ফোনে ভাইরাস আছে কি না বুঝবেন কিভাবে?



মহিউদ্দিন আহমেদ
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

আপনার ফোনে কোনো ভাইরাস আছে কি না তা কীভাবে বুঝবেন? মোবাইলে সাধারনত ভাইরাস আক্রমণ করেনা। তবে ম্যালওয়্যার আক্রমণ করতে পারে। যেটা আসলে মোবাইল ফোনের ভাইরাসই বলা চলে। আপনার কাছে অ্যান্ড্রয়েড স্মার্টফোন বা অ্যাপেলের আইফোন যাই থাকুক না কেন, সাইবার অপরাধীরা ক্ষতিকারক ভাইরাস ছড়িয়ে আপনাকে যে কোনো সময় ভয়ঙ্কর বিপদের মুখোমুখি করতে পারে। তাই ফোনে ভাইরাস আছে কি না যদি সে সম্পর্কে জেনে রাখা যায় তাহলে এই ধরনের বিপদের হাত থেকে অনেকটাই নিরাপদে থাকা যাবে। আসুন ম্যালওয়্যার কী এবং কীভাবে সেগুলি খুঁজে পাওয়া যাবে জেনে নেওয়া যাক।

অ্যান্ড্রয়েডে ভাইরাস কিংবা ম্যালওয়্যারের আক্রমণ হলে সাধারণ কিছু বিষয় পরিলক্ষিত হয়। খুব তাড়াতাড়ি ডিভাইসের ব্যাটারির চার্জ শেষ হয়ে যাবে। অযাচিত অ্যাপ্লিকেশন ইনস্টল হবে। ফোনের গতি ধীর হয়ে যাবে। অযাচিত বিজ্ঞাপন প্রদর্শিত হবে। এছাড়া বারবার ডেটা এরর হতে পারে।

ফোনে ম্যালওয়্যার আক্রমণ হয়েছে কিনা বুঝার জন্য ফোনের সেটিংস থেকে ব্যাটারি ইউসেজ এবং প্রসেসিং টাস্ক চেক করুন। সেখানে সিস্টেম ব্যতিত এবং পরিচিত অ্যাপ ব্যতিত অন্য কোনো থার্ডপার্টি অ্যাপ আছে কিনা, বা অদ্ভুত নামের কোনো অ্যাপ দেখাচ্ছে কিনা খুঁজে দেখুন। থাকলে বুঝবেন ম্যালওয়্যার আছে। সেক্ষেত্রে অ্যাপটি খুজে বের করে আনইন্সটল করে দিন। আর আপনার সকল ব্রাউজারের সব ডেটা ক্লিন করে দিন। এক্ষেত্রে আলাদা করে কোনো সফটওয়্যার ব্যবহার করার প্রয়োজন নেই।

খুব বেশি ব্যবহার না করা সত্ত্বেও যদি আপনার স্মার্টফোনে হাত দিয়ে দেখেন যে সেটি খুব গরম হয়ে রয়েছে, তাহলে হতে পারে যে কেউ আপনার ফোনটি হাইজ্যাক করেছে এবং অসৎ কার্যসিদ্ধি করার জন্য অবৈধভাবে আপনার ফোনটিকে ব্যবহার করছে।

আপনার ডেটা বা ব্যাটারি খুব দ্রুত শেষ হয়ে যাওয়া বা অহেতুক ফোনের বিল বেশি আসা ফোনে ভাইরাসের অস্তিত্বের ইঙ্গিত দেয়। ফোনে যদি প্রায়শই খুব বেশি অপ্রাসঙ্গিক বিজ্ঞাপন প্রদর্শিত হয়, তাহলে তা ফোনে লুকানো অ্যাডওয়্যারের ইঙ্গিত দেয়। তারা কেবল অবাঞ্ছিত বিজ্ঞাপনই পরিবেশন করে না, সেইসাথে ফোনটিকে ক্ষতিকারক ম্যালওয়্যার দিয়ে সংক্রামিত করতে পারে।

ফোনের কন্টাক্টসে থাকা ব্যক্তিদের কাছে যদি আপনার ফোন থেকে স্প্যাম মেসেজ যেতে থাকে, তাহলে ধরে নিতে হবে যে নিঃসন্দেহে আপনার ফোনে ভাইরাস রয়েছে। এর ফলে আপনার ফোনের পাশাপাশি যে ফোনগুলোতে আপনার ফোন থেকে মেসেজ যাচ্ছে, সেগুলিও ক্ষতিগ্রস্ত হতে পারে।

তাই ফোনে ভাইরাস ঠেকাতে যাচাই বাছাই না করে কখনোই কোন অ্যাপ ডাউনলোড করবেন না। নিশ্চিত না হয়ে কোন ফাইল ডাউনলোড করবেন না।