করোনায় দরিদ্রদের পাশে ঢাকা মহানগর উত্তর আ.লীগ

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
দরিদ্রদের পাশে ঢাকা মহানগর উত্তর আ.লীগ/ছবি: বার্তা২৪.কম

দরিদ্রদের পাশে ঢাকা মহানগর উত্তর আ.লীগ/ছবি: বার্তা২৪.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

করোনা পরিস্থিতি সহসাই কাটছে না। আর দীর্ঘ কর্ম বিরতিতে সংকটে পড়েছে দৈনিক মজুরির মানুষগুলো। বাইরে যেতে পারছে না, আবার ঘরে থেকেও খাবার জুটছে না। এই মুহূর্তে বিপুল সংখ্যক মানুষ মানবেতর জীবন যাপন করছে। তাই কঠিন পরিস্থিতিতে মানুষের পাশে দাঁড়ানোর ঘোষণা দিয়েছে ঢাকা মহানগর উত্তর আওয়ামী লীগ।

বঙ্গবন্ধুর সেই ডাকের মতো নেতাকর্মীদের যার যা আছে তাই নিয়ে দরিদ্র মানুষের পাশে দাঁড়ানোর জন্য মহানগর উত্তর আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে আহ্বান জানানো হয়েছে। এরই অংশ হিসেবে শনিবার (২৮ মার্চ) জাতীয় অর্থোপেডিক হাসপাতালের পরিচালক ডা. আব্দুল গণি মোল্লার হাতে চিকিৎসা সামগ্রী তুলে দেন মহানগরের নেতারা। এ সময় উপস্থিত ছিলেন ঢাকা মহানগর উত্তর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এস এ মান্নান কচি।

হাসপাতালে কর্মরত স্বাস্থ্যকর্মীদের সুরক্ষার জন্য ঢাকা মহানগর উত্তর আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে ৩০০ ব্যক্তিগত সুরক্ষা সরঞ্জাম (পিপিই) ও ২০০ মাস্ক তুলে দেওয়া হয়। শুধু তাই নয় ঢাকা মহানগর উত্তর আওয়ামী লীগের আওতাধীন ২৬টি থানার সভাপতি, সাধারণ সম্পাদকসহ সকল পর্যায়ের নেতাদের বলে দেওয়া হয়েছে দরিদ্র মানুষের পাশে দাঁড়াতে। 

এ বিষয়ে ঢাকা মহানগর উত্তর আওয়ামী লীগের সভাপতি শেখ বজলুর রহমান বার্তা২৪.কম-কে বলেন, আমরা প্রত্যেক নেতাকর্মীকে বলেছি এই দুর্যোগের সময় অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়াতে। নেতাকর্মীসহ অন্যান্য বিত্তবানদের একটা কথাই বলেছি আপনারা যে টাকা দিয়ে কোথাও বেরাতে যেতেন, যে টাকা দিয়ে হয়তো কোনো অনুষ্ঠান করতেন, বা কেউ আগামীতে জাকাত দিতেন সেই অর্থ যেন অসহায় মানুষের জন্য কিছু করেন।

তিনি বলেন, যার যতটুক আছে তাই দিয়ে সহযোগিতা করতে বলা হয়েছে। এরইমধ্যে আমাদের অনেক থানার নেতারা কাজে নেমেছেন। অনেকে কাজ করবেন বলে আশ্বস্ত করেছেন। আমাদের টার্গেট আছে ঢাকা মহানগর উত্তরের প্রতিটি খেটে খাওয়া মানুষের কাছে সহায়তা পৌঁছে দেওয়ার। সেখানে কিছু চাল, ডাল, তেল, আলু, সাবানসহ নিত্য প্রয়োজনীয় জিনিস থাকবে।

পাশাপাশি নেতাকর্মীদের বলে দেওয়া হয়েছে এই কাজ করতে যেয়ে যেন কেউ সভা সমাবেশ না করে। অর্থাৎ গণজমায়েত করতে নিষেধ করা হয়েছে। প্রয়োজনে মানুষের বাড়ি বাড়ি গিয়ে খাবার পৌঁছে দেবে।

শেখ বজলুর রহমান আরও বলেন, আমাদের আহ্বান থাকবে বিত্তবানদের প্রতি। তারাও অনেক টাকা বিভিন্ন ভাবে ব্যয় করতেন। সেই টাকা যেন মানুষের এই দু:সময়ে পাশে দাঁড়ান। যার যার সামর্থ্য অনুযায়ী মানুষের পাশে দাঁড়ালে কেউ না খেয়ে থাকবে না।

আপনার মতামত লিখুন :