বিডিকম অনলাইন পেল বেস্ট কর্পোরেট অ্যাওয়ার্ড



সাব্বিন হাসান
বিডিকম অনলাইন পেল বেস্ট কর্পোরেট অ্যাওয়ার্ড

বিডিকম অনলাইন পেল বেস্ট কর্পোরেট অ্যাওয়ার্ড

  • Font increase
  • Font Decrease

 আইটি এবং টেলিকমিউনিকেশন ক্যাটাগরিতে ‘আইসিএমএবি বেস্ট করপোরেট অ্যাওয়ার্ড ২০২১’ পেয়েছে পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত সুপরিচিত আইসিটি কোম্পানি বিডিকম অনলাইন লিমিটেড।

পাবলিক ও প্রাইভেট লিমিটেড কোম্পানিগুলোর মধ্যে মার্কেট ক্যাপিটাইলাইজেশন, করপোরেট গর্ভন্যান্স, তথ্যের গ্রহণযোগ্যতা ও বিশ্বাসযোগ্যতাসহ বেশকিছু মানদণ্ডে ইনস্টিটিউট অব কস্ট অ্যান্ড ম্যানেজমেন্ট অ্যাকাউন্ট্যান্ট অব বাংলাদেশ (আইসিএমএবি) কয়েকটি ক্যাটাগরিতে ‘আইসিএমএবি বেস্ট করপোরেট অ্যাওয়ার্ড’ দিয়ে থাকে।

রাজধানীর হোটেল ইন্টারকন্টিনেন্টালে আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশির হাত থেকে পুরষ্কার গ্রহণ করেন বিডিকম অনলাইন লিমিটেডের চেয়ারম্যান ওয়াহিদুল হক সিদ্দিকী এবং ব্যবস্থাপনা পরিচালক গোলাম ফারুক আলমগীর।

বিশেষ অতিথি ছিলেন বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের (বিএসইসি) চেয়ারম্যান অধ্যাপক শিবলী রুবাইয়াত-উল-ইসলাম ও ফেডারেশন অব বাংলাদেশ চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রিজের সভাপতি মো. জসিম উদ্দিন।

অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন বিডিকম অনলাইন’র নির্বাহী পরিচালক এবং কোম্পানির সচিব এ কে এম কুতুব উদ্দিন, চিফ ফিন্যান্সিয়াল অফিসার ফাকের আহমেদ আর ইন্ডিপেন্ডেন্ট ডিরেক্টর খালিদ হুসেইন।

সব কর্মকর্তা-কর্মচারীদের পুরস্কারটি উৎসর্গ করে বিডিকম অনলাইন’র চেয়ারম্যান বলেন, সবার সম্মিলিত প্রচেষ্টা এবং অক্লান্ত পরিশ্রমের প্রতিফলনেই এ অর্জন নিশ্চিত করেছে।

প্রসঙ্গত, বাংলাদেশের করপোরেট প্রতিষ্ঠানে কর্মদক্ষতা, স্বচ্ছতা, জবাবদিহিতা ও সুশাসন নিশ্চিত করার স্বীকৃতি হিসেবে ২০০৭ সাল থেকে বেস্ট করপোরেট অ্যাওয়ার্ডস দিয়ে আসছে আইসিএমএবি। আইএফএসি, এসএএফএ, সিএপিএ এবং করপোরেট প্রতিষ্ঠানের অর্থনীতি ও দক্ষতা পরিমাপের বৈশ্বিক দিকনির্দেশনা মেনে, গুণগত ও সংখ্যাগত মানদণ্ড বিচারে বেস্ট করপোরেট অ্যাওয়ার্ড দেওয়া হয়।

   

ভিভোর নতুন স্মার্টফোন ‘ওয়াই ২৭এস’এ গেমিংয়ে চমক



ডেস্ক বার্তা২৪.কম
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

টানা গেমিং বা ভিডিও স্ট্রিমিংয়ের সুবিধা দিতে ভিভো নিয়ে এসেছে ‘ওয়াই ২৭এস’। ওয়াই সিরিজের নতুন এই স্মার্টফোন ‘কল অব ডিউটি’র মত গেমিংয়ের অভিজ্ঞতা যেমন দিবে তেমনি কমিয়ে দিবে চার্জ নিয়ে দুর্ভাবনা।

দ্রুত চার্জের বিষয়টি মাথায় রেখে গ্লোবাল স্মার্টফোন নির্মাতা প্রতিষ্ঠান ভিভো দেশে নিয়ে এসেছে ‘ওয়াই ২৭ এস’। ওয়াই সিরিজের নতুন এই স্মার্টফোনে আছে পাঁচ হাজার মিলিঅ্যাম্পিয়ার ব্যাটারি এবং ৪৪ ওয়াট ক্ষমতাসম্পন্ন ফ্ল্যাশচার্জার। যার মাধ্যমে স্মার্টফোনটি শতভাগ চার্জ হতে সময় নেবে এক ঘণ্টারও কম সময়। ভিভো ওয়াই২৭এস এর দাম রাখা হয়েছে ২২,৯৯৯ টাকা।

‘ভিভো ওয়াই ২৭এস’ স্মার্টফোনের ফুলচার্জে একটানা গান শোনা যাবে ১৮ ঘণ্টা। ইউটিউবে ভিডিও দেখা যাবে টানা ২০ ঘণ্টা। ওয়াই ২৭এস নিয়ে ইনস্টাগ্রাম বা ইউটিউবের রিল ভিডিওতে হারিয়ে যাওয়া যাবে। টানা ১২ ঘণ্টা নিরবিচ্ছিন্ন রিল উপভোগ করা যাবে।

এ স্মার্টফোনে আছে স্ন্যাপড্রাগন ৬৮০ প্রসেসর। সাথে রয়েছে ফানটাচ ওএস১৩ অপারেটিং সিস্টেম। যা ‘কল অব ডিউটি’, ‘শ্যাডোগান’, ‘ব্রাউল স্টার’ এর মত গেমিং উপভোগের সুযোগ। মিডরেঞ্জের ফোনে এ ধরণের সুযোগ ভাবাই যায় না। গেমিং থামার কোনো সুযোগ নেই। এক চার্জে টানা ৬ ঘণ্টা মেতে থাকা যাবে গেমিংয়ে।

এছাড়া এ ফোনে আছে এক্সটেন্ডেড র‌্যাম টেকনোলজি ৩.০। মিলবে ৮ জিবি র‌্যাম। তবে আরো ৮ জিবি র‌্যাম বাড়িয়ে নেয়ার সুযোগ আছে। এই স্মার্টফোনে আছে ১২৮জিবি রম। যা বাড়ানো যাবে ১ টেরাবাইট পর্যন্ত।

‘ভিভো ওয়াই ২৭এস’ স্মার্টফোনে ল্যাগিং দূর করে ২৫টিরও বেশি অ্যাপ ব্যবহার করার সুযোগ থাকবে। বারগেন্ডি ব্ল্যাক ও গার্ডেন গ্রিন রঙের ভি২৭এস এর ব্যাক সাইডে রয়েছে ডুয়েল ক্যামেরা রিং ডিজাইন, ফ্যান্টাসি ফ্রেম। ২.৫ ডি ফ্ল্যাট ফ্রেমের স্মার্টফোনটির ওজন মাত্র ১৯২ গ্রাম এবং এর পুরুত্ব ৮.১৭ মিলিমিটার। হাতে নিলেই পাওয়া যাবে চমৎকার গ্রিপ।

‘ওয়াই২৭এস’ এর ব্যাকসাইডে আছে ম্যাট সার্ফেসের গ্লিটার এজি গ্লাস। যার কারণে হাতের ছাপ বা স্ক্র্যাচ পড়ার ভয় থাকবে না। এ ফোনের ৬ দশমিক ৬৪ ইঞ্চি মাল্টি টাচ ক্যাপাসিটিভ এলসিডি ডিসপ্লেতে রেজুলেশন থাকছে ২৩৮৮ x ১০৮০। এই ডিসপ্লে ফুল এইচ ডি প্লাস যাতে রিফ্রেশ রেট পাওয়া যাবে ৯০ হার্টজ। এতে ভিডিও কন্টেন্ট দেখার অভিজ্ঞতা হবে দারুণ। এর পিক্সেল ডেনসিটি ৩৯৪ পিপিআই ও কালার স্যাচুরেশন ৯৯ শতাংশ এনটিএসসি। এতে ভিডিও কন্টেন্টে রংটা উপভোগ করা যাবে বেশ দারুণ ভাবে।

‘ওয়াই২৭এস’ এর ৮ মেগাপিক্সেলের ফ্রন্ট ক্যামেরা ও ৫০ মেগাপিক্সেলের রিয়ার ক্যামেরা দেবে নান্দনিক ফটোগ্রাফির আনন্দ। ২ মেগাপিক্সেল বোকেহ দিবে সেলফি বা পোর্ট্রেইট ফটোগ্রাফির দারুণ অভিজ্ঞতা।

;

ব্রডব্যান্ড ইন্টারনেট সেবা ডাউন, ভোগান্তিতে গ্রাহকরা



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম
ব্রডব্যান্ড ইন্টারনেট সেবা ডাউন, ভোগান্তিতে গ্রাহকরা

ব্রডব্যান্ড ইন্টারনেট সেবা ডাউন, ভোগান্তিতে গ্রাহকরা

  • Font increase
  • Font Decrease

বকেয়া আদায় করতে না পেরে ১৯টি ইন্টারন্যাশনাল ইন্টারনেট গেটওয়ে (আইআইজি) অপারেটরের ব্যান্ডউইথ ডাউন (সীমিত) করে দিয়েছে বাংলাদেশ সাবমেরিন কেবল কোম্পানি। এতে ব্রডব্যান্ড ও মোবাইল ইন্টারনেটে ধীরগতির কারণে ভোগান্তিতে পড়েছেন গ্রাহকরা।

শুক্রবার (২৪ নভেম্বর) সন্ধ্যায় গণমাধ্যমকে এ তথ্য জানিয়েছে সাবমেরিন কেবল কোম্পানি। সাপ্তাহিক ছুটির কারণে রোববারের (২৬ নভেম্বর) আগে চলমান সমস্যার সমাধান হবে না বলে জানিয়েছে প্রতিষ্ঠানটি।

জানা গেছে, গতকাল বৃহস্পতিবার (২৩ নভেম্বর) রাত ১২টার পর বাংলাদেশ সাবমেরিন কেবলস পিএলসি (বিএসসিপিএলসি) ৫০০ জিবিপিএস (গিগাবিট পার সেকেন্ড) ব্যান্ডউইডথ সীমিত করে দেয়।

ডিজিটাল বাংলাদেশে বর্তমানে ৩১ শতাংশ মানুষ তাদের ব্যক্তিগত ও বাণিজ্যিক প্রয়োজনে ব্যবহার করেন ইন্টারনেট সেবা। আর এই সেবা নিরবচ্ছিন্নভাবে গ্রাহককে দিতে কাজ করে ৩৪টি আইআইজি প্রতিষ্ঠান।

বাংলাদেশ সাবমেরিন কেবল কোম্পানি বলছে, চলতি বছরের ৩০ জুন পর্যন্ত আইপিলসি ও আইপি ট্রানজিট সেবা বাবদ বর্তমানে বিভিন্ন অপারেটরের কাছে সাবমেরিন কেবল কোম্পানির বকেয়ার পরিমাণ দাঁড়িয়েছে ৩৮৪ কোটি টাকা। এর মধ্যে ৯টি অপারেটরের কাছেই তারা পায় ১৮১ কোটি টাকা। বারবার তাগাদা দিয়ে টাকা আদায় করতে না পেরে ১৯টি প্রতিষ্ঠানের ৫৭২ জিবিপিএস ব্যান্ডউইথ সীমিত করে দেওয়া হয়েছে। বৃহস্পতিবার রাত ১২টার পর থেকেই এই সিদ্ধান্ত কার্যকর হয়েছে।

তবে এত বড় সিদ্ধান্ত কেন সাপ্তাহিক ছুটির আগে নেয়া হলো সেই প্রশ্ন তুলেছে মোবাইল অপারেটর আইআইজি ও আইএসপিগুলো।

বর্তমানে দেশে ব্রডব্যান্ড ও মোবাইল মিলিয়ে ইন্টারনেট ব্যবহারকারীর সংখ্যা ১৩ কোটির বেশি।

;

ইনফিনিক্সের এক চার্জারেই চার্জ হবে সব গ্যাজেট



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

আমাদের জীবন এখন অনেকটাই প্রযুক্তিনির্ভর। স্মার্টফোন, ল্যাপটপ, ট্যাবলেট, নোটবুক, ইত্যাদিতেই কাটে দিনের বেশিরভাগ সময়। এই স্মার্ট ডিভাইসগুলো নির্ভর করে নিরবচ্ছিন্ন শক্তি সরবরাহের ওপর। দরকার হয় নির্দিষ্ট চার্জার আর ক্যাবলের। কিন্তু এতো ক্যাবলের ঝামেলা এড়াতে চলে এসেছে স্মার্ট সমাধান। ইউএসবি-পিডি চার্জার দিয়ে চার্জ হবে টাইপ-সি পোর্টযুক্ত সব ডিভাইস ।

মাঝারি বাজেটে এই প্রযুক্তি নিয়ে সম্প্রতি বাজারে এসেছে ইনফিনিক্স নোট ৩০ সিরিজের স্মার্টফোন। ইউএসবি পাওয়ার ডেলিভারি বা পিডি প্রোটোকল সাধারণত ঠিক ততটুকু শক্তি সরবরাহ করে, যতটুকু প্রয়োজন। ল্যাপটপ, স্মার্টফোন বা যেকোনো ডিভাইসের জন্যই চার্জারটি এই কাজ করতে সক্ষম। টাইপ-সি যুক্ত কোনো ডিভাইসে পিডি প্রযুক্তি থাকলে, সেটি যেকোনো চার্জার থেকে চার্জ নিতে পারবে। আবার, কোনো চার্জারে যদি এই প্রযুক্তি থাকে, তবে সেটি ইউএসবি-সি পোর্টযুক্ত যেকোনো ডিভাইস চার্জ করতে পারবে।

বাজারে বর্তমানে পিডি ৩.০ ভার্সনের চার্জারই বেশি পাওয়া যাচ্ছে। এর মাধ্যমে ল্যাপটপ, প্যাড, স্মার্টফোন, স্মার্টওয়াচ, ইয়ারবাড, ট্যাবলেট, অ্যাকশন ক্যামেরা এবং ইউএসবি-সি পোর্টসম্পন্ন অন্যান্য প্রায় সব ডিভাইস চার্জ করা যায়।

মাঝারি বাজেটের স্মার্টফোন সিরিজ ইনফিনিক্স নোট ৩০ এবং এর চার্জার উভয়তেই এই চার্জিং প্রোটোকল আছে। এছাড়াও স্যামসাং, গুগল, অ্যাপল ও সনির ফ্ল্যাগশিপ ফোনগুলোতেও এই প্রযুক্তি আছে। ইনফিনিক্সের নোট ৩০ এবং নোট ৩০ প্রো যথাক্রমে ৪৫ ও ৬৮ ওয়াটে চার্জ নিতে পারে।

পিডি প্রটোকল দিয়ে এখন পর্যন্ত ২৪০ ওয়াট পর্যন্ত শক্তি সরবরাহ করা যায়। নোট ৩০ সিরিজের পিডি-৩.০ সমর্থিত ৪৫ ওয়াট ও ৬৮ ওয়াট অ্যাডাপ্টারগুলো ইউএসবি-সি পোর্টযুক্ত ল্যাপটপকেও চার্জ করতে পারে। এই যেমন, ইনফিনিক্সের ল্যাপটপগুলো ৪৫ ওয়াটে চার্জ নেয়। একইভাবে এইচপি, লেনোভো, আসুস এবং অন্যান্য বিভিন্ন ব্র্যান্ডের সাম্প্রতিক ল্যাপটপকেও এই অ্যাডাপ্টারগুলো দিয়ে চার্জ করা যাবে।

পিডি ৩.০ প্রোটোকল অন্তর্ভূক্ত করার মাধ্যমে ইনফিনিক্স নোট ৩০ সিরিজ দিচ্ছে অল-রাউন্ড ফাস্ট-চার্জিংয়ের অভিজ্ঞতা। বাংলাদেশের বাজারে নোট ৩০ প্রো স্মার্টফোনের দাম ২৭,৯৯৯ টাকা। এর সাথে ক্রেতারা বিনামূল্যে পাচ্ছেন ২,০০০ টাকা সমমূল্যের একটি ওয়্যারলেস চার্জার। নোট ৩০ ফোনের ৮ জিবি+১২৮ জিবি এবং ৮ জিবি+২৫৬ জিবি’র দুইটি ভার্সনের দাম যথাক্রমে ১৮,৯৯৯ এবং ২৩,৯৯৯ টাকা। তবে নভেম্বর মাস জুড়ে চলমান ইনফিনিক্সের উইন্টার ক্যাশব্যাক অফারে ক্রেতারা পাচ্ছেন ১০,০০০ টাকা পর্যন্ত ক্যাশব্যাক।

;

এসটি পে চালু করল শেয়ারট্রিপ



স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
ছবি: বার্তা২৪.কম

ছবি: বার্তা২৪.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

এসটি পে চালু করল ট্রাভেল টেক প্ল্যাটফর্ম শেয়ারট্রিপ। এতে ব্যবহারকারীর অভিজ্ঞতা সমৃদ্ধ করতে নানা ধরনের সুবিধাজনক ফাইন্যান্সিয়াল টুলস নিয়ে আসা হয়েছে। পাশাপাশি এতে ভাউচার, শপ, মোবাইল রিচার্জ, পে বিল ও অন্যান্য নতুন ফিচার রয়েছে।

শেয়ারট্রিপের ৪র্থ বর্ষপূর্তি উদযাপন উপলক্ষে রোববার (২০ নভেম্বর) রাজধানীর একটি হোটেল আয়োজিত অনুষ্ঠানে এসটি পে চালু করা হয়।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক। অনুষ্ঠানে এয়ারলাইনস, হোটেল, পেমেন্ট পার্টনার, করপোরেট পার্টনার,থেকে বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গরা উপস্থিত ছিলেন।

ভ্রমণপিপাসুদের সব ধরনের প্রয়োজন পূরণে লাইফস্টাইল ব্র্যান্ড হয়ে উঠতে নানামুখী পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে শেয়ারট্রিপ। এই প্রচেষ্টার ধারাবাহিকতায় ভ্রমণ অভিজ্ঞতাকে নতুনভাবে উপস্থাপন করতে সম্প্রতি নতুন ফিচার সমৃদ্ধ ওয়েবসাইট নিয়ে আসা হয়। এখন সকল ব্যবহারকারীর জন্য আরও বেশি সমন্বিত ফিচার নিয়ে এলো শেয়ারট্রিপ। যেখানে অ্যাপে মাত্র একটি ট্যাপ করেই এসটি পে, ভাউচার, শপ, মোবাইল রিচার্জ ও পে বিলের মতো প্রয়োজনীয় সবকিছু পাওয়া যাবে। ব্যবহারকারীর অভিজ্ঞতাকে নতুন উচ্চতায় নিয়ে যেতে ৪র্থ বর্ষপূর্তি উদযাপনের সময় এই ফিচারগুলো চালু করা হয়।

ভ্রমণ-সংক্রান্ত ব্র্যান্ড থেকে ভ্রমণ এবং লাইফস্টাইল ব্র্যান্ড হয়ে ওঠার উল্লেখযোগ্য রূপান্তরের ক্ষেত্রে এসটি পে ব্যবহারকারীর লেনদেনের অভিজ্ঞতাকে আরও সহজ ও স্বাচ্ছন্দ্যদায়ক করতে বিস্তৃত পরিসরের ফাইন্যান্সিয়াল টুলস নিয়ে হাজির হয়েছে। এতে অ্যাড মানি, সেন্ড মানি, মানি রিকোয়েস্ট, ব্যাংক ট্রান্সফার, ট্রানজেকশান হিস্ট্রি, মেক পেমেন্টের মতো গুরুত্বপূর্ণ ফিচার রয়েছে, যা খুব সহজেই ভিন্ন ভিন্ন লেনদেন-সম্পর্কিত কার্যক্রমে ব্যবহার করা যাবে।

কিউআর কোড, ফেসিয়াল রিকগনিশন ও বায়োমেট্রিক লগইনের মতো বিষয়গুলোর কারণে এর লেনদেন ও পেমেন্ট অনেক বেশি নিরাপদ ও স্বাচ্ছন্দ্যদায়ক হবে। ব্যবহারকারীর স্বনির্ভরতা নিশ্চিতে এসটি পে’র আওতায় থাকা কন্ট্যাক্ট ও ব্যবসার ক্ষেত্রে এখন লেনদেন হবে আরও বেশি সহজ ও ঝামেলামুক্ত।

৪র্থ বর্ষপূর্তিতে গুরুত্বপূর্ণ অংশীদারদের অসামান্য সহায়তাকে স্বীকৃতি দিতে বিশেষ কৃতজ্ঞতা জানায় শেয়ারট্রিপ। এ সময় এয়ারলাইনস, হোটেল, ব্যাংক, করপোরেট ও টেলকো সহ শেয়ারট্রিপের সকল অংশীদারদের বিভিন্ন ক্যাটাগরিতে মোট ৪৩টি পুরস্কার প্রদান করা হয়।

;