলন হয়েছে সেখানে আমাদের অনেক শিক্ষকের প্রয়োজন। শিক্ষকের সেই যোগ্যতার জায়গায় আমাদের যে এত ডিপ্লোমা পর্যায়ে পাশ করেছেন, আমি মনে করি বিদ্যালয় পর্যায়ে গণিত এবং বিজ্ঞান শেখানোর জন্য তারা সবাই যোগ্য। আমরা মনে করছি প্রায় ৬০ হাজারের মতো প্যাটার্ন ভুক্ত শিক্ষকের অভাব আছে। পাস করা ইঞ্জিনিয়ারদের আমরা যদি সেখানে নিয়োজিত করতে পারি তাহলে কিন্তু আমাদের চ্যালেঞ্জ মোকাবিলার জন্য বিশেষ এক সহায়ক হবে। সেটা আমাদের বিবেচনায় আছে।

আরেকটি বিষয়, আমাদের অধ্যক্ষ হিসেবে পদোন্নতির ক্ষেত্রে যে চ্যালেঞ্জগুলো আছে এবং ইনক্রিমেন্টের ক্ষেত্রে যে চ্যালেঞ্জগুলো আছে সেগুলো অবশ্যই আমাদের নিরসন করতে হবে। তবে আপনারা জানেন বর্তমানে বৈশিক অর্থনৈতিক কারণে আমাদের অনেক চ্যালেঞ্জ আছে। সেগুলো বিবেচনা করেই আমাদের এগোতে হবে। 

তিনি বলেন, ভালো খারাপ সব জায়গাতেই আছে। তাই কোন বিশেষ খাত সমালোচনার মুখে পরুক আমরা সেটা মনে করি না গ্রহণযোগ্য। তাই বেসরকারি পলিটেকনিক্যল হলেই যে খারাপ হবে এটা আমি মনে করি না। কারণ অনেক পলিটেকনিক্যাল কিন্তু দেখা যাচ্ছে সরকারি পলিটেকনিক্যাল যেগুলো ভালো করছে না তাদের থেকে ভালো করছে। তাই আমরা এক কাতারে সবাইকে ফেলবো না। এখন আমরা কিভাবে মান নিয়ন্ত্রণের ক্ষেত্রে কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের পর্যায়ে থেকে যথাযথভাবে করতে পারি সেটা আমাদের দায়িত্ব। আমাদের ব্যর্থতাকে আমরা সেক্টরের ব্যর্থতা বলতে চাই না।

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, আমাদের অর্থনৈতিক বিশাল অংশ কিন্তু এখন বেসরকারি খাত। তাদের চাহিদাটা কি এটা কিন্তু আমাদের ইনস্টিটিউশনকে অবশ্যই গণনার মধ্যে আনতে হবে। সারা বিশ্ব কিন্তু এখন লেবার মার্কেট। সারা বিশ্বই কর্ম জগৎ। কেন তোমরা ইঞ্জিনিয়াররা ভাষা শিখে দক্ষতা অর্জন করে সারা বিশ্বে ছরিয়ে পড়তে পারবে না। শুধু সরকারের দিকে তাকিয়ে থাকবো পদ সৃজন হবে, প্রযুক্তিভিত্তিক পদ সৃজন হবে এটা তো কোন সঠিক সমাধান নয়। টেকসই সমাধান নয়। আমার শিক্ষার্থীরা তাহলে এতদিন ধরে কি করবে? ভাষার উপর প্রশিক্ষণ দিন। আমি যাই কিছু জানি না কেন প্রকাশ করতে না পারলে আমার চাকরি সম্ভব নয়। আমি মনে করি যে বিজ্ঞান, গণিত এবং কম্পিউটার প্রযুক্তির ক্ষেত্রে মাধ্যমিক এবং উচ্চ মাধ্যমিক পর্যায়ে শিক্ষকের যে স্বল্পতা সেটা আমার মনে হয় ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার পাস করাদের দ্বারা এটা নিরসন করা সম্ভব। এই লক্ষ্যে আমরা একটা বিশেষ ব্যবস্থা নিব। এটা নিয়ে আমরা কাজ শুরু করছি।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয়ের স্থায়ী কমিটির সভাপতি রেজওয়ান আহাম্মদ তৌফিক। সভাপতিত্ব করেন আইডিইবির কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সভাপতি এ কে এম এ হামিদ।

;

ওপারে বিস্ফোরণের বিকট শব্দ আর কালো ধোঁয়ায় এপারে আতঙ্ক



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, কক্সবাজার
ছবি: বার্তা২৪.কম

ছবি: বার্তা২৪.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

কক্সবাজারের টেকনাফ সীমান্তে নাফ নদীর ওপার থেকে মিয়ানমারের অভ্যন্তরে আবারও তীব্র বিস্ফোরণ ও গোলাগুলির শব্দ ভেসে আসছে। সেই সঙ্গে স্পষ্ট কালো ধোঁয়া দেখছেন সীমান্তের বাসিন্দারা।

শনিবার (২ মার্চ) সকাল ৬টা থেকে উপজেলার হোয়াইক্যংয়ের ও হ্নীলা ইউনিয়নের পার্শ্ববর্তী মিয়ানমার এলাকায় থেমে থেমে বিস্ফোরণের শব্দ শোনার কথা জানিয়েছেন সীমান্ত এলাকা বাসিন্দারা। এসময় মিয়ানমারের অভ্যন্তরে আগুনের কালো ধোঁয়াও দেখেছেন তারা।

নিজেদের অস্তিত্ব রক্ষায় মিয়ানমার সরকারী বাহিনীর সঙ্গে আরাকান আর্মিদের সঙ্গে চলছে সংঘর্ষ। হোয়াইক্যং ও হ্নীলা সীমান্তের পূূর্বে মিয়ানমার কুমিরহালি, নাইচদং, কোয়াংচিগং, শিলখালী, নাফপুরা এই গ্রামগুলোতে চলছে সংঘর্ষ। টেকনাফ উপজেলার হোয়াইক্যং থেকে শাহপরীর দ্বীপ পর্যন্ত ৫৪ কিলোমিটার নাফনদীতে বিজিবি ও কোস্টগার্ডের সদস্যরা টহল বৃদ্ধি করেছে।

হ্নীলা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান রাশেদ মোহাম্মদ আলী বলেন, আজ সকাল থেকে ব্যাপক গোলাগুলির শব্দ শোনা যায়। একই সাথে আগুনের কালো ধোঁয়াও দেখা যায়। মিয়ানমারে কয়েকটি এলাকায় হয়তো আগুন জ্বলছে। কালো ধোঁয়া মানে অশনিসংকেত। ২০১৭ সালেও কালো ধোঁয়া দেখা গিয়েছিল। এই সময় রোহিঙ্গাদের ঢল আসছিল। তারপরও আমরা রোহিঙ্গা অনুপ্রবেশ ঠেকাতে সজাগ আছি।

হ্নীলা এলাকার বাসিন্দা তারেক মাহমুদ রনি বলেন, ২০১৭ সালের পর আবারও দাউদাউ আগুনে পুড়ছে মিয়ানমারের আরকান রাজ্য। কয়েকদিন ধরে ব্যাপক গোলাগুলির শব্দ শোনা যাচ্ছে। সীমান্তের কাছাকাছি বাসিন্দারা অনেক আতঙ্কে আছেন।

হোয়াইক্ষং এলাকার বাসিন্দা রফিকুল ইসলাম বলেন, ভোর থেকে উনছিপ্রাং সীমান্তে ব্যাপক গোলাগুলি হচ্ছে। কালকেও বিমান থেকে হামলা হয়েছে। সীমান্তের বাসিন্দাদের নতুন করে আতঙ্ক দেখা দিয়েছে।

হোয়াইক্যং কান্জর পাড়া দেলোয়ার হোসেন বলেন, হোয়াইক্যং উনচিপ্রাং পুলিশ ফাঁড়ির পূর্বে সীমান্তে মিয়ানমান ওপার থেকে শুক্রবার দিবাগত রাত ১২টা ২০ মিনিটের পর থেকে ভয়ঙ্কর শব্দে কেঁপে উঠছে সীমান্ত এলাকা। সেটি থেমে থেমে ভোর ৫টা পর্যন্ত চলে।

এ বিষয়ে কোস্ট গার্ড চট্রগ্রাম পূর্বজোনের মিডিয়া কর্মকর্তা লেফটেন্যান্ট তাহসিন রহমান বলেন, মিয়ানমারে চলমান যুদ্ধের কারণে সীমান্তের নাফনদে আমাদের টহল চলমান রয়েছে। নতুন করে বাংলাদেশে কোন অনুপ্রবেশকারীকে ঢুকতে দেওয়া হবে না।

;

‘অভিশ্রুতি-বৃষ্টি’ জটিলতায় আটকে গেল লাশ হস্তান্তর



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

রাজধানীর বেইলি রোডে গ্রিন কোজি কটেজ নামের বহুতল ভবনে অগ্নিকাণ্ডে নিহত নারী সাংবাদিক গোপনে ধর্মান্তরিত হন। পারিবারিকভাবে ইসলাম ধর্মের অনুসারী হলেও ঢাকায় এসে সনাতন ধর্মাবলম্বী হয়ে যান। বাবা মায়ের বড় মেয়ে বৃষ্টি খাতুন হয়ে যান অভিশ্রুতি শাস্ত্রী। আর এতেই মৃত্যুর পর নাম ও ধর্মীয় পরিচয়ের জটিলতায় আটকে আছে মরদেহ হস্তান্তর।

এমন পরিস্থিতিতে লাশ হস্তান্তরের সিদ্ধান্ত জানতে আদালতের দ্বারস্থ হয়েছে পুলিশ।

জানা গেছে, কুষ্টিয়ার খোকসা উপজেলার শাবলুল আলম সবুজের তিন মেয়ের মধ্যে সবার বড় ছিলেন বৃষ্টি খাতুন। তিনি ইডেন মহিলা কলেজের দর্শন বিভাগের শিক্ষার্থী ছিলেন। একটা সময়ে ইডেন ছাত্রলীগের নেতৃত্ব দিয়েছেন। পরবর্তীতে অনলাইন পত্রিকা দ্য রিপোর্টের মাল্টিমিডিয়া রিপোর্টার হিসেবে কাজ করতেন। ১ মার্চ অপর একটি প্রতিষ্ঠানে যোগ দেওয়ার কথা ছিলো।

শুক্রবার দুপুরে আগুনে পুড়ে মেয়ের নিহতের খবর পেয়ে লাশ নিতে ঢাকায় আসেন নারী সাংবাদিক বৃষ্টি ওরফে অভিশ্রুতির বাবা সবুজ শেখ। কিন্তু হাসপাতালে সহকর্মীদের সনাক্ত করা নাম ও বাবা সবুজ শেখের দাবি করা নামের মিল না থাকায় শুরু হয় জটিলতা।

বার্ন ইন্সটিটিউট সূত্রে জানা গেছে, রমনা কালি মন্দিরের পুরোহিত লাশের দাবি করেন। তিনি জানান, ৮ মাস ধরে রমনা কালি মন্দিরে হিন্দু ধর্মের অনুসারী হিসেবে যাতায়াত ও প্রার্থনা করতেন অভিশ্রুতি। এমন কি মন্দিরে নিজেকে সনাতন ধর্মের পরিচয় দিয়ে অভিশ্রুতি জানিয়েছেন তার পরিবার ভারতে বানারাস থাকেন।

ফলে নিজের মেয়ের নাম বৃষ্টি জানিয়ে লাশ নিতে চাইলে আটকে দেয় মন্দির কর্তৃপক্ষ। যদিও বাবা সবুজ দাবি করেন তার মেয়ের নাম বৃষ্টি। যার প্রমাণ তার শিক্ষাসনদ ও জাতীয় পরিচয় পত্রে রয়েছে।

লাশ হস্তান্তর না হলেও ইতোমধ্যে শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জারি ইন্সটিটিউটের মর্গ থেকে ডেড সার্টিফিকেট তৈরি করা হয়েছে। যেখানে নিহত সাংবাদিকের নাম বৃষ্টি খাতুন উল্লেখ করা হয়েছে। বাবার নাম লেখা হয়েছে সবুজ শেখ। ঠিকানা কুষ্টিয়ার খোকসা উপজেলা।

ডেড সার্টিফিকেট তৈরি হলেও লাশ হস্তান্তর না হওয়ার বিষয় জানতে চাইলে রমনা থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) হাবিবুর রহমান বার্তা২৪.কমকে বলেন, আমাদের কিছুই আর করার নেই। আমরা আদালতে প্রতিবেদন জমা দেওয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছি। এখন আদালত সিদ্ধান্ত দিবেন লাশ কার কাছে যাবে।

সবুজ শেখ ছাড়া আর কেউ লাশের দাবি করেছে কি না জানতে চাইলে তিনি বলেন, বাবা পরিচয়ে কুষ্টিয়ার সবুজ শেখ লাশ নিতে চেয়েছেন। আর রমনা কালি মন্দির কর্তৃপক্ষও লাশের দাবি করেছে। তাই এই সিদ্ধান্ত এখন আদালতের মাধ্যমে নিতে হবে। কেউ যদি লাশ নিতে চায় তাহলে আদালতে আবেদন করতে হবে।

প্রসঙ্গত, বৃহস্পতিবার (২৯ ফেব্রুয়ারি) রাতে বেইলি রোডের গ্রিন কোজি কটেজ নামের ভবনটিতে লাগা আগুনে এখন পর্যন্ত ৪৬ জনের মৃত্যুর খবর মিলেছে। এ পর্যন্ত ৪৩ জনের মরদেহ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। দুটি লাশের দাবি করেছেন চার জন। তাই তাদের ডিএনএ টেস্ট করা হবে। আর নারী সাংবাদিকের লাশ নামের জটিলতায় আটকে আছে।

;