দিনভর চমক নিয়ে প্রতীক্ষায় ইডেন

আপন তারিক, স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট, বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম, কলকাতা (ভারত) থেকে
ইডেন যেন কনে পক্ষের বাড়ি/ ছবি: সংগৃহীত

ইডেন যেন কনে পক্ষের বাড়ি/ ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

খ্রিষ্টাব্দ ১৮৬৪, পথচলা শুরু। তারপর কিছু তারিখ সোনার অক্ষরে লেখা হয়ে আছে। শুরুতে মাঠটির নাম ছিল ‘অকল্যাণ্ড সার্কাস গার্ডেন্স’। বাইবেলের গার্ডেন অব ইডেন থেকে অনুপ্রাণিত হয়ে নাম রাখা হয়-‘ইডেন গার্ডেন্স’! ভারতের সবচেয়ে পুরনো এই ক্রিকেট ভেন্যুতে প্রথম টেস্ট ম্যাচ বসেছিল ১৯৩৪ সালে।

প্রথম শ্রেণীর ক্রিকেট অনুষ্ঠিত হয়েছে আরো আগে, ১৯১৭-১৮ সালে। তারপর টেস্টের পথচলা শুরু ১৯৩৪ সালে। ভারত- ইংল্যান্ডের সেই লড়াইয়ের পর পরের টেস্ট ম্যাচের জন্য অপেক্ষা করতে হয়েছে প্রায় ১৫ বছর। ১৯৪৯ সালে ওয়েস্ট ইন্ডিজের সঙ্গে লড়াইয়ের পর ব্যস্ত সময় কেটেছে ইডেনের। টেস্টের পাশাপাশি বিশ্বকাপ ম্যাচেও সমৃদ্ধ হয়েছে ইডেন।

শুক্রবার, ২২ নভেম্বর সেই সাফল্যের পালকে যুক্ত হবে নতুন আরেক অধ্যায়। নৈশালোকে প্রথমবারের মতো ভারতবর্ষে টেস্ট ম্যাচ। শুধু ভারতবর্ষ কেন, দক্ষিণ এশিয়াতেই প্রথমবারের মতো দিন-রাতের টেস্ট! ভারত-বাংলাদেশ প্রথমবারের মতো খেলতে নামবে গোলাপি বলের টেস্ট ম্যাচে।

পাঁচদিনের এই লড়াইয়ের চারদিনের টিকিট চলে গেছে ক্রিকেটপ্রেমীদের হাতে! টিকিট নিয়ে এখন হাহাকার গোটা কলকাতায়। টেস্ট ম্যাচকে ঘিরে এমন উন্মাদনায় বিস্মিত ক্রিকেট বিশ্লেষকরা। ভারত-পাকিস্তান দ্বৈরথও যেন হার মেনেছে। কলকাতার যেখানেই যাচ্ছি- এই টেস্ট ম্যাচ নিয়ে চলছে চর্চা। হোটেলের রিসেপশন কর্মী থেকে শুরু করে ট্যাক্সি ড্রাইভার, সবাই যেন এমন ইতিহাসের সঙ্গী হতে মরিয়া।

মাঠের প্রস্তুতি ঘুরে দেখছেন সৌরভ গাঙ্গুলী/ছবি: সংগৃহীত 

আর পশ্চিমবঙ্গ ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশনও (সিবিএ) ম্যাচটা মনে রাখার মতো করে রাখতে রাত-দিন পরিশ্রম করে গেছে। ইডেন যেন কনে পক্ষের বাড়ি। বাহারি ফুল আর ডিজাইনে সেজে প্রস্তুত। আজ শুক্রবার দুপুর একটায় এখানে মাঠে নামবেন বিরাট কোহলি আর মুমিনুল হকরা।

দিনভরই থাকছে নানা আয়োজন। উদ্বোধনী দিনের পুরোটাতেই চমক রাখছে সিএবি।

কোহলি-মুমিনুল টস করার আগেই শুরু হয়ে যাবে কর্মযজ্ঞ। শুরুতেই কলকাতা পুলিশের ব্যান্ড শো। তারপরই বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ভিআইপি বক্স থেকে নেমে আসবেন মাঠে। দুই দলের ক্রিকেটারদের সঙ্গে পরিচিত হবেন।

এরপর বিশেষ সোনার কয়েনে হবে গোলাপি বল টেস্টের টস।

বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের অমর গানে এক হবে দুই দেশ। বেজে উঠবে জাতীয় সঙ্গীত। অর্কেস্ট্রার যন্ত্রসঙ্গীতের মূর্ছনা ছড়িয়ে পড়বে ইডেন উদ্যান থেকে টেকনাফ-তেঁতুলিয়া আর কাম্মীর-কন্যাকুমারি জুড়ে।

যন্ত্রসঙ্গীতের আয়োজন রয়েছে ইডেন উদ্যানে/ ছবি: সংগৃহীত

এই পর্ব শেষ হতেই ইডেনের সেই বিখ্যাত ঘণ্টা বাজিয়ে পিঙ্ক বল টেস্টের উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আর পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। পুরোটা সময় জুড়ে পাশে থাকবেন সৌরভ গাঙ্গুলী, বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন।

তারপর স্থানীয় সময় একটায় শুরু হবে আলোচিত গোলাপি বলের দিবা-রাত্রির টেস্ট।

জানা গেছে মধ্যাহ্ন বিরতিতে থাকবে আরেক চমক। শচীন টেন্ডুলকার, ভিভিএস লক্ষ্মণ, রাহুল দ্রাবিড়, বীরেন্দ্র শেবাগ আর সৌরভ গাঙ্গুলী মিলে করবেন অন্যরকম এক টক শো। কিংবদন্তির সেই আড্ডায় উঠে আসবে কতশত প্রসঙ্গ।

ভারত-বাংলাদেশ টেস্ট ম্যাচকে ঘিরে থাকছে নানা আয়োজন/ছবি: সংগৃহীত

আলোচিত এই টেস্টে চমক এখানেই শেষ নয়। চা বিরতির পর থাকবে গান-বাজনাও।

তারপরই ২০০০ সালে বাংলাদেশের অভিষেক টেস্টে খেলা ক্রিকেটারদের নিয়ে একটি গাড়ি প্রদক্ষিণ করবে ইডেনের মাঠ। বাংলাদেশের অভিষেক দলের নাইমুর রহমান দুর্জয়, আকরাম খান, শাহরিয়ার হোসেন বিদ্যুৎ, মেহরাব হোসেন অপি, ফাহিম মুন্তাসির সুমিত, মোহাম্মদ রফিক, এনামুল হক মনি, বিকাশ রঞ্জন দাস, জাভেদ ওমর বেলিম, হাসিবুল হোসেন শান্ত, রাজিন সালেহ ও মঞ্জরুল ইসলাম হাজির থাকবেন মাঠে। তবে থাকছেন না আমিনুল ইসলাম বুলবুল ও আল শাহরিয়ার রোকন। হাজির থাকা ক্রিকেটাররা পাবেন বিশেষ স্যুভেনিয়র।

এরই ফাঁকে এগিয়ে যাবে মাঠের লড়াই। তবে দিনের খেলা শেষ হতেই থাকবে আরেক চমক। সঙ্গীতের যাদুতে মুগ্ধ হয়েই ঘরে ফিরবেন সবাই। ৬০ হাজার দর্শকের সামনে গান পরিবেশন করবেন বাংলাদেশের কিংবদন্তি গায়িকা রুনা লায়লা। সঙ্গে কলকাতার জিৎ গাঙ্গুলি। সেই গানের রেশ নিয়েই শেষ হবে ইডেনের পিঙ্ক বল টেস্টের প্রথম দিন!

আপনার মতামত লিখুন :