ঠাকুরগাঁওয়ে স্বামী-স্ত্রীসহ করোনায় আক্রান্ত ১০

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ঠাকুরগাঁও
আইসোলেশন ইউনিট, ঠাকুরগাঁও সদর হাসপাতাল, ছবি: সংগৃহীত

আইসোলেশন ইউনিট, ঠাকুরগাঁও সদর হাসপাতাল, ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

ঠাকুরগাঁওয়ে স্বামী-স্ত্রীসহ গাজীপুর ফেরত ১০ জন করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। এ নিয়ে জেলায় মোট আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৬১ জনে।

শনিবার (২৩ মে) রাতে বার্তা২৪.কমকে বিষয়টি নিশ্চিত করেন ঠাকুরগাঁও সিভিল সার্জন ডা: মাহফুজুর রহমান সরকার।

আক্রান্তরা হলেন- সদর উপজেলার দেবীপুর ইউনিয়নের গাজীপুর ফেরত (৩৩)। সে ঢাকা গাজীপুরে গার্মেন্টসে চাকরি করতো। ১২ মে নিজ বাড়িতে আসে। অপরদিকে রহিমানপুর ইউনিয়নের হরিহরপুর গ্রামের স্বামী (৪৬) ও স্ত্রী (৩৯)।

অপরদিকে বালিয়াডাঙ্গী উপজেলার বড়বাড়ি ইউনিয়নের বড়বাড়ি গ্রামের ঢাকা ফেরত (৩৪)। সে ঢাকা হেমায়েতপুর গার্মেন্টসে চাকরি করতো। ১৯ মে নিজ বাড়িতে আসে। একই উপজেলার স্কুলের হাট গ্রামের শিশু (৪)। তার পিতা ঢাকায় গাজীপুরে গার্মেন্টসে চাকরি করতেন। তার মা বর্তমানে করোনা পজেটিভ হয়ে বালিয়াডাঙ্গী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন।

বালিয়াডাঙ্গী উপজেলার ২নং চাড়োল ইউনিয়নের খালিপুর গ্রামের ঢাকা ফেরত একজন তরুণী (১৯)। সে ঢাকা হেমায়েতপুর গার্মেন্টসে চাকরি করত। ১০ মে বাড়িতে আসে ওই তরুণী। উপজেলার বামুনিয়া রায়মহল গ্রামের তরুণ (১৮)। সে ঢাকায় একট হোটেলে শ্রমিকের কাজ করত। ২২ মে নিজ বাসায় আসে এই তরুণ। কালেমেঘ কাজিবস্তি গ্রামের ঢাকা হেমায়েতপুর গার্মেন্টসের দুই কর্মী (২৪), (২১)। তারা ১২ মে সে নিজ বাড়িতে এসেছে।

এবং পরীগঞ্জ উপজেলার জাবহাট বড়বাড়ি গ্রামের ঢাকা ফেরত (৪০)। তিনি পেশায় গৃহিণী। ঢাকায় গার্মেন্টসে চাকরি করা মেয়ের বাসা থেকে ১০ মে নিজ বাড়িতে আসেন।

সিভিল সার্জন ডা: মাহফুজুর রহমান সরকার বলেন, খবর পেয়ে ১৯ মে বলিয়াডাঙ্গী আক্রান্ত ৬ জনের নমুনা সংগ্রহ করে ২০ তারিখ পাঠানো হয়েছে। অপরদিকে সদর ও পীরগঞ্জের আক্রান্তদের নমুনা ২০ তারিখ সংগ্রহ করে ২১ তারিখ দিনাজপুরের আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়। পরীক্ষা-নীরিক্ষা শেষে তাদের ১০ জনের শরীরে কোভিড-১৯ এর উপস্থিতি পাওয়া যায়।

সিভিল সার্জন ডা: মাহফুজুর রহমান আরও বলেন, নতুন করে আক্রান্ত ১০ জনকে সংশ্লিষ্ট আইসোলেশন ওয়ার্ডে রেখে চিকিৎসা দেওয়া হবে।

জেলায় ১২৬৫ জনের নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষা-নীরিক্ষার জন্য ঢাকা, রংপুর ও দিনাজপুর মেডিকেল কলেজে পাঠানো হয়েছে। এর মধ্যে ১১৩৪ জনের নমুনার ফলাফল পাওয়া গেছে। ২৪ ঘণ্টায় ৩৬ জনের নমুনা পাঠানো হয়েছে।

আপনার মতামত লিখুন :