নতুনত্ব আনছে ফুডপান্ডা



সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

ফুডপান্ডা ব্র্যান্ড রিফ্রেশের মাধ্যমে নিজেদের আরও আকর্ষণীয় রূপ দিয়েছে। চলতি এপ্রিল থেকেই বিশ্বের চার শ-রও বেশি শহরের ১২টি বাজারের ভোক্তারা ফুডপান্ডার মোবাইল এবং ওয়েব অ্যাপ্লিকেশনের ভিজ্যুয়াল ডিজাইন এবং ইউজার ইন্টারফেসে নতুনত্বের ছোঁয়া উপভোগ করছেন।

ইতিমধ্যে বাংলাদেশ, সিঙ্গাপুর আর কম্বোডিয়ায় রিফ্রেশটি চালু হয়ে গেছে। অচিরেই জাপান, হংকং, লাওস, মালয়েশিয়া, মিয়ানমার, পাকিস্তান, ফিলিপাইনস, তাইওয়ান এবং থাইল্যান্ডে এটি চালু হবে।

ফুডপান্ডার স্মাইলিং প্যান্ডা মাসকটটি রীতিমতো জনপ্রিয় আইকন। যার সাথে বর্তমানে আরও যুক্ত হয়েছে নতুন ডিজাইন, পান্ডা স্টিকার, প্যাটার্ন ও শেপ।

২০২১ সালের এপ্রিল থেকেই সব অনলাইন আর অফলাইন মাধ্যমে ফুডপ্যান্ডার ব্র্যান্ড রিফ্রেশটি দৃশ্যমান হবে।

নতুন হোমস্ক্রিন ‘বেন্টো’ যুক্ত হয়েছে ফুডপান্ডা অ্যাপে। যার সাহায্যে এখন আরও সহজে ও স্বাচ্ছন্দ্যে কাছের জনপ্রিয় সব রেস্টুরেন্টের খাবারের তালিকা দেখে নেওয়া যাবে। সাথে প্রমোশন, ডেলিভারি, পিক-আপ, শপস এবং পান্ডামার্টের মত সুবিধা সহজেই উপভোগ্য হবে।

ফুডপান্ডা ব্র্যান্ড রিফ্রেশের সিদ্ধান্ত এমন একটি সময়ে এসেছে, যখন প্রতিষ্ঠানটি তাদের ফুড ডেলিভারি ব্যবসায়ের সাফল্যকে কাজে লাগিয়ে কিউ-কমার্স বা কুইক কমার্সের জগতেও প্রবেশ করেছে। যার মধ্যে আছে ফুডপান্ডার জনপ্রিয় সব পণ্য বিক্রেতা প্রতিষ্ঠানের সাথে অংশীদারিত্বের মাধ্যমে পরিচালিত ব্যবসায় পান্ডামার্ট ক্লাউড স্টোর।

নিজেদের সুপরিচিত পান্ডা লোগোতে নতুনত্বের ছোঁয়া এবং নতুন রঙের সমন্বয়ে ফুডপান্ডার নতুন আবির্ভাব মূলত প্রতিষ্ঠানটির ভবিষ্যৎ মানোন্নত গ্রাহক সেবার প্রতিশ্রুতি।

লাখ লাখ ভোক্তাকে তাদের পছন্দ ও প্রয়োজনে সুস্বাদু খাবার এবং নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্য ডেলিভারি দিয়ে ফুডপান্ডা এশিয়া অঞ্চলে সাফল্য ও সুনাম অর্জন করেছে। বিশেষত করোনা সময়ে তাদের সেবা ছিল প্রশংসাযোগ্য।

অ্যাপটোপিয়া’র তথ্যানুযায়ী, ২০২০ সালে বিশ্বের সবচেয়ে বেশি ডাউনলোড করা ফুড ডেলিভারি অ্যাপের মধ্যে ফুডপান্ডার অবস্থান তৃতীয়।