নোকিয়া স্মার্টফোনে জেমস বন্ড!



নিউজ ডেস্ক
ছবি সংগৃহীত।

ছবি সংগৃহীত।

  • Font increase
  • Font Decrease

স্মার্টফোন এসে দখলে নিয়েছে অনেক কিছুই। হাত থেকে ঘড়ি উধাও হয়েছে, টেবিলে নেই অ্যালার্ম ক্লক। নোট বুক, ডায়েরি, ক্যালেন্ডার, ক্যালকুলেটর, ফোন ডিরেক্টরি এই সব কিছুকে সরিয়ে জায়গা করে নিয়েছে স্মার্টফোন। এতো গেল পুরনো কথা, নতুন খবর অবাক করবে আপনাকে।

নোকিয়ার প্রস্তুতকারী প্রতিষ্ঠান এইচএমডি গ্লোবালের সঙ্গে জেমস বন্ড সিরিজের ২৫তম চলচ্চিত্র ‘নো টাইম টু ডাই’- এর পার্টনারশিপের মাধ্যমে আমরা পাচ্ছি চমৎকার এক সংবাদ। আসন্ন বন্ড মুভি ‘নো টাইম টু ডাই’-এ নোমি চরিত্রে অভিনয় করেছেন ব্রিটিশ অভিনেত্রী লাশানা লিঞ্চ। আর নোকিয়া ৮.৩ ৫জি মডেল ব্যবহার করে তারই ফটোশুট করেছেন সোশ্যাল মিডিয়া ‘ফোনোগ্রাফার’ বেন ম্যাকলিন। নতুন এই ফোনটির ক্যামেরা কতটা শক্তিশালী তার প্রমাণ মেলে ফটোশুটে বেন-এর ধারণকৃত ছবিগুলো থেকে।

ছবি তোলায় নানামুখী সৃজনশীলতার জন্য সোশ্যাল মিডিয়ায় সুপরিচিত ফোনোগ্রাফার বেন। তার রয়েছে প্রায় পাঁচ লাখ ফলোয়ার। এই ফটোশুটে তিনি লাশানা লিঞ্চের সঙ্গে সামনে নিয়ে এসেছেন নোকিয়া ৮.৩ ৫জি সেটটিকে। বন্ড অনুপ্রাণিত একটি দৃশ্যে বেন ধারণ করেছেন দুর্দান্ত একটি শট। যেখানে দারুণ সব এফেক্টের মাঝে নোমিকে ক্যামেরায় তুলে আনতে ৩০ ফুট এক রিগের সাহায্যে বেন ঝুলে থেকেছেন শূন্যে!

শুধু একটি নয়, বেশ কয়েকটি নোকিয়া ফোনের ব্যবহার হয়েছে এই মুভিতে। এদের মাঝে নোকিয়া ৮.৩ ৫জি-এর নাম প্রযুক্তির ইতিহাসের পাতায় জ্বলজ্বল করবে বলে ধারণা করা হচ্ছে। কারণ, এই মডেলে রয়েছে উচ্চ ক্ষমতা সম্পন্ন পিওরভিউ কোয়াড ক্যামেরার সঙ্গে জেইস লেন্স। হাই রেজুলেশন প্রফেশনাল ইমেজ এখন আপনার হাতের মুঠোয়।

নো টাইম টু ডাই সিনেমায় জিরো জিরো এজেন্ট নোমি চরিত্রে অভিনয় করা লাশানা লিঞ্চ বলেন, ‘বর্তমান সময়ে আমরা চাই পুরো বিশ্ব থাকুক আমাদের গ্যাজেটে। স্মার্টফোন জীবনকে করেছে বিস্ময়কর রকমের সহজ। নোকিয়ার নতুন এই স্মার্টফোনের ফিচারে আমি মুগ্ধ। নভেম্বরে নো টাইম টু ডাইয়ের মুক্তি উদযাপনে এই নতুন স্মার্টফোন উন্মোচন আমার জন্য একটি দারুণ অভিজ্ঞতা হবে বলে আমি মনে করি। নোকিয়া ৮.৩ ৫জি মডেল প্রমাণ করে, বন্ড গ্যাজেট মানেই সামনে জয় যাত্রায় এগিয়ে থাকা।’

নোকিয়ার নির্মাতা প্রতিষ্ঠান এইচএমডি গ্লোবালের সিইও ফ্লোরিয়ান স্যাশে বলেন, ‘বন্ড সিরিজ যেভাবে যুগ যুগ ধরে দর্শকের আকর্ষণের কেন্দ্রবিন্দুতে রয়েছে, ঠিক তেমনি প্রতিটি নোকিয়া স্মার্টফোনের সঙ্গে বিস্ময়কর প্রযুক্তি জুড়ে আমরা চেষ্টা করেছি স্মার্ট ফোন ব্যবহারকারীদের দারুণ অভিজ্ঞতা দিয়ে সাথে থাকতে। কারণ আমাদের এক মাত্র চাওয়া এই ডিভাইসটি যেন হয়ে ওঠে বন্ড সিরিজের চলচ্চিত্রের মতোই সব সময়ের জন্য জনপ্রিয়। এইচএমডি গ্লোবাল এবং জেমস বন্ড মুভি নো টাইম টু ডাই-এর অফিশিয়াল পার্টনারশিপের মাধ্যমে নতুন সর্বশেষ আধুনিক প্রযুক্তিকে সবার হাতের নাগালে নিয়ে আসতে পেরে আমি গর্বিত।’

মার্চ মাসে ঘোষণা হয়েছিল যে ২৫তম জেমস বন্ড মুভি নো টাইম টু ডাই-এর অফিশিয়াল পার্টনার হতে যাচ্ছে এইচএমডি গ্লোবাল। এই পুরো বিষয়টিই ছিল নোকিয়া ফোনের নির্মাতা এইচএমডি গ্লোবালের এ যাবতকালের সবচেয়ে বড় প্রচারণার অংশ।