ডিজিটাল যুগের চ্যালেঞ্জ কি মোকাবেলা করতে পারবে গণমাধ্যম?



রাজীব নন্দী, কনসালটিং এডিটর, বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম
ছবি: বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম

ছবি: বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

ভুবনেশ্বর (ওড়িশা) ভারত থেকে: প্রতিবেশী ভারতের ওড়িশা রাজ্যের ভুবনেশ্বরে গণমাধ্যম গবেষকদের তিনদিনের মিলনমেলা সমাপ্ত হয়েছে। উৎকল ইউনিভার্সিটির ইনস্টিটিউট অফ মিডিয়া স্টাডিজের আয়োজনে সর্বভারতীয় গণমাধ্যম ও সাংবাদিকতার শিক্ষক-গবেষকদের থার্ড ন্যাশন্যাল মিডিয়া কনক্লেভে যোগ দিয়েছেন সর্বভারতীয় ৪৫ জন গণমাধ্যম বিশেষজ্ঞ। যেখানে তাদের সম্পাদিত ৯৮টি গবেষণাপত্র উপস্থাপিত হয়েছে।

শনিবার (২৩ নভেম্বর) সমাপনী সেশন এবং মনোমুগ্ধকর সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে বিদায়ের সুর বেজে উঠে সর্বভারতীয় এই সভামঞ্চে।

গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতার তাত্ত্বিক আলোচনার পাশাপাশি ওড়িশার ভুবনেশ্বরের কিট ইউনিভার্সিটি মিলনায়তনে সন্ধ্যা থেকে রাত অবধি চলে স্থানীয় লোকজ গান এবং ওডিসি নৃত্যের ঝংকার।

থার্ড ন্যাশন্যাল মিডিয়া কনক্লেভের সমাপনী প্লেনারির বক্ততারা

সমাপনী অধিবেশনে বক্তৃতা করেন প্রফেসর উপেন্দ্র পাডি, শ্রী সন্দ্বীপ সাহু, কল্পনা শর্মা, শ্রী এ. কে বিসওয়াল, মনিষা পান্ডে। সমাপনী প্লেনারিতে বক্তারা লিঙ্গবৈষম্যহীন মিডিয়া ব্যবস্থার ওপর জোর দেন।

বক্তারা আরো বলেন, ডিজিটাল প্রযুক্তিগত উন্নয়নের পাশাপাশি গণমাধ্যম এখন বহুবিধ সংকটের মুখোমুখি। মিডিয়া নিজে সমাজে গণতন্ত্রের কথা বললেও তার নিজের গণতান্ত্রিক চরিত্র অক্ষুণ্ণ রাখতে পারছে না। ফলে এখন প্রশ্ন দেখা দিচ্ছে, ডিজিটাল যুগের চ্যালেঞ্জ কি মোকাবেলা করতে পারবে গণমাধ্যম?

কনফারেন্সে গবেষকদের কেউ কেউ গণপিটুনি, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম, গুজব ইত্যাদি সমসাময়িক সংকটও তুলে ধরেন গবেষণাপত্র এবং বক্তৃতায়। সবশেষে ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা বক্তৃতা প্রদান করেন উৎকল বিশ্ববিদ্যালয়ের ইনস্টিটিউট অফ মিডিয়া স্টাডিজের পরিচালক এবং কনফারেন্সের আয়োজক চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. উপেন্দ্র পাডি।

বৈচিত্র্যময় নৃত্যেই পরিচয় মেলে বিচিত্র ভারতের ওড়িশার সংস্কৃতি

এর আগে দিনভর গণমাধ্যম গবেষক-শিক্ষকদের তাত্ত্বিক আলোচনা শেষে ভিন্ন মাত্রা দেয় গত ২২ নভেম্বর শুক্রবারের সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। যা মোহিত করে সর্বভারতীয় ও বাংলাদেশি ডেলিগেটদের।

এতে বাংলাদেশ থেকে ইন্টারন্যাশনাল ডেলিগেট টিমে যোগ দিয়েছেন পাঁচ সদস্যের একটি দল। যার নেতৃত্ব দিচ্ছেন সাবেক প্রধান তথ্য কমিশনার এবং ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের অবসরপ্রাপ্ত অধ্যাপক ড. গোলাম রহমান। পাঁচজনের এই দলে রয়েছেন চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের (চবি) যোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের সহকারী অধ্যাপক এবং বার্তাটোয়েন্টিফোর.কমের অনারারি কনসাল্টিং এডিটর রাজীব নন্দী।

বাংলাদেশ ডেলিগেটস টিমের সদস্য  রাজীব নন্দী

শুক্রবার রাতে ওডিসি নৃত্য নিয়ে মঞ্চে আসে স্থানীয় নৃত্যশিল্পীর দল। তাদের শাস্ত্রীয় নৃত্যশৈলী দর্শক সারিতে মুগ্ধতা ছড়িয়ে দেয়। নাচের তালে আর গানের সুরে পরিচয় মেলে অন্য এক ওড়িশার। ভারতের আটটি ধ্রুপদী নৃত্যশৈলীরও অন্যতম এ নৃত্যে মজে মুহুর্মুহু করতালি দিতে কার্পণ্য করেননি আগত ডেলিগেটরা। করতালিতে পুরো মিলনায়তন যখন ভরে উঠেছে ঠিক তখন মঞ্চে আসে আরেক দল নৃত্যশিল্পী। ব্যতিক্রমী সাজে বিচিত্র সব বাদ্যযন্ত্রের তালে তালে শুরু করেন তাদের পরিবেশনা। যা ওড়িশার আদিবাসী নৃত্য নামে পরিচিত।

ওডিসি নৃত্য নিয়ে মঞ্চে আসে স্থানীয় নৃত্যশিল্পীর দল

কৃষ্ণ-বিরহাতুর রাধা চরিত্রের উপস্থাপনা নিয়ে পরিবেশন করা হয় সর্বশেষ নৃত্যের। ওড়িশা নারীদের প্রেমাবেগের বহিঃপ্রকাশ ফুটিয়ে তোলা হয় নৃত্যের ছন্দে। এমন বৈচিত্র্যময় নৃত্যেই পরিচয় মেলে বিচিত্র ভারতের ওড়িশার সংস্কৃতি।

বহুবিস্তৃত ও বহুবিচিত্র ভারতের সাংস্কৃতিক বহুত্ববাদী ধারণার চমৎকার উপস্থাপন দেখা গেলো এই কনফারেন্সে। গণমাধ্যম গবেষকদের সপ্রশংস উপস্থিতি এবং প্রাণময় আড্ডায় পারস্পরিক সৌহার্দ্য স্থাপনের মধ্য দিয়ে শেষ হয় এই সম্মেলন। তিনদিনের এই আয়োজনে মধ্যাহ্নভোজ এবং নৈশভোজেও ছিলো স্থানীয় রুচি এবং আতিথেয়তার ছাপ।