আইপিএল বন্ধ করতে হাইকোর্টে পিটিশন



স্পোর্টস ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
আদালতে গড়াল আইপিএল বন্ধের আর্জি

আদালতে গড়াল আইপিএল বন্ধের আর্জি

  • Font increase
  • Font Decrease

ভারতের করোনা পরিস্থিতি এখন খুবই ভয়াবহ। করোনাভাইরাসে সংক্রমণ আর মৃত্যুর হার দিন দিন রেকর্ড ভেঙে চলেছে। গোটা দেশ যেন মৃত্যুপুরীতে পরিণত হয়েছে।

চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে বেড পাওয়া যাচ্ছে না। শেষকৃত্যের জন্য শ্মশানে পাওয়া যাচ্ছে না জায়গা। মুমূর্ষু রোগীর জন্য আইসিইউ বেড আর অক্সিজেনের জন্য চলছে হাহাকার। ওষুধ আর চিকিৎসা সামগ্রীর দাম আকাশচুম্বী।

দেশের এমন করুণ পরিস্থিতিতে আইপিএল চালিয়ে যাওয়াটা অনেকেই ভালো চোখে দেখছেন না। তাই গণমাধ্যম ও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে অনেকেই আইপিএলের বিরুদ্ধে মতামত দিয়েছেন। এখনো দিয়ে চলেছেন। কিন্তু তারপরও বন্ধ হচ্ছে না আইপিএল।

ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড (বিসিসিআই) সে পথে হাঁটতে নারাজ। দেশের মহাবিপর্যয়ের সময়ে আইপিএল চালিয়ে যাওয়ার পক্ষে এখনো তারা। যদিও করোনাভাইরাস হানা দিয়েছে আইপিএলের শিবিরে। চেন্নাই সুপার কিংস ও কলকাতা নাইট রাইডার্সের ক্রিকেটার, কর্মকর্তা ও স্টাফ মিলিয়ে পাঁচজন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন।

রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালুরুর বিপক্ষে কলকাতার ম্যাচ স্থগিত হয়ে গেছে। দিল্লির ক্রিকেটাররা রয়েছেন এখন আইসোলেশনে। আজকের (মঙ্গলবার, ৪ মে) ম্যাচকে সামনে রেখে সানরাইজার্স হায়দরাবাদ ও মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স করোনা সংক্রমণের ভয়ে অনুশীলনই করেনি। কিন্তু তারপরও বন্ধ হচ্ছে না আইপিএল।

শেষমেষ উপায়ান্তর না দেখে আইপিএল বন্ধের জন্য হাইকোর্টের দ্বারস্থ হয়েছেন দু'জন আইনজীবী। আইনজীবী করন এস ঠকরাল ও ইন্দর মোহর সিং পিটিশনে প্রশ্ন ছুঁড়ে দিয়েছেন, দেশের এই অতিমারির মধ্যেও কেন আইপিএল চলছে?

পিটিশনের এখনো শুনানি হয়নি। আগামীকাল বুধবার, ৫ মে হাইকোর্ট ডিভিশন বেঞ্চে পিটিশনের শুনানি হবে।

পিটিশনে ভারতের কেন্দ্রীয় সরকার, ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড বিসিসিআই, আইপিএল গভর্নিং কাউন্সিল, দিল্লি ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশন ও দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়ালকে অভিযুক্ত করেছেন করন ঠকরাল ও মোহর সিং।