নিউজিল্যান্ড সফরের দলে শরিফুল



স্পোর্টস ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
শরিফুল ইসলাম

শরিফুল ইসলাম

  • Font increase
  • Font Decrease

নিউজিল্যান্ড সফরের জন্য ১৮ সদস্যের টেস্ট দল ঘোষণা করেছে বাংলাদেশ। লাল-বলের দলে ফিরেছেন শরিফুল ইসলাম। দলে আছেন সাকিব আল হাসান।

শোনা যাচ্ছিল, নিউজিল্যান্ড সফরে খেলতে চান না সাকিব আল হাসান। গুঞ্জনটা মিথ্যা প্রমাণিত হলো অবশেষে। কেননা বিশ্বসেরা এ অলরাউন্ডারকে রেখেই দল ঘোষণা করেছে বিসিবি।

পাকিস্তানের বিপক্ষে দ্বিতীয় টেস্টের টাইগার স্কোয়াডের প্রায় সবাই কিউই সিরিজে ডাক পেয়েছেন। অভিষেক হওয়া মাহমুদুল হাসান জয় দলে নিজের জায়গা ধরে রেখেছেন। তবে ছিটকে গেছেন রেজাউর রহমান রাজা ও নাঈম হাসান। সাইফ হাসান তো আগেই মাঠের বাইরে চলে গেছেন টাইফয়েড জ্বরে আক্রান্ত হয়ে।

পাকিস্তানের বিপক্ষে দ্বিতীয় টেস্ট শেষ করে ৯ ডিসেম্বর নিউজিল্যান্ডের ফ্লাইট ধরবে টাইগাররা। সফরে খেলবে দুটি টেস্ট। ১ জানুয়ারি তাউরাঙ্গায় শুরু হবে প্রথম টেস্ট। ক্রাইস্টচার্চে দ্বিতীয় টেস্ট মাঠে গড়াবে ৯ জানুয়ারি।

বাংলাদেশ দল: মুমিনুল হক (অধিনায়ক), শাদমান ইসলাম, নাজমুল হোসেন শান্ত, মুশফিকুর রহিম, সাকিব আল হাসান, লিটন কুমার দাস, নুরুল হাসান সোহান, ইয়াসির আলী রাব্বি, মেহেদী হাসান মিরাজ, তাইজুল ইসলাম, তাসকিন আহমেদ, আবু জায়েদ চৌধুরী, এবাদত হোসেন, শরিফুল ইসলাম, সৈয়দ খালেদ আহমেদ, শহীদুল ইসলাম, মাহমুদুল হাসান জয় ও মোহাম্মদ নাঈম শেখ।

দেশের হয়ে টি-টোয়েন্টিতে খেলতে চায় না তামিম: পাপন



স্পোর্টস ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
তামিম ইকবাল

তামিম ইকবাল

  • Font increase
  • Font Decrease

আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টিতে লাল-সবুজের জার্সি গায়ে আর খেলতে চান না তামিম ইকবাল। এমনটাই জানিয়েছেন বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন। ক্রিকেটের সংক্ষিপ্ততম সংস্করণে ফেরার জন্য জোর না করতেও বোর্ড প্রধানের কাছে অনুরোধ করেছেন বাংলাদেশের সেরা এ ওপেনার।

তামিমের সঙ্গে কথোপকথন নিয়ে বিসিবি'র বোর্ড সভাপতি বলেন, 'ওর সাথে আমি কথা বলেছি। বলতে গেলে... ওকে বলেছিলামও, তুমি আবার টি-টোয়েন্টিতে ফিরে আসো। এটা ছাড়বে কেন? তুমি আমাদের সেরা ওপেনার। অবশ্যই তোমার থাকা উচিত।'

পাপন একটু জোর দিয়ে বললেই টি-টোয়েন্টিতে ফিরবেন তামিম। তেমন আভাস দিয়েছেন দেশের অন্যতম সেরা এ ক্রিকেটার। তবে এমনটা হোক চান না তামিম। আর কখনো টাইগার টিমের হয়ে খেলতে চান না সাদা বলের ক্রিকেটের ছোট্ট সংস্করণে, "টেলিফোনে কথা হয়েছিল। ও আমাকে একটা কথা বলেছে, ‘আপনি আমাকে জোর করবেন না। আপনি বললে তো আমাকে আসতেই হবে। কিন্তু আমি আসলে এই ফরম্যাটে খেলতে চাই না'।" 

টি-টোয়েন্টিতে খেলতে তামিমকে আর জোর করতে চান না বাংলাদেশ ক্রিকেটের প্রধান কর্তা, 'এটা বলার পর আমার মনে হয়েছে, ওকে আর কিছু বলা উচিত না। কেউ যদি খেলতেই না চায়, তাকে জোর করে একটা ফরম্যাটে খেলানো ঠিক না।' 

;

টাইগার যুবাদের জয়ের লক্ষ্য ১৪৯



স্পোর্টস ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
জুনিয়র টাইগাররা

জুনিয়র টাইগাররা

  • Font increase
  • Font Decrease

অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপের গ্রুপ পর্বে নিজেদের তৃতীয় ও শেষ ম্যাচে বাংলাদেশের বিপক্ষে ৪৮.১ ওভারে ১৪৮ রানের পুঁজি গড়েছে সংযুক্ত আরব আমিরাত।

ব্যাট হাতে দাপট দেখিয়েছেন পুনিয়া মেহরা। খেলেন ৪৩ রানের দুরন্ত এক ইনিংস। ধ্রুব পরাশরের ব্যাট থেকে আসে ৩৩ রান। ক্যাপ্টেন আলিশান শারাফু এনে দেন ২৩ রান।

বাংলাদেশের হয়ে তিন উইকেট শিকার করেন রিপন মন্ডল। দুটি করে উইকেট নেন আশিকুর জামান ও তানজিম হাসান সাকিব।

তার আগে সেন্ট কিটসের ওয়ার্নার পার্কে টস জিতে ফিল্ডিং বেছে নেয় জুনিয়র টাইগাররা।

;

মিরাজের প্রথম জয়, রিয়াদের টানা দ্বিতীয় হার



স্পোর্টস ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
৯ রান দিয়ে ৩ উইকেট নেন নাসুম আহমেদ

৯ রান দিয়ে ৩ উইকেট নেন নাসুম আহমেদ

  • Font increase
  • Font Decrease

লক্ষ্যটা ছিল প্রথম জয় ছিনিয়ে নেওয়ার। স্বপ্নটা সত্যি হওয়ার আভাসও মিলেছিল। তামিম ইকবাল হাঁকালেন দারুণ এক ফিফটি। কিন্তু বাকি ব্যাটসম্যানটা লিখলেন ব্যর্থতার গল্প। ফলে ফল যা হওয়ার তাই হলো। ম্যাচসেরা নাসুম আহমেদের কিপ্টেমি বোলিংয়ে চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্সের কাছে ৩০ রানে হার মানল মিনিস্টার গ্রুপ ঢাকা। এনিয়ে টানা দুই ম্যাচে ধরাশায়ী হলো ক্যাপ্টেন মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের দল। আর অধিনায়ক মেহেদী হাসান মিরাজের দল পেল প্রথম জয়।

এবারের বিপিএলে এই প্রথম পরে ব্যাটিং করা দল হারের তেতো স্বাদ হজম করল। এর আগে টস জিতে বোলিং বেছে নেয়া তিন দলই জয়ের দেখা পেয়েছে। দ্বিতীয় দিনে এসে পেল না শুধু ঢাকা।

দুর্দান্ত পারফরম্যান্সে টানা দুই ম্যাচে অর্ধ-শতকের দেখা পেলেন তামিম। দেশসেরা এ ওপেনার ৪৫ বলে ৬ বাউন্ডারি ও ২ ছক্কায় পেলেন ৫২ রানের দারুণ এক ক্রিকেটীয় ইনিংস। কিন্তু বাকি ব্যাটসম্যানদের ব্যর্থতায় ঢাকা ১৯.৫ ওভারেই গুটিয়ে ১৩১ রানে।

শেষ দিকে ইসুরু উদানা (১৬) ও শুভাগত হোম (১৩) চেষ্টা করেও দলকে লক্ষ্যে পৌঁছে দিতে পারেননি। আর আন্দ্রে রাসেল তো হতাশ করেন ১২ রান নিয়ে সাজঘরে ফিরে। চট্টগ্রামের জার্সি গায়ে কিপ্টেমি বোলিংয়ে ৯ রানে ৩ উইকেট নেন নাসুম আহমেদ। শরিফুল ইসলাম ৩৪ রান খরচায় নেন ৪ উইকেট।

একটি অলিখিত নিয়ম যেন হয়ে যাচ্ছে এবারের বিপিএলে। দিনের প্রথম ম্যাচে রান হবে না। কিন্তু দ্বিতীয় ম্যাচে ছুটবে রানের ফোয়ারা। আসরের আজ দ্বিতীয় দিনের প্রথম ম্যাচে সিলেট সিক্সার্স গুটিয়ে গেল ৯৬ রানে। কিন্তু দ্বিতীয় ম্যাচে এসেই ব্যাটিংয়ের চিত্রনাট্যটা পাল্টে যায়। জয়ের জন্য মিনিস্টার গ্রুপ ঢাকার সামনে ১৬২ রানের চ্যালেঞ্জিং স্কোর ছুঁড়ে দেয় চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স।

মিরপুরের শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে দুরন্ত ব্যাটিং করলেন উইল জ্যাক। তবে ৯ রানের জন্য অর্ধ-শতক মিস করেন এ ইংলিশ ওপেনার। ২৪ বলে ৬ বাউন্ডারি ও ২ ছক্কায় খেলেন ৪১ রানের দারুণ এক ইনিংস।

শেষ দিকে ৩৭ রান যোগ করেন বেনি হাওয়েল। সাব্বির রহমান ও মেহেদী হাসান মিরাজ এনে যথাক্রমে ২৯ ও ২৫ রান। এতেই নির্ধারিত ২০ ওভারে ৮ উইকেট হারিয়ে চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স গড়ে ১৬১ রানের লড়াকু স্কোর। ঢাকার জার্সি গায়ে একাই তিন উইকেট শিকার করেন রুবেল হোসেন। একটি করে উইকেট নেন আরাফাত সানি, ইসুরু উদানা, শুভাগত হোম ও মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ।

;

জয়ের জন্য ঢাকার দরকার ১৬২



স্পোর্টস ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
উইল জ্যাকস

উইল জ্যাকস

  • Font increase
  • Font Decrease

একটি অলিখিত নিয়ম যেন হয়ে যাচ্ছে এবারের বিপিএলে। দিনের প্রথম ম্যাচে রান হবে না। কিন্তু দ্বিতীয় ম্যাচে ছুটবে রানের ফোয়ারা। আসরের আজ দ্বিতীয় দিনের প্রথম ম্যাচে সিলেট সিক্সার্স গুটিয়ে গেল ৯৬ রানে। কিন্তু দ্বিতীয় ম্যাচে এসেই ব্যাটিংয়ের চিত্রনাট্যটা পাল্টে গেল। জয়ের জন্য মিনিস্টার গ্রুপ ঢাকার সামনে ১৬২ রানের চ্যালেঞ্জিং স্কোর ছুঁড়ে দিয়েছে চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স।

মিরপুরের শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে দুরন্ত ব্যাটিং করলেন উইল জ্যাক। তবে ৯ রানের জন্য অর্ধ-শতক মিস করেন এ ইংলিশ ওপেনার। ২৪ বলে ৬ বাউন্ডারি ও ২ ছক্কায় খেলেন ৪১ রানের দারুণ এক ইনিংস।

শেষ দিকে ৩৭ রান যোগ করেন বেনি হাওয়েল। সাব্বির রহমান ও মেহেদী হাসান মিরাজ এনে যথাক্রমে ২৯ ও ২৫ রান। এতেই নির্ধারিত ২০ ওভারে ৮ উইকেট হারিয়ে চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স গড়ে ১৬১ রানের লড়াকু স্কোর।

ঢাকার জার্সি গায়ে একাই তিন উইকেট শিকার করেন রুবেল হোসেন। একটি করে উইকেট নেন আরাফাত সানি, ইসুরু উদানা, শুভাগত হোম ও মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ।

;