মিরপুরে জোড়া খুনের নেপথ্যে অনৈতিক কাজের টাকা ভাগাভাগি

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম, ঢাকা
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

রাজধানীর মিরপুরে অনৈতিক কাজের টাকা ভাগাভাগি নিয়ে দ্বন্দ্বে গৃহকর্ত্রী রহিমা বেগম (৬০) ও তার গৃহকর্মী সুমি আক্তার (২০) খুন হয়েছেন। জিজ্ঞাসাবাদে গ্রেফতার রমজান (২২) ও ইউসুফ (২৩) ডিবি পুলিশকে এ তথ্য জানিয়েছে।

বুধবার (৪ ডিসেম্বর) সন্ধ্যায় লঞ্চে বরিশালে পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টাকালে সদরঘাট এলাকা থেকে তাদের গ্রেফতার করে মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি পশ্চিম) একটি দল।

ডিবি সূত্র বলছে, গ্রেফতারদের প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে বেশ কিছু চাঞ্চল্যকর তথ্য পেয়ে তারা। মিরপুর-২ নম্বর সেকশনের ভাড়া বাড়িতে অনৈতিক ব্যবসা করে আসছিলেন গৃহকর্ত্রী রহিমা বেগম। তার এ কাজে সহযোগিতা করতো রমজান ও ইউসুফ নামের এই দুই দালাল।

আর এ ব্যবসার টাকার ভাগবাটোয়ারা নিয়ে বেশ কিছুদিন ধরে দালাল রমজান ও ইউসুফের সঙ্গে দ্বন্দ্ব চলছিল। রমজান ও ইউসুফের চাহিদা মতো টাকা দিতে না পারায় মঙ্গলবার (৩ ডিসেম্বর) ঝগড়ার এক পর্যায়ে প্রথমে গৃহকর্মী সুমিকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করে রমজান ও ইউসুফ। একই কায়দায় রহিমা বেগমকে হত্যা করে পালিয়ে যায় তারা।

জানতে চাইলে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি-পশ্চিম) পল্লবী জোনের সিনিয়র এসি শাহাদাত হোসেন সুমন বার্তা২৪.কমকে বলেন, অনেক দিন ধরেই মিরপুরেই ওই বাসায় অনৈতিক ব্যবসা চালিয়ে আসছিলেন নিহত রহিমা। তার এ কাজে খদ্দের সংগ্রহসহ বিভিন্নভাবে সহযোগিতা করতো দালাল রমজান ও ইউসুফ। সম্প্রতি টাকার ভাগাভাগি নিয়ে দ্বন্দ্বের জেরে এ হত্যাকাণ্ড ঘটানো হয়েছে বলে জানিয়েছে তারা।

আপনার মতামত লিখুন :