ডেইলি স্টারের নির্বাহী সম্পাদকের ফ্ল্যাট থেকে পড়ে গৃহকর্মীর মৃত্যু



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম
ডেইলি স্টারের নির্বাহী সম্পাদকের বাড়িতে মিলল গৃহকর্মীর রক্তাক্ত মরদেহ

ডেইলি স্টারের নির্বাহী সম্পাদকের বাড়িতে মিলল গৃহকর্মীর রক্তাক্ত মরদেহ

  • Font increase
  • Font Decrease

রাজধানীর মোহম্মদপুরে ৯ তলা ভবনের নিচ থেকে প্রীতি (১৫) নামে এক গৃহকর্মীর রক্তাক্ত মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। এ ঘটনায় বাসার গৃহকর্তাসহ তিনজনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করেছে পুলিশ।

জিজ্ঞাসাবাদের জন্য থানায় নেওয়া ওই গৃহকর্তার নাম আশফাকুল হক। তিনি ডেইলি স্টার পত্রিকার নির্বাহী সম্পাদক। গত বছরেও গৃহকর্মী নির্যাতনের অভিযোগে তাঁর নামে মোহাম্মদপুর থানায় মামলা হয়েছিল।

স্থানীয় ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, প্রীতির গ্রামের বাড়ি মৌলভীবাজারে। কয়েক মাস আগে মোহাম্মদপুরের শাহজাহান রোডের ২/৭ নম্বর বাসায় কাজ করতে এসেছিলেন সে। মঙ্গলবার সকালে বাসার জানালা দিয়ে ভবনের নিচে পড়ে যায় কিশোরী। বাড়িটির ৯ তলায় বারান্দার রেলিংয়ের সঙ্গে ঝুলছিল প্রীতির দেহ।

এদিকে খবর পেয়ে প্রীতির মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠায় পুলিশ। ঘটনার পর সকালেই আশফাকুল হক ও তাঁর স্ত্রীসহ কয়েকজনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য থানায় নিয়ে যায় পুলিশ।

স্থানীয়রা বলছেন, এর আগেও এই বাসায় একই ঘটনা ঘটেছিল।

মোহাম্মদপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাহফুজুল হক ভুইয়া বলেন, ‘এ ঘটনায় আশফাকুল হক ও তাঁর স্ত্রীসহ কয়েকজনকে থানায় নেওয়া হয়েছে। আশফাকুল হক দাবি করেছেন, তাঁর গৃহকর্মী বাসা থেকে পড়ে গিয়ে মারা গেছেন। তবে আমরা বিষয়টি দেখছি এবং তাঁদের জিজ্ঞাসাবাদ করছি।’

ওসি আরও বলেন, ‘আশফাকুলের দাবি, তারা ওই সময় ঘুমিয়েছিলেন। পরে ঘুম থেকে উঠে জানতে পারেন প্রীতি বাসার নিচে পড়ে আছে।’

উল্লেখ্য, এর আগে গত ৫ আগস্ট সাংবাদিক সৈয়দ আশফাকুল হকের এই বাসা থেকেই ফেরদৌসী নামে এক গৃহকর্মীকে গুরুতর আহত অবস্থায় উদ্ধার করেছিল পুলিশ। তখনও আশফাকুলের নামে মামলা হয়েছিল।

   

চট্টগ্রামে রিকশায় লরির ধাক্কা, শিশুর মৃত্যু



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, চট্টগ্রাম
সড়ক দুর্ঘটনা

সড়ক দুর্ঘটনা

  • Font increase
  • Font Decrease

চট্টগ্রাম নগরীর পতেঙ্গায় সড়ক দুর্ঘটনায় তাছলিমা হাসান তায়েবা নামের দেড় বছরের এক শিশু নিহত হয়েছে।

শনিবার (২০ এপ্রিল) দুপুর ১২টার দিকে কাঠগড় বাইতুন নূর জামে মসজিদের বিপরীতে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

তাছলিমা হাসান তায়েবা ইপিজেড থানার কাজীর গলি এলাকার মো. হাসানের ছেলে।

পতেঙ্গা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কবিরুল ইসলাম বলেন, কাঠগড় বাইতুন নূর জামে মসজিদের পাশের সড়ক দিয়ে রিকশা করে হাসান ও তার স্ত্রী তাদের দেড় বছরের কন্যা শিশুকে নিয়ে যাচ্ছিলেন। এ সময় বেপরোয়া গতিতে আসা একটি লরি রিকশাকে ধাক্কা দিলে শিশু তায়েবা মাথায় গুরুতর আঘাত পায়। পরে স্থানীয়রা তায়েবাকে উদ্ধার করে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করে।

তায়েবার মরদেহের সুরতহাল প্রস্তুত শেষে পরবর্তী আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে বলে জানান ওসি।

;

গোলাপ শাহ মাজারের ফুটপাত থেকে অজ্ঞাত ব্যক্তির মরদেহ উদ্ধার



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট বার্তা২৪.কম
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

রাজধানীর গোলাপ শাহ মাজারের পাশের ফুটপাতের থেকে অজ্ঞাত এক ব্যক্তির মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। ওই ব্যক্তির বয়স আনুমানিক ৪০ বছর।

শনিবার (২০ এপ্রিল) বেলা সোয়া ১১টার দিকে অচেতন অবস্থায় অজ্ঞাত ওই ব্যক্তিকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে জরুরি বিভাগের চিকিৎসক পরীক্ষা-নিরীক্ষা শেষে তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

শাহবাগ থানার উপপরিদর্শক (এসআই) মো. আরিফ নেওয়াজ জানান, মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজের মর্গে রাখা হয়েছে।

তিনি আরও জানান, আশপাশের লোকদের জিজ্ঞেস করে আমরা ওই ব্যক্তির নাম-পরিচয় জানতে পারিনি।প্রযুক্তির সহায়তায় তার নাম পরিচয় জানার চেষ্টা চলছে।

;

বান্দরবানে রাজ পরিবারের উদ্যো‌গে ‘নদী পূজা’



ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, বান্দরবান
ছবি: বার্তা২৪.কম

ছবি: বার্তা২৪.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

অশুভ শক্তিকে প্রতিরোধ করে সবার সুখ-শান্তি আর মঙ্গল কামনায় পার্বত্য জেলা বান্দরবানে পালিত হচ্ছে নদী পূজা। প্রতিবছর বৈশাখ মাসে মারমা সম্প্রদায়ের সংগ্রাইং উৎসবের পরে বান্দরবান রাজপরিবারের পক্ষ থেকে সাঙ্গু নদীতে এই নদী পূজা উদযাপন করা হয়ে থাকে। আর এর মাধ্যমে পুরাতন বছরকে বিদায় ও নতুনের আহ্বান জানান বৌদ্ধধর্মাবলম্বীরা।

শনিবার (২০ এপ্রিল) সকালে বান্দরবান বোমাং রাজবাড়ী পরিবারের আয়োজনে বর্ণাঢ্য ধর্মীয় শোভাযাত্রা বের করা হয়। শোভাযাত্রাটি রাজবাড়ী প্রাঙ্গণ থেকে শুরু হয়ে শহরের প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে উজানী পাড়া সাঙ্গু নদীর তীরে সবােই সমবেত হন।

শোভাযাত্রায় বান্দরবানের বোমাং সার্কেলের চিফ রাজপুত্র চসিংপ্রু বনি নেতৃত্বের রাজপরিবারের সদস্য, বিভিন্ন মৌজার হেডম্যান ও কারবারি (পাড়া প্রধান) সহ বৌদ্ধ ধর্মাবলম্বী ও অনুসারীরা এতে অংশ নেন।

সেই সময় সাঙ্গু নদীর তীরে বটগাছ ও নদীর পানিতে পূজা করেন বৌদ্ধ ধর্মাবলম্বীরা। তখন মিষ্টি জাতীয় খাবারসহ বিভিন্ন রকমের ফল উৎসর্গ করার পাশাপাশি মোমবাতি ও ধুপ জ্বালিয়ে পূজারীরা দেশ ও জাতির মঙ্গল কামনা করেন। নদীর ধারে বাঁশের তৈরি মাচাংয়ের ওপরে ফুল বিসর্জন করে দেবতার উদ্দেশে পূজা করা হয়। সবাই নতুন বছরে পৃথিবীতে সুখে-শান্তিতে বসবাসের জন্য বিশেষ প্রার্থনায় মিলিত হন।

জনশ্রুতি আছে যে, পাহাড়ের মানুষজন এক সময় প্রকৃতি পূজারি ছিলেন। তারা ধারণা করতেন অরণ্যে ঘেরা সবুজ বান্দরবানের পাহাড় পরিবেশে অশুভ শক্তি প্রভাব বিস্তার হয়। এতে পাহাড়ের মানুষজন বিভিন্ন সময়ে নানা প্রকার রোগব্যাধিতে, বিপদ আপদে আক্রান্ত হতেন। তাই সেই সময় থেকে পাহাড়ের মানুষজন বিশ্বাস করে আসছে অশুভ শক্তির হাত থেকে রক্ষা পেতে নদী পূজা সবার জন্য মঙ্গল বয়ে আনবে। আর তাই প্রতিবছরই বৈশাখ মাসে মারমা সম্প্রদায়ের নববর্ষ ও সাংগ্রাইং উৎসব শেষে বান্দরবানে বোমাং রাজপরিবারের পক্ষ থেকে এই নদী পূজার আয়োজন করা হয়। আর বৌদ্ধ ধর্মাবলম্বীরা সবাই এই আয়োজনে অংশ নিতে প্রতিবছর বান্দরবানে সাঙ্গু নদীতে সমবেত হয়।

;

বগুড়ার নিউ মার্কেটে স্বর্ণের দোকানে দুর্ধর্ষ চুরি



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, বগুড়া
ছবি: বার্তা২৪.কম

ছবি: বার্তা২৪.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

বগুড়ায় নিউ মার্কেটের একটি স্বর্ণের দোকানে দুর্ধর্ষ চুরি হয়েছে। শহরের নিউ মার্কেটে আল তৌফিক জুয়েলার্সে শুক্রবার (১৯ এপ্রিল) রাতের কোন এক সময়ে এই চুরির ঘটনা ঘটে। দোকানটি থেকে প্রায় ১২০ ভরি স্বর্ণালঙ্কার চুরি করেছে বলে জুয়েলার্সের মালিকপক্ষ দাবি করেছেন।

শনিবার (২০ এপ্রিল) সকালে খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে।

জুয়েলার্সের মালিক কামরুল হোসেন জানান, শনিবার সকাল সোয়া ১০টার দিকে দোকানের ম্যানেজার তাকে ফোন দিয়ে জানায় যে দোকানের তালা ভাঙা এবং দোকান খোলা। এছাড়াও মেঝেতে স্বর্ণের কিছু জিনিসও পড়ে আছে। খবর পেয়ে তিনি দোকানে যান। মার্কেটের ব্যবসায়ী ও মালিক সমিতির নেতারাও তখন তার দোকানে পৌঁছান। তারা বিষয়টি থানা পুলিশকে অবগত করলে পুলিশ ঘটনাস্থল পরেদর্শন করে।

তিনি বলেন, ‘দোকানে সিসিটিভি ক্যামেরা থাকলেও রাতে বিদ্যুতের লাইন বন্ধ করে দেওয়ায় সেটি সচল ছিলনা। দোকানের প্রায় ১২০ ভরি স্বর্ণালঙ্কার চুরি হয়েছে। যার আনুমানিক মূল্য দেড় কোটি টাকা।’

জুয়েলার্সের ম্যানেজার ধলু মিয়া বলেন, ‘রাতে দোকানের ডিসপ্লেতে যে সোনার জিনিসপত্র ছিলো, দোকানে এসে সেগুলোর একটাও পাওয়া যায়নি। দোকানের সিন্দুকে (লকার) থাকা সোনা ও গহনা চোরেরা নিতে পারেনি।’

বগুড়া নিউ মার্কেট ব্যবসায়ী সমিতির সাধারণ সম্পাদক শামীম সরকার বলেন, ‘মার্কেটের নিরাপত্তা (সিকিউরিটি) আরও বাড়ানো দরকার। দোকানীরা দীর্ঘদিন ধরে নিরাপত্তা প্রহরীর টাকা বাঁকি রাখে, এরফলে প্রহরীর সংখ্যা বাড়ানো সম্ভব হয়না। মার্কেটে সকল দোকানীকে সিসিটিভি ক্যামেরা লাগানোর কথাও বলা হয়েছে। এবার নিরাপত্তার বিষয়ে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

বগুড়া সদর থানার পুলিশ পরিদর্শক ফইম উদ্দিন বলেন, নিউ মার্কেটে জুয়েলারি দোকানে চুরির খবর পেয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করা হয়েছে। বিষয়টির তদন্ত শুরু করা হয়েছে।’ ঘটনায় জড়িতদের চিহ্নিত করতে তৎপরতা চালানো হচ্ছে বলেও জানান তিনি।

 

;