আইপিএলে খেলতে দুবাই যাচ্ছেন জাহানারা ও সালমা খাতুন



স্পোর্টস এডিটর, বার্তা২৪.কম
জাহানারা আলম

জাহানারা আলম

  • Font increase
  • Font Decrease

নারীদের আইপিএলে অংশ নিতে বুধবার, ২১ অক্টোবর বাংলাদেশের দুই ক্রিকেটার সালমা খাতুন ও জাহানারা আলম দুবাইয়ে যাচ্ছেন। আইপিএলে এটা সালমা খাতুনের অভিষেক আসর। তবে পেসার জাহানারা আলম গেল মৌসুমে ভেলোসিটি দলের হয়ে খেলেছিলেন। বেশ ভালো পারফরম্যান্স করেছিলেন। সেই টুর্নামেন্টের সেরা ডেলিভারি দেওয়া বোলারের স্বীকৃতি জিতেছিলেন তিনি। যদিও সেই দফার ফাইনালে তার দল ভেলোসিটি হেরে যায়। তবে জাহানারা তার ব্যক্তিগত কৃতিত্বে টুর্নামেন্টে চমক দেখান। সেই পারফরম্যান্সের কারণেই ভেলোসিটি এবারও বাংলাদেশি এই পেসারকে দলে রেখেছে।

এবারের টুর্নামেন্টে খেলতে যাওয়ার আগে জাহানারা আলম জানাচ্ছিলেন- ‘দ্বিতীয়বারের মতো আইপিএল খেলতে যাচ্ছি। আমি খুবই খুশি যে আমার আগের দল ভেলোসিটির হয়ে এবারও খেলব। গেলবারের অভিজ্ঞতা এবার কাজে লাগানোর চেষ্টা করব। নিজের চেষ্টার শতভাগ দিয়ে দলের জয়ে অবদান রাখার চেষ্টা চালাব।’

করোনাকালের এই কঠিন সময়টায়ও অনুশীলন এবং ক্রিকেট প্রস্তুতির ব্যবস্থা করে দেওয়ায় এই তারকা ক্রিকেটার বিসিবি'র প্রতি কৃতজ্ঞতা জানান- ‘প্রস্ততি বেশ ভালো হয়েছে। ক্রিকেট বোর্ড করোনাকালের এই কঠিন সময়টায় আমাদের সব ধরনের অনুশীলনের জন্য যে ব্যবস্থা নিয়েছে সেজন্য বোর্ডের প্রতি আমি ব্যক্তিগতভাবে কৃতজ্ঞতা জানাচ্ছি। ফ্লাডলাইটে অনুশীলনের সুযোগ পেয়েছি আমরা। বোলিং কোচের কাছ থেকেও আমরা অনেক নতুন কিছু শিখতে পেরেছি।’

আইপিএল আন্তর্জাতিক কোনো টুর্নামেন্ট না। কিন্তু শীর্ষ র‌্যাঙ্কিংয়ের এই টুর্নামেন্টে বিশ্বের তারকা খেলোয়াড়রা অংশ নেন। তাই এখান থেকে শেখার এবং অর্জনের অনেক কিছু আছে। সেই প্রসঙ্গে জাহানারা বলছিলেন- ‘আইপিএল অনেক বড় একটা প্ল্যাটফর্ম। এতো বড় আসরে খেলতে পারার সৌভাগ্যে সবার হয় না। আমি এক্ষেত্রে অনেক সৌভাগ্যবান। এই টুর্নামেন্টে বিশ্বের অনেক চ্যাম্পিয়ন তারকা খেলতে আসেন। তাদের সঙ্গে ব্যাট-বলের লড়াইয়ে চ্যালেঞ্জে নামার সুযোগ হয়। গেলবার ফাইনালে খেললেও আমরা চ্যাম্পিয়ন হতে পারিনি। এবার তেমন সুযোগ পেলে অবশ্যই শিরোপা জয়ের সুযোগ নষ্ট করব না।’

জাতীয় দলের স্পিন অলরাউন্ডার সালমা খাতুন আশা করছেন নিজের অভিষেক আসরেই তিনি এবারের আইপিএলে কৃতিত্বের স্বাক্ষর রাখতে সক্ষম হবেন। সালমা খাতুন এই আসরে খেলবেন ট্রেইলব্লেজার দলের হয়ে। বাংলাদেশ জাতীয় দলের সাবেক এ অধিনায়ক বলেন- ‘এত বড় আসরে খেলতে পারার তো অন্যরকম একটা আনন্দ আছেই। চেষ্টা করব নিজের পারফরম্যান্স দিয়ে দলের সাফল্যে অবদান রাখতে। প্রস্তুতি ভালোই হয়েছে। আমি খুলনার মেয়ে। এই করোনাকালে শুরুতে খুলনায় বিসিবি'র তত্ত্বাবধানে অনুশীলন করেছি। নিজেকে প্রস্তুত করেছি। তারপর ঢাকায় এসেও অনুশীলন এবং ফিটনেসে মনোযোগ দিয়েছি।’

সংযুক্ত আরব আমিরাতে নারীদের আইপিএলে শুরু হবে ১ নভেম্বর। চলবে ১০ নভেম্বর পর্যন্ত। এবারের আসরে অংশ নিচ্ছে মাত্র তিনটি দল।