সিলেট স্টেডিয়ামের এক মুঠো মাটি নেবেন মাশরাফির বাবা

স্পোর্টস এডিটর, বার্তা২৪.কম
ক্যাপ্টেন মাশরাফি বিন মর্তুজা ও তার বাবা গোলাম মর্তুজা

ক্যাপ্টেন মাশরাফি বিন মর্তুজা ও তার বাবা গোলাম মর্তুজা

  • Font increase
  • Font Decrease

একেক জনের আবেগের ছটা একেক রকম। মাশরাফি অধিনায়ক হিসেবে খেলছেন তার শেষ আন্তর্জাতিক ম্যাচ। আর তাই সেই বিদায় লগ্নে সামিল হতে সিলেট আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামেই আজ বাংলাদেশ ক্রিকেটের সবচেয়ে বড় খবর। সেখানেই আজ সব নজর!

মাশরাফির অধিনায়কত্বের শেষ সেই ম্যাচ দেখতে তার ছোট ভাই মোরসালিন আগের দিনই সিলেট চলে এসেছেন। সকালের ফ্লাইটে মাশরাফির বাবা গোলাম মর্তুজা আসছেন।

মাঠে বসে ছেলের অনেক ম্যাচ দেখেছেন গোলাম মর্তুজা। মাঠে যাওয়ার আগে হোটেলে ছেলের চুল আঁচড়ে দেওয়ার মতো আদুরে আবেগও আছে তার। বার্তা২৪.কম এর সঙ্গে আলাপে গোলাম মর্তুজা বলছিলেন- ‘আমি তো তার সেই প্রথম দিনের খেলাও মাঠে বসে দেখেছি। বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে যেদিন প্রথম জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে মাঠে নামল সেদিনের সবকিছুই আমার এখনো স্পষ্ট মনে আছে। ও মাঠে বোলিং করতে দৌড়াচ্ছে। আমরা গ্যালারিতে বসে খেলা দেখছি। আজ শেষবারের মতো (অধিনায়ক হিসেবে) মাঠে নামছে, সেটা আমি টিভির সামনে বসেও দেখতে পারতাম। কিন্তু আমি মূলত এই ম্যাচ দেখতে যাচ্ছি অন্য এক কারণে। আমি সিলেট স্টেডিয়াম থেকে একমুঠো মাটি নিয়ে ফিরব। এই দুই স্টেডিয়ামের (বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়াম ও সিলেট আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়াম) এক মুঠো মাটি আমি সঙ্গে করে নিয়ে যাব। নড়াইলের বাসার ড্রইং রুমে রাখব সেই মাটি।’

নড়াইলের মহিষখালির দোতলার বাসার ড্রইং রুমে মাশরাফির অনেক ছবি এবং ক্রিকেটীয় স্মৃতি, ট্রফি, ব্যাটের বাহার। সেই স্মৃতিফলকের পাশে মাশরাফির শুরুর এবং অধিনায়ক হিসেবে শেষ মাঠের মাটিও থাকবে।

আর ক্যারিয়ারের পেছনের ১৯ বছর ধরে মাশরাফি যে ছাপ, যে কীর্তি রেখে গেছেন সেই কারিশমাই তাকে অনন্য এক মর্যাদার আসন দিচ্ছে- ‘ম্যান অব বাংলাদেশ ক্রিকেট!’

আপনার মতামত লিখুন :