গ্যালাক্সি এস২০ সিরিজের প্রি-অর্ডার নিচ্ছে স্যামসাং ও গ্রামীণফোন

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
প্রি-অর্ডার সুবিধা উন্মোচনে জিপি হাউজে এক অনুষ্ঠান আয়োজন করা হয়, ছবি: সংগৃহীত

প্রি-অর্ডার সুবিধা উন্মোচনে জিপি হাউজে এক অনুষ্ঠান আয়োজন করা হয়, ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

স্যামসাং গ্যালাক্সি এস২০ সিরিজের জন্য প্রি-অর্ডার সুবিধা নিয়ে এসেছে গ্রামীণফোন ও স্যামসাং। গ্রাহকরা আগামী ১৪ মার্চ পর্যন্ত গ্যালাক্সি এস২০+ এবং গ্যালাক্সি এস২০ আল্ট্রা প্রি-অর্ডার করতে পারবে।

বুধবার (২৬ ফেব্রুয়ারি) এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এই তথ্য জানিয়েছে গ্রামীণফোন। এ লক্ষ্যে সম্প্রতি প্রি-অর্ডার সুবিধা উন্মোচনে জিপি হাউজে এক অনুষ্ঠান আয়োজন করা হয়।

অনুষ্ঠানে স্যামসাং মোবাইল বাংলাদেশের ব্যবস্থাপনা পরিচালক স্যাংগুয়ান ইয়ুন বলেন, ‘পরবর্তী প্রজন্মের জন্যই তৈরি করা হয়েছে নেক্সট জেনারেশনের গ্যালাক্সি এস২০ সিরিজের ডিভাইস। তরুণরা যেনো নতুন উদ্ভাবনী উপায়ে যোগাযোগ করতে পারে এবং নিজেদের প্রকাশ করতে পারে এজন্য তাদের ক্ষমতায়নে এ ডিভাইসটি তৈরি। মানুষের জীবনের ডিজিটাল রূপান্তরে স্যামসাং এ ডিভাইসগুলো তৈরি করেছে। বাংলাদেশের ক্রেতাদের জন্য গ্রামীণফোনের সাথে প্রি-অর্ডার সুবিধা নিয়ে আসতে পেরে আমরা আনন্দিত।

গ্রামীণফোনের প্রধান বিপণন কর্মকর্তা সাজ্জাদ হাসিব বলেন, ‘মোবাইল উদ্ভাবনের নতুন দশক শুরু হতে যাচ্ছে। এ সময়ে নতুন প্রজন্মের কানেক্টিভিটি ত্বরান্বিত করতে স্যামসাং বাংলাদেশের নতুন ফ্ল্যাগশিপ ডিভাইস গ্যালাক্সি এস২০+ এবং গ্যালাক্সি এস২০ আলট্রা উন্মোচন করতে পেরে আমরা আনন্দিত।

প্রি-অর্ডারে গ্যালাক্সি এস২০সিরিজের দু’টি মডেল পাওয়া যাবে। ৬.৭ ইঞ্চির গ্যালাক্সি এস২০+ এবং ৬.৯ ইঞ্চির গ্যালাক্সি এস২০ আল্ট্রা। এ সিরিজের দু’টি মডেলেই স্যামসাং মোবাইল ডিসপ্লে ও মোবাইল ক্যামেরায় অত্যাধুনিক উদ্ভাবনে যুগান্তকারী ডিজাইন নিয়ে আসা হয়েছে।

গ্যালাক্সি এ২০ সিরিজে রয়েছে বড় আকারের ইমেজ সেন্সর, ক্যামেরা রেজ্যুলেশন আরও বাড়ানো হয়েছে, চমৎকারভাবে ছবি তুলে তা ক্রপ করে এডিট করা এবং ক্রপিং ও জুমিংও করা যাবে এই ডিভাইসগুলোর মাধ্যমে। গ্যালাক্সি এস২০+ ডিভাইসে ৬৪ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা ব্যবহার করা হয়েছে এবং গ্যালাক্সি এস২০ আল্ট্রায় ব্যবহার করা হয়েছে ১০৮ মেগাপিক্সেলের প্রাইমারি ক্যামেরা।

গ্যালাক্সি এস২০ সিরিজের ডিভাইসগুলো দিয়ে এইট-কে রেজ্যুলেশনের ভিডিও ধারণ করা যাবে। যা স্মার্টফোনের বাজারে প্রথম। এর মাধ্যমে ব্যবহারকারীরা তাদের জীবনের সত্যিকারের সুন্দর মুহূর্তগুলো ধারণ করতে পারবেন। এক্ষেত্রে, ছবি বা ভিডিওর কালার ও কোয়ালিটি বজায় থাকবে। এইট-কে ভিডিও ধারণ ছাড়াও, এস২০ সিরিজের ডিভাইসগুলো দিয়ে এইট-কে ভিডিও থেকে ৩৩ মেগাপিক্সেলের ছবিও ধারণ করা যাবে।

দু’টি ডিভাইসেই রয়েছে ১২৮ জিবি স্টোরেজ। যা মাইক্রোএসডি কার্ডের মাধ্যমে বাড়ানো যাবে। গ্যালাক্সি এস২০+ ডিভাইসে রয়েছে ৮জিবি র‍্যাম ও ৪,৫০০ মিলিঅ্যাম্পিয়ার ব্যাটারি সুবিধা এবং গ্যালাক্সি এস২০ আল্ট্রা ডিভাইসে রয়েছে ১২ জিবি র‍্যাব ও ৫ হাজার মিলিঅ্যাম্পিয়ার ব্যাটারি সুবিধা।

কসমিক ব্ল্যাক ও ক্লাউড ব্লু, এই দু’টি রঙে পাওয়া যাবে গ্যালাক্সি এস২০+ এবং কসমিক গ্রে ও কসমিক ব্ল্যাক এই দু’টি রঙে পাওয়া যাবে গ্যালাক্সি এস২০ আল্ট্রা। গ্যালাক্সি এস২০+ ডিভাইসটির বাজারমূল্য নির্ধারণ করা হয়েছে ৯৯,৯৯৯ টাকা এবং গ্যালাক্সি এস২০ আল্ট্রা ডিভাইসটি পাওয়া যাবে ১,২৯,৯৯৯ টাকায়।

গ্যালাক্সি এস২০ সিরিজের স্মার্টফোন দু’টি কিনতে ক্রেতারা স্যামসাংয়ের অফিসিয়াল স্টোর ও জিপি’র চ্যানেলগুলো থেকে প্রি-অর্ডার করতে পারবেন। এছাড়াও, www.s20preorder.com ও https://gpoffers.co/Samsung_S20 এই দু'টি ওয়েবসাইট থেকেও আগ্রহী ক্রেতারা অনলাইনে স্মার্টফোন দু'টির প্রি-অর্ডার করতে পারবেন।

প্রি-অর্ডারের ক্ষেত্রে আগ্রহী ক্রেতারা এক জোড়া গ্যালাক্সি বাডস প্লাস অথবা ১০ হাজার টাকা ক্যাশব্যাক পাবেন। এছাড়াও, স্যামসাং বাংলাদেশ দিচ্ছে এক্সচেঞ্জ অফার। নির্বাচিত মডেলের ডিভাইসগুলোর নিয়মিত এক্সচেঞ্জ মূল্যের সাথে অতিরিক্ত ১০ হাজার টাকা এক্সচেঞ্জ ভ্যালু হিসেবে যুক্ত হবে।

প্রতিষ্ঠানটি গ্যালাক্সি এস২০+ এর জন্য ১৮ মাস এবং গ্যালাক্সি এস২০ আল্ট্রা ক্রয়ে ২৪ মাস পর্যন্ত ইএমআই সুবিধা দিচ্ছে। নির্দিষ্ট ব্যাংকের কার্ড ব্যবহার করে ইএমআই সুবিধা পাওয়া যাবে। এছাড়াও, দু’টি ডিভাইস ক্রয়ে ২৪ মাসের ইএমআই সুবিধা দিচ্ছে গ্রামীণফোন।

গ্রামীণফোনের গ্রাহকরা স্মার্টফোন দু’টি ক্রয়ে ২০ জিবি ইন্টারনেট প্যাকেজ পাবেন। যার মধ্যে ১০ জিবি তারা ফোর-জি ডাটা হিসেবে ব্যবহার করতে পারবেন এবং বাকি ১০ জিবি গ্রামীণফোনের নিজস্ব স্ট্রিমিং প্ল্যাটফর্ম বায়োস্কোপে কন্টেন্ট উপভোগ করতে পারবেন। এছাড়াও, ক্রেতারা ১৪ দিনের জন্য ‘বায়োস্কোপ প্রাইম পাস’ পাবেন। গ্রাহকরা মূল্য ছাড়ে অর্থাৎ ১৯৮ টাকা দিয়ে ১০ জিবি রেগুলার ডেটা ক্রয় করতে পারবে। এই ১০ জিবি ডেটা ক্রয়ে, তারা বিনামূল্যে ফোর-জি ব্যবহার উপযোগী অতিরিক্ত ১০ জিবি ইন্টারনেট পাবেন। যার মেয়াদ হবে সাত দিন। ক্রেতারা এই ইন্টারনেট প্যাকটি ৩ মাসে ১২ বার কিনতে পারবেন।

ডিভাইস দু'টি ক্রয়ে গ্রামীণফোনের গ্রাহকরা জিপি স্টার টপ টিয়ার অর্থাৎ প্লাটিনাম প্লাসে উন্নীত হবেন। এছাড়া, গ্রামীণফোন ঢাকা রিজেন্সি হোটেলে একজন ব্যক্তির জন্য একবার ‘বাই ওয়ান গেট ওয়ান’ বুফে উপভোগের সুযোগ দিচ্ছে পাশাপাশি, গ্রামীণফোন চ্যানেল থেকে ওরিয়ন ফুটওয়্যারে ১৫ শতাংশ ছাড় সুবিধাও দিবে।