জাককানইবিতে র‌্যাগিংয়ের দায়ে ৩ শিক্ষার্থী সাময়িক বহিষ্কার

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ময়মনসিংহ
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

ম্যানার শেখানোর নামে র‌্যাগ দেওয়ার অপরাধে জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয়ের তিন শিক্ষার্থীকে সাময়িক বহিষ্কার করেছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন।

তারা হলেন- সমাজবিজ্ঞান বিভাগের তোয়াবা নুশরাত মীম ও শায়েরা তাসনিম আনিকা এবং চারুকলা বিভাগের মৌমিতা পারভীন। তারা তিনজনই ২০১৮-১৯ সেশনের শিক্ষার্থী।

রোববার (৯ ফেব্রুয়ারি) সন্ধ্যায় বিশ্ববিদ্যালয়ের শৃঙ্খলা কমিটির এক সভায় এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্টার কৃষিবিদ ড. মো. হুমায়ুন কবির এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, র‍্যাগিং বিরোধী কমিটির প্রতিবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে শৃঙ্খলা বোর্ড এ সিদ্ধান্ত নিয়েছে। ওই তিনজনকে বিশ্ববিদ্যালয়ের একাডেমিক এবং অন্যান্য সকল প্রকার কার্যক্রম থেকে বিরত রেখে সাময়িকভাবে বহিষ্কার করা হয়েছে।

এর আগে, গত মঙ্গলবার (৬ ফেব্রুয়ারি) রাতে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রথম বর্ষের শিক্ষার্থী থিয়েটার অ্যান্ড পারফরমেন্স স্টাডিজ বিভাগের প্রথম বর্ষের ছাত্রী ফারহানা রহমান লিয়োনা ও কম্পিউটার সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের প্রথম বর্ষের শিক্ষার্থী ইমরানকে আচরণ শেখানোর নামে র‌্যাগিং করা হয়। এতে প্রচণ্ড মানসিক চাপে তারা অসুস্থ হয়ে পড়েন। পরে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে তাদের চিকিৎসা দেয়া হয়।

র‌্যাগিংয়ের প্রতিবাদে ও জড়িতদের শাস্তির দাবিতে রোববার (৯ ফেব্রুয়ারি) সকালে ক্যাম্পাসে মানববন্ধন করে জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয়ের সাধারণ শিক্ষার্থী ও মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের সন্তানরা। দুই ঘন্টাব্যাপী মানববন্ধনে শিক্ষার্থীরা ক্যাম্পাসে র‍্যাগিং বন্ধের দাবি জানায়। বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে শৃঙ্খলা কমিটি বিকেলে এক জরুরি বৈঠকে বসে। পরে সেখানে র‌্যাগিংয়ের দায়ে ওই তিন শিক্ষার্থীকে সাময়িক বহিষ্কারের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর উজ্জল কুমার ধর জানান, অসুস্থ ছাত্রীর সাথে কথা বলে ঘটনার কারণ অনুসন্ধান করে তিন ছাত্রীকে সাময়িক বহিষ্কারের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। আগামী এক সপ্তাহের মধ্যে জরুরি সিন্ডিকেট সভা ডাকা হবে। সেই সভায় বহিষ্কৃত ছাত্রীদের বিরুদ্ধে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেয়া হবে।

আপনার মতামত লিখুন :