জামিন বাতিলে খালেদার অসুস্থতা গোপন করা হচ্ছে: ড্যাব

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম, ঢাকা
বিএনপিপন্থি চিকিৎসকদের সংগঠন ড্যাবের সংবাদ সম্মেলন, ছবি: বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম

বিএনপিপন্থি চিকিৎসকদের সংগঠন ড্যাবের সংবাদ সম্মেলন, ছবি: বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

মানুষকে বিভ্রান্ত করতে এবং কারাবন্দী বিএনপির চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার জামিন বাতিলে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় (বিএসএমএমইউ) হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ সত্য গোপন করছে বলে অভিযোগ করেছেন ডক্টরস অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (ড্যাব)-এর মহাসচিব ড. আব্দুস সালাম।

সরকারের ‘অশুভ ইশারায়’ বিএসএমএমইউ কর্তৃপক্ষ এ কাজ করছে বলেও অভিযোগ করেন তিনি।

বুধবার (৩০ অক্টোবর) জাতীয় প্রেসক্লাবে বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার স্বাস্থ্য পরিস্থিতি নিয়ে সংবাদ সম্মেলনে বিএনপিপন্থি চিকিৎসকদের সংগঠনটির এ নেতা এসব অভিযোগ করেন।

ড. আব্দুস সালাম বলেন, ‘বেগম জিয়া চরম অসুস্থতায় ভুগছেন। সত্যি বলতে উনি একটু একটু করে পঙ্গুত্বের দিকে এগিয়ে যাচ্ছেন। এখন উনাকে যথাযথ চিকিৎসা দেয়া না হলে তার এই অবস্থা স্থায়ী রূপ নিতে পারে। অথচ বিএসএমএমইউ কর্তৃপক্ষ সরকারের অশুভ ইশারায় মানুষকে বিভ্রান্ত করতে এবং বেগম জিয়ার জামিন বাতিল করতে সত্য গোপন করছেন।’

সংবাদ সম্মেলন করে বিএসএমএমইউ কর্তৃপক্ষ যে বক্তব্য দিয়েছেন তা দুঃখজনক মন্তব্য করে তিনি বলেন, ‘যারা সংবাদ সম্মেলনে ম্যাডামকে (খালেদা জিয়া) সুস্থ বলেছেন আমি তাদের উদ্দেশে বলতে চাই- সত্যিই ম্যাডাম যদি সুস্থ হয়ে থাকেন তাহলে ড্যাব কর্তৃক মনোনীত চিকিৎসকগণকে ম্যাডামের সঙ্গে দেখা করতে দেয়া হোক।’

সালাম বলেন, ‘আমরা ড্যাবের পক্ষ থেকে দাবি জানাচ্ছি, জটিল পরিস্থিতি সৃষ্টি হওয়ার পূর্বেই দেশনেত্রীর ব্যক্তিগত চিকিৎসক দ্বারা তার সুচিকিৎসার ব্যবস্থা করা হোক এবং তাকে তার পছন্দমতো হাসপাতালে চিকিৎসা নেয়ার সুযোগ দেয়া হোক। অন্যথায় চিকিৎসক সমাজ নীরবে বসে থাকবে না।’

ড্যাব মহাসচিব আরও বলেন, ‘ষড়যন্ত্রমূলকভাবে দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে তিলে তিলে নিঃশেষ করার অপপ্রয়াসে তার স্বাস্থ্য সম্পর্কিত অসত্য সংবাদ পরিবেশন করা হচ্ছে, যা উদ্দেশ্যপ্রণোদিত। ’

তিনি বলেন, ‘সংবাদ সম্মেলনে বিএসএমএমইউ কর্তৃপক্ষ পরস্পরবিরোধী বক্তব্য দিয়েছেন। বিএসএমএমইউ-এর পরিচালক বলেছেন, ‘বেগম খালেদা জিয়ার অসহযোগিতার কারণে চিকিৎসকরা তার সাথে দেখা করতে পারেন না’, যা সম্পূর্ণ মিথ্যা। আমাদের জানামতে বেগম জিয়া চিকিৎসকদেরকে কখনো বাধা প্রদান করেননি বরং সব সময়ই সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিয়েছেন যা মেডিকেল বোর্ডের প্রধানের বক্তব্য স্পষ্ট বোঝা যায়। সংবাদ সম্মেলনে মেডিকেল বোর্ড প্রধান জানিয়েছিলেন, বেগম জিয়া সব সময় তাদের সঙ্গে হাসিমুখে কথা বলেন এবং চিকিৎসা সংক্রান্ত যেকোনও প্রশ্নের উত্তর স্বাচ্ছন্দ্যে দেন।’

তিনি বলেন, ‘আপনারা তো বেগম খালেদা জিয়ার সঙ্গে দেখা করেননি এবং তিনি বাতের সর্বাধুনিক চিকিৎসা নেয়ার ভ্যাকসিন নিতে সম্মতি দিচ্ছেন না- এ বিষয়ে সাংবা‌দিকরা জান‌তে চাইলে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতালে কর্মরত ড্যাব নেতা এরফানুল হক সিদ্দিক বলেন, ‘প্রায় দেড় মাস আগে দেখা করেছি এবং খালেদা জিয়ার মেডিকেল বোর্ড বিশেষজ্ঞ আতিকুল হক সাহেব নিয়মিত যেতে পারেন না। অন্য একজন যান, তবে তিনিও নিয়মিত যান না। তার সমস্ত অঙ্গ-প্রত্যঙ্গ ডায়াবেটিস দ্বারা ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ার শঙ্কা রয়েছে।’

সংবাদ সম্মেলনে ড্যাব সভাপতি ডা. হারুন আল রশিদ ছাড়াও সংগঠনের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতারা উপস্থিত ছিলেন।