তালাবদ্ধ বাড়িতে স্ত্রীর অর্ধগলিত মরদেহ, অজ্ঞান হয়ে পড়েছিল স্বামী

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, মেহেরপুর
মরদেহ দেখতে স্থানীয়দের ভিড়।

মরদেহ দেখতে স্থানীয়দের ভিড়।

  • Font increase
  • Font Decrease

মেহেরপুরের গাংনী উপজেলার বামন্দী বাজারের একটি বাড়ি থেকে সুন্দরী খাতুন (৫০) নামে এক গৃহবধূর অর্ধগলিত মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

বৃহস্পতিবার (২৮ মে) দুপুরে মরদেহ উদ্ধার করা হয়। একই বাড়ি থেকে ওই নারীর স্বামী রুস্তম আলীকে (৬০) অজ্ঞান অবস্থায় উদ্ধার করেছে পুলিশ।

নিহত সুন্দরী খাতুন বামন্দী বাজারে ঝাড়ু দেয়ার কাজ করতেন। স্বামী রুস্তম আলী দিনমজুরের কাজ করেন।

সুন্দরী খাতুন বামন্দী-নিশিপুর গ্রামের খোকা মিয়ার মেয়ে। কুষ্টিয়ার দৌলতপুরের রুস্তম আলীর সঙ্গে দ্বিতীয় বিয়ে করে বামন্দীর সাইদুর রহমানের পরিত্যক্ত বাড়িতে বসবাস করতেন সুন্দরী খাতুন।

স্থানীয়রা জানায়, দুপুরের দিকে ওই বাড়ি থেকে প্রচণ্ড দুর্গন্ধ বের হচ্ছিল। বাড়িটি বাইরে থেকে তালা দেয়া ছিল। পরে পুলিশকে বিষয়টি জানানো হয়। এরপর পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে তালা ভেঙে ঘরের ভেতরে প্রবেশ করে সুন্দরী খাতুনের অর্ধগলিত মরদেহ উদ্ধার করে। একই সঙ্গে ওই বাড়ির আরেকটি কক্ষ থেকে রুস্তম আলীকে অজ্ঞান অবস্থায় উদ্ধার করা হয়। তিনি গুরুতর আহত হয়ে অজ্ঞান অবস্থায় পড়েছিলেন।

গাংনী থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) ওবাইদুর রহমান জানান, মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। রুস্তম আলীকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তার জ্ঞান ফিরলেই এ ঘটনার রহস্য জানা যাবে।

আপনার মতামত লিখুন :