‘সরকার খালেদা জিয়াকে তিলে তিলে মারার ব্যবস্থা করছে’

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম, ঢাকা
বক্তব্য দিচ্ছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য আমির খসরু মাহমুদ চৌধুরী, ছবি: বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম

বক্তব্য দিচ্ছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য আমির খসরু মাহমুদ চৌধুরী, ছবি: বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

বিএনপির চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়াকে চিকিৎসা না দিয়ে জেলখানায় রেখে সরকার তিলে তিলে মারার ব্যবস্থা করছে বলে অভিযোগ করেছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য আমির খসরু মাহমুদ চৌধুরী।

বৃহস্পতিবার (৩১ অক্টোবর) জাতীয় প্রেসক্লাবে ‘প্রতিহিংসার রাজনীতি ও দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া’ শীর্ষক আলোচনা সভায় এ অভিযোগ করেন তিনি। জাতীয়তাবাদী প্রজন্ম ৭১ কেন্দ্রীয় কমিটি এ সভার আয়োজন করে।

আমির খসরু বলেন, ‘খুনের, ধর্ষণের আসামিরা জামিন পায়। কিন্তু বেগম জিয়া পান না। উনাকে চিকিৎসা না দিয়ে, জামিন না দিয়ে জেলখানায় রেখে সরকার তিলে তিলে মারার ব্যবস্থা করছে।’

তিনি বলেন, ‘খালেদা জিয়ার জামিন চাই এই শীর্ষক কোনও খবর আমি পড়ি না। কারণ লাভ নেই। যেখানে আইনের শাসন নেই, সেখানে উনার ( খালেদা জিয়া) জামিন চাওয়া না চাওয়ারও কিছু নেই।

খালেদা জিয়ার জামিন আইনের মাধ্যমে হবে না। এটা দিনের আলোর মতো পরিষ্কার হয়ে গেছে। তাই বলছি আপনারা প্রস্তুত হোন। দেশের মানুষকে প্রস্তুতি নিতে হবে। দেশের মালিকানা আপনাদের হাতে তুলে নেন। তাহলেই বিচার হবে।’

বিএনপির এই নীতিনির্ধারক বলেন, ‘যে দেশে প্রধান বিচারপতিকে চাকরিচ্যুত হতে হয়, সেখানে আর কি আশা করা যায়। তারেক জিয়ার পক্ষে রায় দিয়েছিলেন বলেই উনাকে অপসারণ করা হয়েছে।’

পেঁয়াজের দাম প্রসঙ্গে আমির খসরু বলেন, ‘পেঁয়াজের দাম নিয়ে ঠাট্টা-মশকরা শুরু হয়েছে। পেঁয়াজের দাম বেড়ে গেছে, আর অনেকেই বলছেন খাবেন না। দুই দিন পর তেলের দাম, ডিমের দাম বাড়লে তাও খেতে না করবেন। বর্তমানে আপেলের চেয়ে পেঁয়াজের দাম বেশি এটাতো মশকরা হওয়ারই কথা। তাই হচ্ছে।’

সংগঠনটির প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি ঢালী আমিনুল ইসলাম রিপনের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় বিএনপির সহ সাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাডডভোকেট আবদুস সালাম আজাদ, নির্বাহী কমিটির সদস্য আবু নাসের মোহাম্মদ রহমাতুল্লাহ, নিপুন রায় চৌধুরী, সাবিরা নাজমুল,তাঁতী দলের যুগ্ম-আহ্বায়ক ড. কাজী মনিরুজ্জামান মনির, কৃষকদল নেতা এম জাহাঙ্গীর আলম, সংগঠনের সহ-সাধারণ সম্পাদক শামিম ভূইয়া প্রমুখ বক্তব্য দেন।

আপনার মতামত লিখুন :