শেষ ওভারের নাটকে কুমিল্লা ওয়ারিয়র্সের জয়

স্পোর্টস এডিটর, বার্তা২৪.কম
মালানের ব্যাটে দারুণ এক জয় কুমিল্লার

মালানের ব্যাটে দারুণ এক জয় কুমিল্লার

  • Font increase
  • Font Decrease

শেষ ওভারের পুরোটাই হলো নাটকীয়। একসময় মনে হচ্ছিল জিতে যাচ্ছে চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স। খানিকবাদেই আবার ম্যাচের পাল্লা কুমিল্লা ওয়ারিয়র্সের দিকে। শেষ ওভারের দারুণ উত্তেজনাপূর্ণ সেই ম্যাচ শেষমেশ জিতল কুমিল্লা, তাও আবার শেষ বলে!

শেষ বলে জিততে কুমিল্লার চাই ৩ রান। নতুন ব্যাটসম্যান মুজিব-উর-রহমান চট্টগ্রামের পেসার লিয়াম প্লাঙ্কেটকে বাউন্ডারি হাঁকিয়ে কুমিল্লাকে ম্যাচ জেতালেন ৩ উইকেটে।

বঙ্গবন্ধু বিপিএলে এই প্রথম কোন ম্যাচে সত্যিকার অর্থে ক্রিকেটীয় উত্তেজনার স্বাদ পাওয়া গেল।

শেষ ওভারের শেষ বলে জয়ী এই ম্যাচে কিন্তু একসময় কুমিল্লা ওয়ারির্য়স বেশ ভাল অবস্থানে ছিল। শেষ ১৮ বলে জিততে তাদের প্রয়োজন দাড়ায় ২৫ রানের। কিন্তু ইনিংসের ১৮ নম্বর ওভারে রুবেল হোসেনের দুর্দান্ত বোলিংয়ে নাটকীয় ভঙ্গিতে ম্যাচে ফিরে চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স। মাত্র ১ রান দিয়ে রুবেল সেই ওভারে ২ উইকেট তুলে নেন। মেহেদি হাসানের পরের ওভার থেকে খরচ হলো ৮ রান।

শেষ ওভারে চাই ১৬ রান। ব্যাটিংয়ে দাউদ মালান ও আবু হায়দার রনি। দ্বিতীয় বলে বাউন্ডারি হাঁকালেন রনি। তৃতীয় বলে ছক্কা। চতুর্থ বলে একটি লেগবাই। পঞ্চম বলে এক রান নিলেন শেষমেষ সেই হিসেব গিয়ে দাড়াল ১ বলে চাই ৩ রান। তাহলেই কুমিল্লা ওয়ারিয়র্স জিতবে। আর দুই রান হলে ম্যাচ টাই হয়ে গড়াবে সুপার ওভারে। নতুন ব্যাটসম্যান হিসেবে মাঠে নেমেই বাউন্ডারি হাঁকিয়ে দলকে দারুণ প্রয়োজনীয় জয়টা এনে দিলেন আফগান স্পিনার মুজিব-উর-রহমান।

খাদের কিনারায় দাড়িয়েছিল কুমিল্লা ওয়ারিয়র্স। সেই বিপদ থেকে দলকে আপাতত উদ্ধার করলেন অধিনায়ক দাউদ মালান। ৫১ বলে ৪ ছক্কা ও ৫ বাউন্ডারিতে ৭১ রান করে মালান এই ম্যাচের সেরা খেলোয়াড়।

চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্সকে ৩ উইকেটে হারানোর এই ম্যাচে অবশ্য এখনো কুমিল্লার সঙ্কট কাটেনি। কিন্তু একটা দিক অন্তত তারা ফিরে পেয়েছে। এখনো শেষ চারে তাদের পৌছানোর পথ অনেক বাকি। কিন্তু টেবিলের শীর্ষে থাকা চট্টগ্রামকে হারিয়ে কুমিল্লা ওয়ারির্য়স অন্তত এক কদম তো সামনে বাড়তে পারল!

৩ উইকেটের জয়ে কুমিল্লা ওয়ারির্য়সের সেটাই সবচেয়ে বড় স্বস্তি। এই ম্যাচে চট্টগ্রামের তোলা ১৫৯ রানের পিছু তাড়া করতে নামা কুমিল্লা ওয়ারির্য়সের পথ চলা খুব একটা মসৃণ ছিল না। ১০ ওভারের মধ্যে ৭০ রানে তিন উইকেট হারায় কুমিল্লা। তবে দলকে জয়ের পথ দেখান অধিনায়কের দায়িত্ব পাওয়া দাউদ মালান। চট্টগ্রাম পর্বে ৫৪ বলে সেঞ্চুরি পাওয়া এই ইংলিশ ব্যাটসম্যানের ৭১ রানের ঝলমলে হাফসেঞ্চুরি কুমিল্লাকে টুর্নামেন্টের তৃতীয় জয় এনে দিল।

সংক্ষিপ্ত স্কোর: চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স: ১৫৯/৬ (২০ ওভারে, সিমন্স ৫৪, জুনায়েদ ৪৫, জিয়াউর ৩৪, সৌম্য ২/২০, সানজামুল ১/৩৩, ভিসা ১/২৬)। কুমিল্লা ওয়ারিয়র্স: ১৬১/৭ (২০ ওভারে, মালান ৭১, আবু হায়দার ১২, মেহেদি হাসান ১/৩১, বার্ল ১/৯)। ফল: কুমিল্লা ওয়ারিয়র্স ৩ উইকেটে জয়ী। ম্যাচসেরা: দাউদ মালান।

আপনার মতামত লিখুন :