না.গঞ্জ জেলা কারাগারে ২'শ কয়েদিকে মুক্তির প্রস্তাব

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, নারায়ণগঞ্জ
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

বিভিন্ন মামলার সাজাপ্রাপ্ত দুইশ জন কয়েদিকে নারায়ণগঞ্জ জেলা কারাগার থেকে মুক্তি দেয়ার প্রস্তাব দেয়া হয়েছে। দীর্ঘদিন সাজা ভোগ, ছোটখাটো অপরাধ ও অধিক বয়স্ক কয়েদি যারা রয়েছেন মূলত তাদের নিয়েই এ তালিকা করা হয়েছে।

৯ এপ্রিল (বৃহস্পতিবার) জেল সুপার সুভাষ কুমার ঘোষ গণমাধ্যমকে এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

তিনি বলেন, সম্প্রতি সরকারের নেয়া এক সিদ্ধান্তকে সামনে রেখে নারায়ণগঞ্জ জেলা কারাগারে তালিকাভুক্ত কয়েদিদের চিহ্নিত করে মুক্তির প্রস্তাব কারা অধিদফতরে পাঠানো হয়েছে। প্রস্তাবটি এখন স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হবে। তালিকায় উল্লেখিত দুইশ জনের মধ্যে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে যারা অনুমোদন পাবেন তারাই কেবল মুক্তি পাবেন।

জেল সুপার আরো জানান, নারায়ণগঞ্জ জেলা কারাগারে ৩০০ জন ধারণ ক্ষমতার বিপরীতে বর্তমানে প্রায় ১৮০০ জন কয়েদি রয়েছেন। তাদের পর্যবেক্ষণ করার দায়িত্বে কারারক্ষী ও হাবিলদারসহ কর্মকর্তা রয়েছেন ১৫০ জন। করোনা ঝুঁকি এড়াতে কয়েদি ও বিভিন্ন মামলার আসামিদের সঙ্গে তাদের আত্মীয়-স্বজনদের সাক্ষাৎ করা অস্থায়ীভাবে বন্ধ রাখা হয়েছে। তবে জরুরী প্রয়োজনে কারাগারের ভিতরে ও কারাগারের বাহিরে ১০টি টেলিফোনের ব্যবস্থা করা হয়েছে।

কার সূত্রে জানা যায়, কারাগারের স্বল্প স্থানে অনেকে বন্দি থাকেন এবং তাদের চলাফেরার সুযোগ থাকে না। এ ধরনের জায়গায় করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ ঘটলে তা বিপদ জনক হতে পারে। বর্তমানে দেশের ৬৮টি কারাগারে ধারণক্ষমতার অধিক বন্দি রয়েছে। বর্তমান পরিস্থিতিতে সরকারের নির্দেশনা পেয়ে জামিনযোগ্য ধারায় সারাদেশের বন্দিদের মধ্যে তিন হাজারের বেশি কারাবন্দীদের মুক্তির প্রস্তাব দিয়ে তালিকা তৈরি করেছে কারা কর্তৃপক্ষ।

এ তালিকা প্রস্তাব আকারে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হয়েছে। স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের অনুমোদন পাওয়ার পর প্রস্তাবটি আইন মন্ত্রণালয়ে যাবে। সেখানে আপত্তি না থাকলে তা আদালতে পাঠানো হবে। এরপর আদালত এ বিষয়ে পরবর্তী সিদ্ধান্ত নিবেন।

আপনার মতামত লিখুন :