মুক্ত চিন্তার বিকাশে ভূমিকা রাখছে যুব ছায়া সংসদ

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট, বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম, ঢাকা
যুব ছায়া সংসদের ৮ম অধিবেশনে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন স্পিকার শিরীন শারমিন চৌধুরী

যুব ছায়া সংসদের ৮ম অধিবেশনে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন স্পিকার শিরীন শারমিন চৌধুরী

  • Font increase
  • Font Decrease

তরুণদের মুক্ত চিন্তার বিকাশে যুব ছায়া সংসদ ভূমিকা রাখছে বলে মন্তব্য করেছেন স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী। তিনি বলেন, বাকস্বাধীনতা ও যুক্তির মধ্য দিয়ে পরমতসহিষ্ণুতা চর্চার সুযোগ ঘটে—যা গণতন্ত্রের জন্য অপরিহার্য।

শনিবার (১৯ অক্টোবর) দুপুরে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের নবাব নওয়াব আলী চৌধুরী সিনেট ভবনে ‘যুব ছায়া সংসদ’ এর ৮ম অধিবেশনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন তিনি। এবারের যুব ছায়া সংসদের প্রতিপাদ্য বিষয় ‘খাদ্য অপচয় রোধ, পুষ্টিকর ও নিরাপদ খাদ্য নিশ্চিত করুন, যুব ক্ষমতায়নে অগ্রাধিকার দিন’।

বাংলাদেশ এখন খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণ। বর্তমান সরকারের যুগোপযোগী পদক্ষেপের কারণেই এটা সম্ভব হয়েছে উল্লেখ করে স্পিকার বলেন, ১০ টাকায় ব্যাংক অ্যাকাউন্ট খোলার মধ্য দিয়ে অর্থনীতির সঙ্গে কৃষকের যোগসূত্র স্থাপন করে দিয়েছে সরকার। কৃষকের জন্য সরকারি প্রণোদনা এখন সরাসরি কৃষকের কাছে পৌঁছে যাচ্ছে। অন্তর্ভুক্তিমূলক অর্থনীতি ও অন্তর্ভুক্তিমূলক উন্নয়নে এটা মাইলফলক।

ড. শিরীন শারমিন বলেন, পুষ্টি চাহিদা নিশ্চিত করতে সরকার নানামুখী পদক্ষেপ নিয়েছে। শিশু ও নারীর পুষ্টি নিশ্চিত করতে সরকার মাতৃত্বকালীন ভাতা ও ল্যাকটেটিং মাদার ভাতা চালু করেছে।

চাহিদা অনুযায়ী খাদ্য উৎপাদনের প্রতি গুরুত্বারোপ করে স্পিকার বলেন, খাদ্য অপচয় রোধে যথাযথ গবেষণা ও তথ্য উপাত্তের ভিত্তিতে পরিকল্পিত উৎপাদন ব্যবস্থা নিশ্চিত করতে পারলে সারাদেশে সুষম উন্নয়ন পৌঁছে দেওয়া সম্ভব হবে।

যুব ছায়া সংসদ ৮ম অধিবেশন উদ্বোধন করেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ আখতারুজ্জামান। বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন সংসদ সদস্য অ্যারোমা দত্ত, সাবেক কৃষি সচিব আনোয়ার ফারুক। আমরা ফাউন্ডেশনের নির্বাহী পরিচালক ও সর্বদলীয় সংসদীয় গ্রুপ (এপিপিজি) এর সেক্রেটারি জেনারেল শিশির শীল অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন। আয়োজকদের পক্ষ থেকে স্বাগত বক্তব্য রাখেন হাঙ্গার ফ্রি ওয়ার্ল্ড-এর কান্ট্রি ডিরেক্টর আতাউর রহমান মিল্টন।

বাংলাদেশ জাতীয় সংসদের সংসদীয় নির্বাচনী এলাকার আদলে ৩০০ জন এবং সংরক্ষিত মহিলা আসনের ৫০ জন মোট ৩৫০ জন শিক্ষার্থী এই যুব ছায়া সংসদে প্রতিনিধিত্ব করেছেন। হাঙ্গার ফ্রি ওয়ার্ল্ড, ইয়ুথ অ্যাগেইনস্ট হাঙ্গার, ড্যান চার্চ এইডসহ দেশের চল্লিশটিরও অধিক স্বেচ্ছাব্রতী সংগঠন এই যুব ছায়া সংসদ আয়োজন করেছে।

আগামী দিনের বাংলাদেশে গণতন্ত্রের ধারা কেমন হবে তা নির্ভর করছে আজকের তরুণেরা কিভাবে গণতন্ত্র চর্চ্চা করছে তার উপর। সেই দিকটি বিবেচনায় রেখেই তরুণ প্রজন্মের মধ্যে গণতান্ত্রিক ধ্যান ধারণার বিকাশ এবং সংসদীয় ধারায় সমস্যা সমাধানের রীতিকে প্রণোদিত করার লক্ষ্য নিয়ে যুব ছায়া সংসদ কর্মসূচি বাস্তবায়িত হচ্ছে।

আপনার মতামত লিখুন :