সেনবাগে মাছ ধরাকে কেন্দ্র করে দু’পক্ষের সংঘর্ষে গুলিবিদ্ধ ১

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, নোয়াখালী
ছবি: বার্তা২৪.কম

ছবি: বার্তা২৪.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

নোয়াখালীর সেনবাগ উপজেলার বীজবাগ ইউনিয়নে পুকুরে মাছ ধরাকে কেন্দ্র করে দু’পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ, বসতবাড়িতে হামলা, ভাঙচুর ও গুলির ঘটনা ঘটেছে। সংঘর্ষে ইকবাল হোসেন (১৮) নামের এক শিক্ষার্থীসহ অন্তত ৮ জন আহত হয়েছে। 

সোমবার (১ জুন ) বিকালে উপজেলার বালিয়াকান্দি গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

আহতদের মধ্যে গুরুতর অবস্থায় শিক্ষার্থী ইকবাল হোসেনকে নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

স্থানীয়দের ভাষ্যমতে, বালিয়াকান্দি গ্রামে স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক মেম্বার গোফরানের সঙ্গে একই বাড়ির মাঈন উদ্দিনের একটি পুকুরের অংশীদারিত্ব নিয়ে বিরোধ চলে আসছে। এ নিয়ে একাধিকবার শালিস বৈঠক হয়েছে। এ বিরোধের জের ধরে সোমবার বেলা আড়াইটার দিকে গোফরান মেম্বার জোরপূর্বক পুকুরে মাছ ধরতে জাল ফেললে মাঈন উদ্দিন বাধা দেয়। পরে গোফরান মেম্বার তার লোকজন নিয়ে চলে যায়। বিকেল ৩টার দিকে গোফরান তার নাতি গোলাম মোস্তফাসহ ২০-২৫ জনের একদল বহিরাগত সন্ত্রাসী নিয়ে মাঈন উদ্দিনের ঘরে অতর্কিত হামলা চালালে উভয় পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। হামলাকারীরা এলোপাতাড়ি গুলি করলে মাঈন উদ্দিন গুলিবিদ্ধসহ সংঘর্ষে অন্তত ৮ জন আহত হয়। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে এবং গোফরান মেম্বারকে আটক করে।

সেনবাগ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুল বাতেন মৃধা ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, এ ঘটনায় সাবেক ইউপি সদস্য গোফরানকে আটক করা হয়েছে। গুলিবিদ্ধ আহতদের পরিবারের পক্ষ থেকে মামলা দায়ের করা হচ্ছে।

আপনার মতামত লিখুন :