ইনফিনিক্সের প্রথম ফ্ল্যাগশিপ স্টোর চালু হলো যমুনা ফিউচার পার্কে



নিউজ ডেস্ক, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
বাংলাদেশে ইনফিনিক্সের প্রথম ফ্ল্যাগশিপ স্টোর চালু হলো যমুনা ফিউচার পার্কে

বাংলাদেশে ইনফিনিক্সের প্রথম ফ্ল্যাগশিপ স্টোর চালু হলো যমুনা ফিউচার পার্কে

  • Font increase
  • Font Decrease

বাংলাদেশে তুমুল জনপ্রিয় স্মার্টফোন কোম্পানি ইনফিনিক্স সম্প্রতি রাজধানীর যমুনা ফিউচার পার্কে ব্র্যান্ডটির প্রথম ফ্ল্যাগশিপ স্টোর চালু করেছে। নতুন এই ফ্ল্যাগশিপ স্টোর শপিংমলের ইলেকট্রনিক্স ফ্লোরের সাউথ কোর্টে অবস্থিত।

ফ্ল্যাগশিপ স্টোর উদ্বোধন অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন ইনফিনিক্স বাংলাদেশের ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসেডর তানজিন তিশা। আরো উপস্থিত ছিলেন চিফ অপারেটিং অফিসার শ্যামল কুমার সাহা, ট্রানসিওন হোল্ডিংস এর মার্কেটিং ডিরেক্টর ভ্যান নি, যমুনা গ্রুপের মার্কেটিং এন্ড সেলস ডিরেক্টর ড. মোঃ আলমগীর আলম, ইনফিনিক্স মার্কেটিং ম্যানেজার মেনগুয়ান ওয়াং, ন্যাশনাল সেলস ম্যানেজার মোঃ জাহিদুর রহমান, এসআই ম্যানেজার ইমরান খান। এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন সিনিয়র ব্র্যান্ড ম্যানেজার ইফতেখার উদ্দিন সানি এবং পিআর ম্যানেজার তেহসিন মুসাভি।

ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসেডর ও অতিথিরা ফিতা কেটে ফ্ল্যাটশিপ স্টোরটি উন্মোচন করেন; এছাড়া কেক কাটা এবং অন্যান্য আয়োজনও ছিল অনুষ্ঠানে। ইনফিনিক্সের স্টোর উদ্বোধন উপলক্ষে স্মার্টফোনপ্রেমীরা স্টোরে ভিড় জমান ও ব্র্যান্ডটির বিভিন্ন ডিভাইস সম্পর্কে নিজেদের আগ্রহ প্রকাশ করেন। এছাড়া, স্টোরটি উন্মোচন উপলক্ষে ইনফিনিক্সভক্তদেরও আমন্ত্রণ জানানো হয়েছিল। তারা অভিনেত্রী তানজিন তিশার সঙ্গে দেখা করেন ও সেলফি তোলেন। ইনফিনিক্সের নতুন এই যাত্রায় সঙ্গী হতে পেরে তারা খুবই রোমাঞ্চিত ছিলেন! 

ইনফিনিক্সের স্টোর চালু হওয়ার জমকালো এই শুরুতেই গ্রাহকদের বিভিন্ন আকর্ষণীয় গিফট ও উপহার প্রদান করা হয়।

ইনফিনিক্স সময়ের সঙ্গে সঙ্গে নিত্যনতুন ও অভিনব সব উদ্ভাবনের মাধ্যমে প্রযুক্তিতে অবদান রেখে চলেছে। ব্র্যান্ডটি সম্প্রতি ১৮০ওয়াট ফাস্ট চার্জিং এবং থ্রি-ডি ভ্যাপর লিকুইড কুলিং টেকনোলজির মাধ্যমে টেকপ্রেমীদের মনোযোগ কেড়েছে। অ্যামোলেড ডিসপ্লে এবং ফ্ল্যাগশিপ প্রসেসর সম্বলিত হেলিও জি৯৬ ও হেলিও জি৮৮ ভার্সনের ইনফিনিক্সের নোট ১২ সিরিজের স্মার্টফোন ঘিরে ইতোমধ্যে দেশের তরুণদের মধ্যে আগ্রহ তৈরি হয়েছে ও তারা স্মার্টফোনটি সম্পর্কে বিভিন্ন প্ল্যাটফর্মে নিজেদের ইতিবাচক মতামত তুলে ধরছেন।

বিআইজেএফ নির্বাচন: সভাপতি নাজনীন, সাধারণ সম্পাদক সাব্বিন



নিউজ ডেস্ক, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
বিআইজেএফ নির্বাচন: সভাপতি নাজনীন, সাধারণ সম্পাদক সাব্বিন

বিআইজেএফ নির্বাচন: সভাপতি নাজনীন, সাধারণ সম্পাদক সাব্বিন

  • Font increase
  • Font Decrease

তথ্যপ্রযুক্তি সাংবাদিকদের শীর্ষ সংগঠন বাংলাদেশ আইসিটি জার্নালিস্ট ফোরামের (বিআইজেএফ) নির্বাচনের চূড়ান্ত ফলাফল ঘোষণা করেছে নির্বাচন কমিশন।

নির্বাচনে বিআইজেএফ কাযনির্বাহী কমিটির (২০২২-২৪) মেয়াদের সভাপতি হিসেবে নির্বাচিত হয়েছেন টেক ওয়ার্ল্ডের নাজনীন নাহার। সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হয়েছেন বার্তা২৪ ডটকম’র কনসালটেন্ট এডিটর (আইসিটি) সাব্বিন হাসান।

রাজধানীর কারওয়ান বাজারের জনতা টাওয়ারে শুক্রবার (৩০ সেপ্টেম্বর) সকাল ১০টা থেকে বিকেল ৪টা অবধি নির্বাচনের ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়।

নির্বাচনের ফলাফল প্রকাশের সূত্রে জানা যায়, কার্যনির্বাহী পরিষদে সভাপতি পদে টেক ওয়ার্ল্ডের নাজনীন নাহার, সহসভাপতি পদে কম্পিউটার বিচিত্রার ভূঁইয়া ইনাম লেলিন, সাধারণ সম্পাদক পদে বার্তা২৪.কম’র সাব্বিন হাসান, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক পদে নতুন সময়ের সাজেদুর রহমান, কোষাধ্যক্ষ পদে বিজ টেকের সাইফুল ইসলাম শান্ত, সাংগঠনিক সম্পাদক পদে ঢাকা পোস্টের আরিফুল ইসলাম আরমান, প্রকাশনা ও গবেষণা সম্পাদক পদে ঢাকা মেইলের আসাদুজ্জামান লিমন এবং নির্বাহী সদস্য পদে ডিজিটাল সময়ের এনামুল করিম ও ডিজি বাংলার ইমদাদুল হক চূড়ান্তভাবে নির্বাচিত হয়েছেন।

প্রসঙ্গত, ২৩ সেপ্টেম্বর চারটি পদে ভোটগ্রহণ করা হয়। কিন্তু সভাপতি পদে নাজনীন নাহার বেগম (টেক ওয়ার্ল্ড) এবং জাকির হাসান (সমকাল) সমানসংখ্যক ২৫টি করে ভোট পেয়েছিলেন। ফলে সভাপতি পদ ছাড়াই বিজয়ী প্রার্থীদের নাম ঘোষণা করে ‘বিআইজেএফ’ নির্বাচন কমিশন। সমান ভোট পাওয়া সভাপতি পদে আবারও ভোট গ্রহণের সিদ্ধান্ত জানায় নির্বাচন কমিশন।

বিআইজেএফের নির্বাচন কমিশনের চেয়ারম্যানের দায়িত্ব পালন করেন এশিয়ান-ওশেনিয়ান কম্পিউটিং ইন্ডাস্ট্রি অর্গানাইজেশনের (অ্যাসোসিও) সাবেক সভাপতি আবদুল্লাহ এইচ কাফি। কমিশনের সদস্য হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন জ্যেষ্ঠ সাংবাদিক এ আর এম মাহমুদ হোসেন ও পল্লব মোহাইমেন। আপিল বোর্ডে ছিলেন সুমন ইসলাম ও আরিফুল হাসান।

;

হিউলেট প্যাকার্ড এন্টারপ্রাইজের একমাত্র এইসি প্ল্যাটিনাম পার্টনার হল স্মার্ট



নিউজ ডেস্ক, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

বিশ্বখ্যাত কম্পিউটার নির্মাতা প্রতিষ্ঠান হিউলেট প্যাকার্ড এন্টারপ্রাইজ এর প্ল্যাটিনাম পার্টনার ২০২২-২৩ হওয়ার গৌরব অর্জন করেছে বাংলাদেশের শীর্ষস্থানীয় তথ্যপ্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান স্মার্ট টেকনোলজিস (বিডি) লিমিটেড। এইচপিই'র ১২ টি এশিয়ান ইমার্জিং কান্ট্রির (এইসি) মধ্যে বাংলাদেশে একমাত্র স্মার্টকেই প্ল্যাটিনাম পার্টনারের মর্যাদা দিয়েছে প্রযুক্তি জায়ান্ট হিউলেট প্যাকার্ড এন্টারপ্রাইজ। তাছাড়াও নিজেদের পেশাদারিত্বে গুরুত্বপূর্ন অবদান রাখায় স্মার্ট এর ৭ জন প্রকৌশলী এবং ৬ জন বিক্রয় প্রতিনিধিকে বিশেষ সনদ প্রদান করে হিউলেট প্যাকার্ড এন্টারপ্রাইজ। এ উপলক্ষ্যে ২৬ সেপ্টেম্বর স্মার্ট টেকনোলজিস এর নিজস্ব কনফারেন্স হলে প্লাটিনাম পার্টনারশীপ পাওয়া উপলক্ষ্যে একটি উৎযাপনী অনুষ্ঠান আয়োজন করে স্মার্ট।

অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন স্মার্ট টেকনোলজিস (বিডি) লি: এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম, পরিচালক শাহেদ কামাল, জাফর আহমেদ এবং মুজাহিদ আল বেরুনী সুজন, সনদপ্রাপ্ত প্রকৌশলী ও বিক্রয় প্রতিনিধিবৃন্দ ছাড়াও প্রতিষ্ঠানের উর্দ্ধতন কর্মকর্তাবৃন্দ।

অনুষ্ঠানে মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম বলেন, আমরা স্মার্ট টেকনোলজিস সব সময়ই কাস্টমারদের সেবা দেয়ার বিষয়ে সর্বোচ্চ চেষ্ঠা করে থাকি। হিউলেট প্যাকার্ড এন্টারপ্রাইজ এর এই স্বীকৃতি কাস্টমার সেবায় আমাদের সদস্যদের অক্লান্ত পরিশ্রমেরই স্বীকৃতি। আমরা আশা করছি, ভবিষ্যতেও আমাদের দেশের প্রযুক্তিগত উন্নয়ন কর্মে হিউলেট প্যাকার্ড এন্টারপ্রাইজ এবং স্মার্ট একসাথে মিলে কাজ করবে।

তাছাড়াও অনুষ্ঠানে লন্ডন থেকে অনলাইনে যুক্ত হয়েছেন স্মার্ট টেকনোলজিস এর ডেপুটি ম্যানেজিং ডিরেক্টর এসএম মহিবুল হাসান।

উল্লেখ্য, গত ২১ তারিখে হিউলেট প্যাকার্ড এন্টারপ্রাইজ এর পক্ষ থেকে এক ইমেইল বার্তার মাধ্যমে স্মার্ট এর ২০২২-২৩ সালের জন্য প্ল্যাটিনাম পার্টনার হওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

;

বিআইজেএফ নির্বাচন সভাপতি পদ অমীমাংসিত



আইসিটি ডেস্ক
বিআইজেএফ নির্বাচন সভাপতি পদ অমীমাংসিত

বিআইজেএফ নির্বাচন সভাপতি পদ অমীমাংসিত

  • Font increase
  • Font Decrease

বাংদেশের তথ্যপ্রযুক্তি খাতের সাংবাদিকদের সংগঠন বাংলাদেশ আইসিটি জার্নালিস্ট ফোরামের (বিআইজেএফ) ২০২২-২৪ মেয়াদের নির্বাচনে সভাপতি পদে নাজনীন নাহার বেগম (টেকওয়ার্ল্ড) এবং মো. জাকির হাসান (সমকাল) সমানসংখ্যক ২৫টি করে ভোট পেয়েছেন। সমান সংখ্যক ভোট পাওয়ায় সভাপতি পদ ছাড়াই বিজয়ী প্রার্থীদের নাম ঘোষণা করেছে বিআইজেএফ নির্বাচন কমিশন। নির্বাচনে ভোট পড়েছে ৫০টি। নির্বাচনে মোট ভোটার ছিল ৫৪ জন।

সভাপতি পদে অমীমাংসিত বিষয়ে বিআইজেএফ নির্বাচন কমিশনের চেয়ারম্যান এশিয়ান-ওশেনিয়ান কম্পিউটিং ইন্ডাস্ট্রি অর্গানাইজেশনের (অ্যাসোসিও) সাবেক সভাপতি আবদুল্লাহ এইচ কাফি বার্তা২৪ ডটকমকে জানান, দুজন প্রার্থীই সমান সংখ্যক ভোট পাওয়ায় আলোচনার ভিত্তিতে এক বছর মেয়াদে সভাপতি পদে দায়িত্ব পালনের ইচ্ছা প্রকাশ করেছেন। সমাজসেবা অধিদপ্তরে এই সংক্রান্ত নীতিমালা দেখে আমরা এ বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত জানাব।

বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় সাধারণ সম্পাদক পদে নির্বাচিত হয়েছেন বার্তা২৪ ডটকম’র কনসালটেন্ট এডিটর (আইসিটি) সাব্বিন হাসান।

নির্বাহী কমিটির পাঁচটি পদে (সহসভাপতি, সাধারণ সম্পাদক, সাংগঠনিক সম্পাদক ও দুটি নির্বাহী সদস্য) একাধিক প্রার্থী না থাকায় চারটি পদে ভোট গ্রহণ করা হয়। চারটি পদে লড়েছেন ১০ জন প্রার্থী। নির্বাচিত অন্যরা হলেন, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সাজেদুর রহমান (নতুন সময়), কোষাধ্যক্ষ সাইফুল ইসলাম (বিজটেক ২৪ ডটকম) এবং প্রকাশনা ও গবেষণা সম্পাদক আসাদুজ্জামান (ঢাকামেইল ডটকম)।

বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় আরও বিজয়ী হয়েছেন সহসভাপতি ভূঁইয়া মোহাম্মদ ইনাম (কম্পিউটার বিচিত্রা), সাংগঠনিক সম্পাদক মো. আরিফুল ইসলাম (ঢাকাপোস্ট) এবং নির্বাহী সদস্য এস এম ইমদাদুল হক (ডিজিবাংলা) ও মো. এনামুল করিম (ডিজিটাল সময়)।

শুক্রবার রাজধানীর কারওয়ান বাজারে সফটওয়্যার টেকনোলজি পার্কের সম্মেলনকক্ষে সকাল ৯টা থেকে বিকেল ৪টা অবধি ভোট গ্রহণ করা হয়।

বিআইজেএফের নির্বাচন কমিশনের সদস্য হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন জ্যেষ্ঠ সাংবাদিক এ আর এম মাহমুদ হোসেন ও পল্লব মোহাইমেন। আপিল বোর্ডে আছেন সুমন ইসলাম ও আরিফুল হাসান।

;

আইফোনের ডিজাইন ইঞ্জিনিয়ার হিসেবে কাজ করছেন বাংলাদেশের মাহিন



নিউজ ডেস্ক, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
আইফোনের ডিজাইন ইঞ্জিনিয়ার হিসেবে কাজ করছে বাংলাদেশের মাহিন

আইফোনের ডিজাইন ইঞ্জিনিয়ার হিসেবে কাজ করছে বাংলাদেশের মাহিন

  • Font increase
  • Font Decrease

ক’দিন আগে উন্মোচন করা হয়েছে মার্কিন টেকনোজায়ান্ট এপলের যুগান্তকারি সৃষ্টি আইফোন ১৪ সিরিজ। সারা বিশ্বে প্রায় ২০০ কোটি পিস সেলফোন বিক্রি করা এই প্রতিষ্ঠানটির ধারের কাছেও নেই বিশ্বের কোন মোবাইল ফোন তৈরি করা প্রতিষ্ঠান।

আইফোনের চমকপ্রদ নকশা, প্রযুক্তিগত উৎকর্ষতা এটিকে দিয়েছে সেলফোনের জগতে সম্রাটের স্থান। বিশ্বখ্যাত এই আইফোনের ডিজাইন ইঞ্জিনিয়ারিং টিমের সাথে কাজ করছেন বাংলাদেশের সন্তান মাহিন মাশরুর। যতটুকু জানা যায় মাহিনই একমাত্র বাংলাদেশি যে প্রোডাক্ট ডিজাইনার হিসেবে কাজ করছেন।

মাহিনের জন্ম ঢাকার উত্তরায়, ১৯৯৯ সালে। উত্তরার ‘ইন্টারন্যাশনাল এডুকেশন সেন্টারের চতুর্থ শ্রেণিতে পড়ার সময় বাবা মা’র সাথে চলে যায় কানাডায়। ২০১৮ সালে ভর্তি হন কানাডার মর্যাদাপূর্ণ প্রতিষ্ঠান ওয়াটারলু ইউনিভার্সিটির মেকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং ডিপার্টমেন্টে।


ছোটবেলা থেকেই প্রযুক্তির প্রতি অসম্ভব আকর্ষণ মাহিনের। ওয়াটারলু ইউনিভার্সিটির নতুন নতুন প্রযুক্তির সাথে সম্পৃক্ত থেকে তিনি তার যোগ্যতার প্রমাণ দিয়েছেন। চলতি বছরের প্রথম দিকে যখন সে তার ফাইনাল পরীক্ষা নিয়ে ব্যস্ত তখন আবেদন করেছিলেন চাকরি। ইলনমাস্কের টেসলা, স্পেসএক্স, এ্যাপল এবং অনেক কানাডিয়ান নামকরা প্রতিষ্ঠান থেকে তিনি ইন্টারভিউ এর ডাক পান। মাহিন তার শেষবর্ষের পরীক্ষা শেষ করার আগেই ইন্টারভিউ এর চারটি ধাপ অতিক্রম করে এ্যাপলের আইফোন ডিজাইন ইঞ্জিনিয়ার হিসেবে যোগ দেয়ার সুযোগ পান।

গত ১৫ জুলাই সে যোগ দিয়েছে ক্যালিফোর্নিয়ার কুপার্টিনোর স্টিভ জবস এর সেই বিখ্যাত ভবন অ্যাপল পার্কে। আইফোনের পরবর্তি সংস্করণের নকশায় বাংলাদেশের এই তরুণ মেধাবীর সম্পৃক্ততা থাকবে।

মেধাবী মাহিনের বাবা মা দুজনেই কৃষিবিদ। তাদের পৈত্রিক নিবাস উত্তরের জেলা গাইবান্ধা সদরের পলাশপাড়ায়। দেশে তার বাবা মোমিনুল আজম চাকরি করতেন বিসিএস (ডাক) ক্যাডারে আর মা মাহমুদা আনোয়ার ছিলেন বিসিএস (কৃষি) ক্যাডার। সন্তানদের ভবিষ্যতের কথা চিন্তা করে ২০১০ সালে পাড়ি জমান কানাডায়। মাহিনের বড় ভাই মুহিবও কানাডায় মেধার স্বাক্ষর রেখেছেন।

;