দুদকের গণশুনানিতে অভিযোগকারীরাই অনুপস্থিত

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম, চট্টগ্রাম
ছবি: বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম

ছবি: বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের সেবা নিয়ে ভোগান্তি ও অনিয়মের বিষয়ে দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) গণশুনানি অনুষ্ঠিত হয়েছে। তবে গণশুনানিতে অভিযোগকারীদের বেশিরভাগই ছিলেন অনুপস্থিত।

সোমবার (১৪ অক্টোবর) চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজের বীর উত্তম শাহ আলম মিলনায়তনে এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। সকাল ৯টায় শুরু হবার কথা থাকলেও মূল অনুষ্ঠান শুরু হয় সকাল ১১টায়। অনুষ্ঠানে দুদকের কমিশনার (তদন্ত) এ এফ এম আমিনুল ইসলাম প্রধান অতিথি ছিলেন।

দুদক কমিশনার (তদন্ত) আমিনুল ইসলাম বিষয়টি খতিয়ে দেখে ব্যবস্থা নিতে চসিক মেয়র আজম নাছির উদ্দিনকে নির্দেশ দেন।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক ভুক্তভোগী বলেন, আমরা অভিযোগ দেওয়ার পর দুদক গণশুনানি করে চলে যাবে। পরে আমাদের নিরাপত্তা দেবে কে? যেহেতু আমরা এই নগরে বাস করি, সেহেতু অভিযোগ দেওয়ার কারণে পরে আমাদেরকেই হয়রানিতে পড়তে হবে। তখন দুদককে খুঁজেও পাওয়া যাবে না।

উল্লেখ্য, চসিকে অনিয়ম দুর্নীতি হচ্ছে এরকম অহরহ অভিযোগ পেয়ে সরকারি সেবাধর্মী এই প্রতিষ্ঠানটিতে গণশুনানি করার সিদ্ধান্ত নেয় দুদক। গণশুনানির জন্য অভিযোগ সংগ্রহে চলতি মাসের এক তারিখ থেকে পৃথক পাঁচটি টিম গঠন করে দুদক। তারা চসিকের রাজস্ব সার্কেলগুলোসহ চসিক কার্যালয়ে উপস্থিত থেকে সেবা গ্রহীতাদের কাছ থেকে অভিযোগ সংগ্রহ করেছেন। পাশাপাশি দুইজন কর্মকর্তা তাদের মুঠোফোনেও অভিযোগ নেন।

দুদকের কাছে অধিকাংশ অভিযোগ পড়ে চসিকের প্রকৌশল ও রাজস্ব শাখার বিরুদ্ধে। অন্য শাখার বিরুদ্ধেও অভিযোগ পড়ে। সবমিলিয়ে প্রায় শতাধিক অভিযোগ গ্রহণ করে দুদক।

আপনার মতামত লিখুন :