পরিবেশ ও কৃষি জমির ক্ষতি করে এমন উন্নয়ন প্রকল্প বন্ধের আহবান



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

জলবায়ু ন্যায্যতা সম্মেলনে পরিবেশবিদরা বলেন, পরিবেশ ও কৃষি জমির ক্ষতি করে এমন উন্নয়ন প্রকল্প গ্রহণ বন্ধ করতে হবে। উন্নয়ন পরিকল্পনায় জলবায়ু পরিবর্তনের কারণে ঝুঁকিতে থাকা জনগণের স্বার্থকে প্রাধান্য দিতে হবে এবং তাদের অংশগ্রহণ নিশ্চিত করতে হবে। পরিবেশের জন্য ক্ষতিকর জীবাশ্ম জ্বালানির ব্যবহার বন্ধ করে নবায়ণযোগ্য জ্বালানীর ব্যবহার দ্রুত বৃদ্ধি করতে হবে।

শনিবার (১৮ নভেম্বর) বিকেলে স্ট্যামফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে সমাবেশ মঞ্চে এক সংবাদ সম্মেলনে এ সকল প্রস্তাবনা ও দাবি তুলে ধরা হয়। সম্মেলনে মোট ৩৩টি প্রস্তাবনা পেশ করেন সংশ্লিষ্টরা।

সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটির আহ্বায়ক ও তত্ত্বাবধায়ক সরকারের সাবেক উপদেষ্টা অ্যাডভোকেট সুলতানা কামালের সভাপতিত্বে সংবাদ সম্মেলনে ঘোষণাপত্র পাঠ করেন ওয়াটারকিপার্স-বাংলাদেশের সমন্বয়ক শরীফ জামিল।

সুন্দরবন ও উপকূল সুরক্ষা আন্দোলনের সমন্বয়ক সাংবাদিক নিখিল চন্দ্র ভদ্রের সঞ্চালনায় সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন এশিয়ান পিপলস্ মুভমেন্ট অন ডেট অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট (এপিএমডিডি)’র সমন্বয়ক লিডি ন্যাকপিল, গ্লোবাল গ্যাস অ্যান্ড ওয়েল নেটওয়ার্ক’র স্টুয়ার্ট ম্যাক উইলিয়াম, জাপান থেকে আগত প্রতিনিধি মাকিকু আরিমা, ব্রতী সমাজ কল্যাণ সংস্থার প্রধান নির্বাহী শারমিন মুরশিদ, বাংলাদেশ প্রতিযোগিতা কমিশনের বেসরকারি উপদেষ্টা এম এস সিদ্দিকী, বাংলাদেশ ক্লাইমেট চেঞ্জ জার্নালিষ্ট ফোরামের সভাপতি কাওসার রহমান, ইউনাইটেড নেশনস্ ইন্ডাস্ট্রিয়াল ডেভেলপমেন্ট অর্গানাইজেশনের কর্মকর্তা আরাফাত জুবায়ের প্রমূখ।

প্রস্তাবনায় বলা হয়, স্থানীয় বাস্তুসংস্থান ও মানুষের উপর জীবাশ্ম জ্বালানি ও উন্নয়ন প্রকল্পের নেতিবাচক প্রভাব বিবেচনায় নিয়ে ক্ষতিপূরণ দিতে হবে। কর্মসংস্থান হারানো ক্ষতিগ্রস্থ জনগোষ্ঠীকে নতুন কর্মসংস্থান নয়, পূর্বের কর্মসংস্থানে ফিরে যাওয়ার ব্যবস্থা করতে হবে। ধনী দেশগুলো থেকে ক্ষতিপূরণ আদায়ে অন্যান্য দেশগুলোর সাথে দ্বিপাক্ষিক ও বহু পাক্ষিক সম্পর্ক উন্নয়ন করতে হবে। জীবাশ্ম ও অপরিচ্ছন্ন জ্বালানি থেকে ফিরে আসতে বিকল্প জ্বালানি ব্যাবহার নিশ্চিত করতে অর্থনৈতিক সহায়তা বাড়াতে হবে।

প্রস্তাবনায় আরও বলা হয়, সাফারি পার্কের নামে বনাঞ্চল ধ্বংস ও বিভিন্ন উন্নয়ন প্রকল্পের মাধ্যমে নদীর প্রাকৃতিক প্রবাহ বাধাগ্রস্থ বন্ধ করতে হবে। নদীগুলোকে ক্ষয়, বন্যা, সাইক্লোন ও অন্যান্য প্রাকৃতিক দুর্যোগ থেকে রক্ষায় বিভিন্ন সমাধানমূলক প্রকল্প গ্রহণ ও বাস্তবায়ন করতে হবে। বিভিন্ন উন্নয়ন প্রকল্পের মাধ্যমে আদিবাসী জনগোষ্ঠীর বসতি থেকে উচ্ছেদের প্রবণতা থেকে বেরিয়ে এসে পাহাড়ী ও সমতলের আদিবাসীদের বাসস্থান ও জীবণধারণের উপকরণের সহজলভ্যতা নিশ্চিত করতে হবে। যথাযথ পরিবেশগত ও সামাজিক মূল্যায়ন ছাড়াই আগ্রাসী শিল্পায়ন এবং অবকাঠামোগত উন্নয়ন গ্রহণ বন্ধ করতে হবে।

প্রস্তাবনায় শরীফ জামিল বলেন, জলবায়ু সম্মেলন সামনে রেখে আয়োজিত সমাবেশে সারাদেশ থেকে আসা ভূক্তভোগী নানা শ্রেণি-পেশার জনগণ সমস্যা ও সংকট চিত্র তুলে ধরেছেন। ওই সকল বিষয়ে দেশি-বিদেশী বিশেষজ্ঞরা গুরুত্বপূর্ণ মতামত ও পরামর্শ দিয়েছেন। যার ভিত্তিতে প্রস্তাব চূড়ান্ত করা হয়েছে। প্রস্তাবনাগুলো আগামী জলবায়ু সম্মেলনে তুলে ধরা হবে। প্রস্তাবনা বাস্তবায়নে কার্যকর উদ্যোগ গ্রহণের জন্য বাংলাদেশ সরকারসহ বিশ্ব নেতাদের প্রতি আহ্বান জানান তিনি।

সংবাদ সম্মেলনে সুলতানা কামাল বলেন, জলবায়ু ন্যায্যতার অভাবে দেশের মানুষ ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে। তাই জলবায়ু ন্যায্যতার দাবি ও ক্ষতিপূরণে দাবি বিষয়টি কোনভাবেই অনুদানের সাথে সম্পর্কিত কোনো ঐচ্ছিক বিষয় নয়। বরং এটি একটি ন্যায্য অধিকার।

এপিএমডিডি’র লিডি ন্যাকপিল বলেন, জীবাশ্ব জ্বালানি থেকে বের হয়ে আসা বিষয়টির সাথে রাজনৈতিক সদিচ্ছা গুরুত্বপূর্ণ। জীবাশ্ব জ্বালানি সস্তা হলেও নবায়ণযোগ্য জ্বালানিতে নিয়মিত জ্বালানি কিনতে হয় না বলে এটাতে তুলনামূলক খরচ কম ও নিরাপদ।

গ্লোবাল গ্যাস অ্যান্ড ওয়েল নেটওয়ার্ক’র স্টুয়ার্ট ম্যাক উইলিয়াম বলেন, জলবায়ু সংকট মূলত, জীবাশ্ম জ্বালানি সংকট। যা মোট বৈশ্বিক কার্বন নিঃসরণের ৯১ ভাগ নিঃসরণের জন্য দায়ী। এছাড়াও জীবাশ্ম জ্বালানি থেকে বের হয়ে আসলে শুধুমাত্র যে জলবায়ু পরিবর্তন মোকাবেলায় কাজে আসবে তা নয়। জনস্বাস্থ্য, কর্মসংস্থান ও সহজলভ্য জ্বালানির ক্ষেত্রেও তা ইতিবাচক ভূমিকা রাখবে।

   

লক্ষ্মীপুরে প্লাটিনাম জয়ন্তীতে প্রাক্তন শিক্ষার্থীদের মিলনমেলা



ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট,বার্তা২৪.কম, লক্ষ্মীপুর
ছবি: বার্তা২৪.কম

ছবি: বার্তা২৪.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

বিদ্যালয় প্রতিষ্ঠার ৭৫তম বার্ষিকী উপলক্ষে প্লাটিনাম জয়ন্তী উদযাপন করেছে লক্ষ্মীপুরের ভবানীগঞ্জ বহুমুখী উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রাক্তন শিক্ষার্থীরা।

বর্ণাঢ্য আয়োজনে বিদ্যালয় প্রাঙ্গণে শনিবার (১৩ এপ্রিল) সকাল থেকে দিনব্যাপী অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে। শুরুতে জাতীয় সংগীত, পতাকা উত্তোলন ও বেলুন উড়িয়ে বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির উদ্যোগে আয়োজিত অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করা হয়।

পরে আলোচনা সভা, স্মৃতিচারণ, সংবর্ধনা অনুষ্ঠান, মধাহ্নভোজ ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানসহ সহ নানা আয়োজন ছিল বিদ্যালয় মাঠে। প্রবীণ ও নবীন শিক্ষার্থীরা বিদ্যালয় মাঠে এসে আবেগে আপ্লুত হয়ে পড়েন।

অনুষ্ঠানের ফাঁকে কেউ কেউ দলবদ্ধ হয়ে ছবি তুলেছেন, কেউ আবার আড্ডায় গল্পে মেতেছেন। কারো বয়স আশির ঊর্ধ্বে। আবার কারো বয়স ষাট-সত্তরের মধ্যে। বিদ্যালয়ের পুনর্মিলনীতে সবাই একসঙ্গে হয়েছেন বিদ্যালয় মাঠে। একে অপরের সঙ্গে পুরনো দিনের স্মৃতিচারণ করেন।


বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতি নাছির উদ্দিন রাজুর সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন স্বাধীনতা যুদ্ধের কিংবদন্তী নেতা ও সাবেক এমএলএ বীর মুক্তিযোদ্ধা খালেদ মোহাম্মদ আলী। উদ্বোধক ছিলেন বিদ্যালয়ের সাবেক ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক কামাল উদ্দিন।

বক্তব্য রাখেন- লক্ষ্মীপুর সরকারি কলেজের সাবেক অধ্যক্ষ অধ্যাপক মাইন উদ্দিন পাঠান, সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আরিফুর রহমানসহ বিদ্যালয়ের শিক্ষক ও প্রাক্তন শিক্ষার্থীরা।

আয়োজকরা জানিয়েছেন, বিদ্যালয়ের প্রাক্তন শিক্ষার্থীদের মধ্যে বীর মুক্তিযোদ্ধা, অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষক ও কৃতি শিক্ষার্থীদেরকে সম্মাননা প্রদান করা হবে।

১৯৪৭ সালে ভবানীগঞ্জ বহুমুখী উচ্চ বিদ্যালয় প্রতিষ্ঠিত হয়। প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকে ২০২৪ সাল পর্যন্ত প্রায় ১৫০০ শিক্ষার্থী বিদ্যালয়ের প্লাটিনাম জয়ন্তী ও পুনর্মিলনী অনুষ্ঠানে অংশ নিয়েছেন বলে আয়োজকরা জানায়।

;

কেন ইসরায়েল থেকে ঢাকায় ফ্লাইট অবতরণ? ব্যাখা দিল বেবিচক



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

সম্প্রতি ইসরায়েল থেকে দুটি ফ্লাইট সরাসরি ঢাকায় অবতরণ করার বিষয়ে ব্যাখ্যা দিয়েছে বাংলাদেশের বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষ (বেবিচক)।

শনিবার বেবিচকের উপ-পরিচালক (জনসংযোগ) মোহাম্মদ সোহেল কামরুজ্জামানের স্বাক্ষর করা এক বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, ‘ইসরাইল থেকে বিমান এলো ঢাকায়’ শিরোনামে বিভিন্ন পত্রপত্রিকার অনলাইন সংস্করণে ও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রকাশিত সংবাদের প্রতি বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষের (বেবিচক) দৃষ্টি আকৃষ্ট হয়েছে। বাংলাদেশের তৈরি পোশাক মধ্যপ্রাচ্য ও ইউরোপে নিয়ে যাওয়ার উদ্দেশ্যে গত ৭ এপ্রিল একটি বিমান তেল আবিব থেকে উড্ডয়ন করে সন্ধ্যা ৭টা ২২ মিনিটে ঢাকায় অবতরণ করে ও কার্গো নিয়ে রাত ১১টা ৫৫ ঘটিকায় ঢাকা থেকে উড্ডয়ন করে এবং অপরটি গত ১১ এপ্রিল তারিখ রাতে ঢাকায় অবতরণ ও মধ্যরাত সাড়ে ১২ টায় কার্গো নিয়ে ঢাকা থেকে উড্ডয়ন করে। দুটি বিমানই মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের নিবন্ধিত এবং ওই দেশের বিমান সংস্থা ন্যাশনাল এয়ারলাইন্সের।’

বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়, ‌‘বাংলাদেশ ও মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যে দ্বিপাক্ষিক বিমান চলাচল চুক্তি রয়েছে। বিমান চলাচল চুক্তি অনুযায়ী কার্গো ফ্লাইট দুটি ঢাকা এসেছিল। ঢাকা থেকে তৈরি পোশাক নিয়ে ফ্লাইট দুটি সংযুক্ত আরব আমিরাতের শারজাহ এবং ইউরোপের একটি গন্তব্যে গিয়েছে। বাংলাদেশ ও ইসরাইলের মধ্যে কোনো বিমান চলাচল চুক্তি নেই এবং ইসরাইলের কোনো বিমান বাংলাদেশে অবতরণের কোনো ঘটনা ঘটেনি।’

বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়েছে, ‘ইসরাইল থেকে বিমান এলো ঢাকায়’ শিরোনামে বিভিন্ন অনলাইন পত্রিকা ও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বিষয়টি ভিন্নভাবে প্রকাশের ফলে জনমনে বিভ্রান্তি সৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে। তাছাড়া, এ ধরনের বিভ্রান্তিকর সংবাদ পরিবেশনা অনাকাঙ্ক্ষিত ও উদ্দেশ্য প্রণোদিত হিসাবে বিবেচ্য। এরূপ সংবাদ পরিবেশন হতে বিরত থাকার জন্য সংশ্লিষ্ট সকলকে অনুরোধ করা হলো। 

;

পিরোজপুরে আন্ত:জেলা চোর চক্রের মাস্টারমাইন্ড গ্রেফতার



ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, পিরোজপুর
পিরোজপুরে আন্ত:জেলা চোর চক্রের মাস্টারমাইন্ড গ্রেফতার

পিরোজপুরে আন্ত:জেলা চোর চক্রের মাস্টারমাইন্ড গ্রেফতার

  • Font increase
  • Font Decrease

পিরোজপুরে আন্ত:জেলা মোটরসাইকেল চোরচক্রের মাস্টারমাইন্ড সেলিম খানকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। এ সময় তার কাছ থেকে চোরাই একটি মোটরসাইকেল উদ্ধার করা হয়েছে।

শনিবার (১৩ এপ্রিল) দুপুরে পিরোজপুরে পুলিশ সুপারের কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন ও অর্থ) শেখ মোস্তাফিজুর রহমান সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান।

গ্রেফতার সেলিম খান (৪৪) নারায়নগঞ্জ জেলার রুপগঞ্জ থানার শাহাপুর এখারার গফফার খানের পুত্র।

পিরোজপুরে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন ও অর্থ) শেখ মোস্তাফিজুর রহমান জানান, গত ১৯ মার্চ পিরোজপুরে শহরের পাড়েরহাট সড়ক থেকে একটি মোটরসাইকেল চুরি হয়। পরে মোটরসাইকেলের মালিক মাইনুর ইসলাম বাদি হয়ে পিরোজপুর সদর থানায় একটি মামলা দায়ের করে। পরে পুলিশ সিসি টিভি ফুটেজ এবং তথ্য প্রযুক্তি ব্যবহার করে দুই জন চোরকে সনাক্ত করে। এ সময় ডিবি পুলিশ অভিযান চালিয়ে গত ২৮ মার্চ ঢাকা জেলার সাভার থানা এলাকা থেকে মোটরসাইকেল চুরির সাথে জড়িত বাদশা ফরাজিকে গ্রেফতার করে। বাদশা ফরাজিকে গ্রেফতারের পরে তাকে ব্যাপক জিজ্ঞাসাবাদের পরে তার দেয়া তথ্য অনুযায়ী ডিবি পুলিশ অভিযান চালিয়ে শুক্রবার (১২ এপ্রিল) নারায়নগঞ্জের রুপগঞ্জ এলাকা থেকে আন্ত:জেলা মোটরসাইকেল চোরচক্রের অন্যতম হোতা ও মাস্টারমাইন্ড সেলিম খানকে গ্রেফতার করে পুলিশ। সেলিম খানের দেয়া তথ্য অনুযায়ী টাঙ্গাইল জেরার রাবনা বাইপাসস এলাকা থেকে চুরি যাওয়া মোটরসাইকেলটিও উদ্ধার করা হয়।

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন ও অর্থ) শেখ মোস্তাফিজুর রহমান আরো জানান, আন্ত:জেলা মোটরসাইকেল চোরচক্রের অন্যতম হোতা ও মাস্টারমাইন্ড সেলিম খানের নামে ঢাকা, মানিকগঞ্জ, সিরাজগঞ্জ, নারায়নগঞ্জ, মাগুরা, বাগেরহাট সহ দেশের বিভিন্ন থানায় একাধিক মামলা রয়েছে। এছাড়া সেলিম খান এ চোরাই মোটরসাইকেল দিয়ে মাদক পাচার সহ বিভিন্ন অপরাধ কার্যক্রম করে আসছিলো।

;

চুয়াডাঙ্গায় আবারও মাঝারি তাপদাহ শুরু, জনজীবনে অস্বস্তি



ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, চুয়াডাঙ্গা
ছবি: বার্তা২৪.কম

ছবি: বার্তা২৪.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

চুয়াডাঙ্গায় আবারও শুরু হয়েছে মাঝারি ধরনের তাপদাহ।

শনিবার (১৩ এপ্রিল) বেলা ৩টায় এ জেলার সর্বোচ্চ তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয় ৩৮ দশমিক ৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস। এসময় বাতাসের আর্দ্রতা ছিল ২৯ শতাংশ। এদিকে, বাইরে তীব্র রোদ আর ভ্যাপসা গরমে জনজীবনে অস্বস্তি শুরু হয়েছে।

চুয়াডাঙ্গা প্রথম শ্রেণির আবহাওয়া পর্যবেক্ষণাগার সূত্রে জানা গেছে, ঈদের পরদিন শুক্রবার (১২ এপ্রিল) এ জেলার সর্বোচ্চ তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয় ৩৬ দশমিক ৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস। যা মৃদু তাপপ্রবাহ। একদিনের ব্যবধানে তাপমাত্রা ২ ডিগ্রি সেলসিয়াস বেড়েছে। শনিবার দুপুর ১২টায় জেলার তাপমাত্রা ছিল ৩৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস। বেলা ৩টায় এ জেলার তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয় ৩৮ দশমিক ৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস। এর আগে গত ৬ এপ্রিল চুয়াডাঙ্গায় সর্বোচ্চ ৪০ দশমিক ২ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়। যা ছিল চলতি মৌসুমে দেশের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা।

চুয়াডাঙ্গা আবহাওয়া পর্যবেক্ষণাগারের ইনচার্জ জামিনুর রহমান জানান, আগামী ১০ দিন আবহাওয়া পরিস্থিতি একই রকম থাকবে। এসময় তাপমাত্রা আরও বাড়বে। আপাতত স্বাভাবিক বৃষ্টিপাতের কোনো সম্ভাবনা নেই। তবে কালবৈশাখী ঝড় হলে তার সাথে বৃষ্টি হতে পারে। এটা আগে থেকে বলা সম্ভব নয়।

এদিকে, তীব্র গরমে জনজীবনে নেমে এসেছে ভোগান্তি। ঈদের ছুটিতে অনেকে এখন গ্রামে অবস্থান করছেন। কিন্তু গরমের কারণে কেউ বাইরে বের হতে পারছেন না। এক প্রকার ঘরবন্দি সময় পার করছেন তারা।

;