কম খরচে দ্রুত সময়ে পণ্য পৌঁছাবে ইউএসবি এক্সপ্রেস



সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

 

ঢাকা: দ্রুত সময়ে, কম খরচে নিরাপত্তার সাথে ভোক্তাদের কাছে পণ্য পৌঁছে দিচ্ছে ইউএসবি এক্সপ্রেস। ইউএসবি এক্সপ্রেস এর মূল ভিত্তি হচ্ছে পণ্যের নিরাপত্তা প্রদান, টেকনোলজিক্যালি পণ্যের অবস্থান নিশ্চিতকরণ, দ্রুততম সময়ে নির্ধারিত গন্তব্যে পণ্য পৌঁছানো।

তুলনামূলক কম খরচে, সঠিক মান বজায় রেখে ইউএসবি এক্সপ্রেস পণ্য পরিবহন সেবা শুরু করেছে। দেশে কিংবা বিদেশে পণ্য পৌছাতে দ্রুততার সাথে ট্র্যাকিং পদ্ধতি ব্যবহার করে পণ্যের অবস্থান সুনিশ্চিত করে প্রথমদিন থেকেই গ্রাহকদের সেবা প্রদান করছে ইউএসবি এক্সপ্রেস।

উত্তরবঙ্গের আমের চাহিদা এখন সারাদেশে। আর সেই আম মাঠ থেকে ভোক্তার হাতে পৌঁছাতে ইউএসবি এক্সপ্রেস কাজ করছে। প্রাথমিকভাবে উত্তরবঙ্গের বিভাগীয় শহর রাজশাহী আর সুমিষ্ট আমের চারণভূমি খ্যাত চাঁপাইনবাবগঞ্জ থেকে গ্রাহকের চাহিদা অনুযায়ী রাজধানী ঢাকার বিভিন্ন গন্তব্যে অতি অল্পসময়ে পৌঁছে দিচ্ছে ইউএসবি এক্সপ্রেস।

ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্সের অন্যতম সহযোগী প্রতিষ্ঠান ইউএসবি এক্সপ্রেস। বাংলাদেশে আন্তর্জাতিক মানসম্পন্ন সেবা প্রদানকারী কুরিয়ার সার্ভিস প্রতিষ্ঠান হিসেবে আতœপ্রকাশ করেছে প্রতিষ্ঠানটি। আগামী ১লা জুলাই থেকে ৬৪ টি জেলা শহরে ইউএসবি এক্সপ্রেস এর নিজস্ব অফিস, ফ্র্যাঞ্চাইজি ও এজেন্ট এর মাধ্যমে কার্যক্রম শুরু হবে।

ইউএসবি এক্সপ্রেসের সেবার অন্যতম লক্ষ্য তিনটি। এগুলো হলো, বিভিন্ন ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠানের পণ্য অন্যান্য প্রতিষ্ঠানের কাছে স্থানান্তর, ক্রেতাদের কাছে বিভিন্ন ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠানের পণ্য এবং বিভিন্ন কাস্টমারদের পণ্য অন্যান্য কাস্টমারদের কাছে স্থানান্তর করা।

ইউএস-বাংলা গ্রুপের অন্যান্য উল্লেখযোগ্য প্রতিষ্ঠানের মধ্যে রয়েছে- ইউএস-বাংলা এসেটস্, গ্রীণ ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশ, ইউএস-বাংলা মেডিকেল কলেজ এন্ড হসপিটাল, ইউএস-বাংলা লেদার ইন্ডাস্ট্রিজ, ইউএস-বাংলা ফুটওয়্যার কোম্পানি, ইউএস-বাংলা হাইটেক ইন্ডাস্ট্রিজ ইত্যাদি।

বিস্তারিত জানতে এবং পণ্যের বুকিং দিতে যোগাযোগ করুন- রাজশাহীর বোয়ালিয়া- ০১৭১৬৫৩৬০২১, বানেশ্বর- ০১৭১৬৭৩১৯৫২ ও চাঁপাইনবাবগঞ্জের শান্তির মোড়-০১৯১৭১১৭১৪৮ এবং রাজধানী ঢাকায়-০১৭০১২০৭৮৬২।

 

 

সর্বোচ্চ ক্রেতাসুবিধা দিয়ে দেশের শীর্ষ সেলস নেটওয়ার্ক হওয়ার প্রত্যয় ওয়ালটন প্লাজার



নিউজ ডেস্ক, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
ওয়ালটন প্লাজার ‘চ্যালেঞ্জারস সামিট-২০২৩’ অনুষ্ঠানের অতিথিদের সঙ্গে পুরস্কৃত কর্মকর্তাদের একাংশ।

ওয়ালটন প্লাজার ‘চ্যালেঞ্জারস সামিট-২০২৩’ অনুষ্ঠানের অতিথিদের সঙ্গে পুরস্কৃত কর্মকর্তাদের একাংশ।

  • Font increase
  • Font Decrease

ক্রেতাই ওয়ালটন প্লাজার শক্তি। তাদের আস্থায়ই ওয়ালটন আজ দেশের সর্বাধিক জনপ্রিয় ও বিশ্বস্ত ব্র্যান্ড। ওয়ালটন প্লাজা সবসময় সর্বোচ্চ ক্রেতাসুবিধা নিশ্চিত করে আসছে। যার ফলে ২০২২ সালে ওয়ালটন প্লাজার মুনাফা ৯৩ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়েছে। প্রবৃদ্ধির এই ধারা বজায় রেখে অচিরেই দেশের শীর্ষ সেলস নেটওয়ার্ক হবে ওয়ালটন প্লাজা। সেজন্য প্রতিষ্ঠানটি ওয়ানস্টপ সলিউশন চালু এবং কিস্তি ক্রেতা সুরক্ষা সহায়তা নীতিসহ নানান অভিনব উদ্যোগ নিয়েছে।

ওয়ালটন প্লাজা আয়োজিত ‘চ্যালেঞ্জারস সামিট-২০২৩’ অনুষ্ঠানে এমন প্রত্যয় ব্যক্ত করা হয়। বৃহস্পতিবার (২৬ জানুয়ারি, ২০২৩) গাজীপুরের চন্দ্রায় ওয়ালটন হাই-টেক ইন্ডাস্ট্রিজ পিএলসি.’র হেডকোয়ার্টার্সে দিনব্যাপী এই সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। ‘আমরা সেরা ছিলাম, আমরা সেরা আছি, আমরা সেরা থাকবো’ স্লোগানে সম্মেলনে অংশগ্রহণ করেন দেড় সহ¯্রাধিক প্লাজা ম্যানেজার ও সহকারী ম্যানেজারসহ ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাগণ। সম্মেলনে ইলেকট্রনিক্স ও প্রযুক্তিপণ্য ব্যবসায় সংক্রান্ত গুরুত্বপূর্ণ আলোচনা হয়। সেলস এক্সিকিউটিভদের প্রয়োজনীয় দিক-নির্দেশনা দেন ওয়ালটন কর্তৃপক্ষ।

ওয়ালটন প্লাজার ম্যানেজিং পার্টনার এস এম মাহবুবুল আলমের সভাপতিত্বে ‘চ্যালেঞ্জার’স সামিট ২০২৩’ এর প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ওয়ালটন হাই-টেক ইন্ডাস্ট্রিজ পিএলসি.’র চেয়ারম্যান এস এম নূরুল আলম রেজভী, বিশেষ অতিথি ছিলেন ভাইস-চেয়ারম্যান এস এম শামছুল আলম, পরিচালক এস এম মঞ্জুরুল আলম, জাকিয়া সুলতানা ও নিশাত তাসনিম শুচি, ম্যানেজিং ডিরেক্টর ও সিইও গোলাম মুর্শেদ এবং ওয়ালটন প্লাজার চিফ এক্সিকিউটিভ অফিসার (সিইও) মোহাম্মদ রায়হান।

অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে আরো উপস্থিত ছিলেন আর.বি. গ্রুপের সিইও শোয়েব হোসেন নোবেল, ওয়ালটন ডিজি-টেক ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেডের অ্যাডিশনাল ম্যানেজিং ডিরেক্টর প্রকৌশলী মো. লিয়াকত আলী, ওয়ালটন হাই-টেক ইন্ডাস্ট্রিজের ডেপুটি ম্যানেজিং ডিরেক্টর নজরুল ইসলাম সরকার, ইভা রিজওয়ানা নিলু, মো. হুমায়ুন কবীর ও মো. আলমগীর আলম সরকার, ওয়ালটনের সিনিয়র এক্সিকিউটিভ ডিরেক্টর কর্নেল (অব.) এস এম শাহাদাত আলম, মো. ইউসুফ আলী, মো. ফিরোজ আলম, সোহেল রানা, মো. ইয়াসির আল-ইমরান, এস এম জাহিদ হাসান, এফ এম ইকবাল বিন আনোয়ার, ড. মো. সাখাওয়াৎ হোসেন, আরিফুল আম্বিয়া, মো. তোফায়েল আহমেদ, এক্সিকিউটিভ ডিরেক্টর স্বনামধন্য অভিনেতা আজিজুল হাকিম, জিনাত হাকিম, মফিজুর রহমান জাকির, মোহাম্মদ শাহজাদা সেলিম, ইয়াসিন আলী, মোহসিন মোল্লাসহ ঊর্ধতন কর্মকর্তাগণ।

অনুষ্ঠান সঞ্চালনা ও পরিচালনা করেন ওয়ালটনের সিনিয়র এক্সিকিউটিভ ডিরেক্টর চিত্রনায়ক আমিন খান।

চ্যালেঞ্জারস সামিটে ওয়ালটন প্লাজার ম্যানেজিং পার্টনার এস এম মাহবুবুল আলম বলেন, যারা প্রতিকূল প্রতিস্থিতি মোকাবেলা করে নতুন কিছু সৃষ্টি করেন, তারাই হলেন চ্যালেঞ্জার। ওয়ালটন প্লাজার প্রতিটি সদস্য এক একজন চ্যালেঞ্জার। আর চ্যালেঞ্জারদের শক্তি দেশের অগণিত ক্রেতারা। ক্রেতাদের কারণে ওয়ালটন আজ দেশ ছাড়িয়ে পুরো বিশ্বে অন্যতম শীর্ষ ব্র্যান্ড হওয়ার পথে এগিয়ে যাচ্ছে। তাই তাদের জন্য সর্বোচ্চ সুবিধা নিশ্চিত করতে হবে।

সে সময় তিনি ওয়ালটন প্লাজাকে ‘ক্রেতা তুমি আপনজন, ঘোর বিপদেও আমরা সাথী সারাক্ষণ’ শীর্ষক নতুন একটি স্লোগান দেন।

এস এম মঞ্জুরুল আলম বলেন, ইলেকট্রনিক্স ও প্রযুক্তিপণ্যের বাজার পরিবর্তনশীল। মার্কেট কি ধরনের পরিবর্তন চায়, আমাদের সেলস এক্সিউিটিভরা হলেন তার বার্তাবাহক। তারা যদি সঠিক মেসেজ দেন, তবে আমরা সময়োপযোগী সঠিক সিদ্ধান্ত নিয়ে এগিয়ে যেতে পারবো।

গোলাম মুর্শেদ বলেন, দেশ স্বাধীন হওয়ার পর ইলেকট্রনিক্স ও প্রযুক্তি খাতে আমাদের অনেক সংগ্রাম করতে হয়েছে। কিন্তু ওয়ালটন প্রতিষ্ঠিত হওয়ার পর বাংলাদেশের চিত্র পাল্টে গেছে। এখন প্রায় প্রত্যেক পরিবারেই ফ্রিজ-টিভির মতো ইলেকট্রনিক্স ও প্রযুক্তিপণ্য আছে। ক্রেতারা সবসময় আমাদের পাশে ছিলেন। এর সঙ্গে আমাদের চৌকষ সেলস টিমসহ সকল বিভাগের সদস্যদের নিরলস শ্রমে ওয়ালটন আজ শীর্ষ ব্র্যান্ডে পরিণত হয়েছে। এখন আমাদের লক্ষ্য বিশ্বজয়ের। সে লক্ষ্য বাস্তবায়নে চ্যালেঞ্জটা অনেক বড়, যা আমাদের মোকাবেলা করতে হবে।

মোহাম্মদ রায়হান বলেন, ওয়ালটন প্লাজার সেলস ফাইটারগণ হচ্ছে বিশে^র সেরা। ওয়ালটন পণ্য বিশ্বের শ্রেষ্ঠ পণ্য। এমন শক্তিশালী সেলস বাহিনী এবং শ্রেষ্ঠ পণ্য থাকতে বিদেশি কোনো ব্র্যান্ড কিংবা পণ্য বাংলাদেশের বাজারে কখনোই সুবিধা করতে পারবে না। দেশের বাজারে সবসময় আমরাই শীর্ষে থাকবো।

তিনি আরো বলেন, বিশ্বে একমাত্র ওয়ালটন প্লাজাই কিস্তি ক্রেতা সুরক্ষা সহায়তা সুবিধা চালু করেছে। আমরা প্রতিটি ঘরে ওয়ানস্টপ সার্ভিস পৌঁছে দিচ্ছি। ২০২২ সালে ১২ লাখ ৫০ হাজার ক্রেতা আমাদের কাস্টোমার ব্যাংকে যুক্ত হয়েছেন। চলতি বছর আরো ১৮ লাখ কাস্টমার আমাদের ব্যাংকে যুক্ত হবে। ২০২৫ সালের মধ্যে প্রতিটি বাড়ি ওয়ালটন প্লাজার কাস্টোমার ব্যাংকের আওতায় আসবে। ওয়ালটন প্লাজা হবে দেশের শীর্ষ সেলস নেটওয়ার্ক।

সম্মেলনে বিভিন্ন অঞ্চলের ওয়ালটন প্লাজা শাখার সেরা ম্যানেজার ও এরিয়া ম্যানেজাদের পুরস্কৃত করা হয়। সবশেষে ছিলো মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান।

;

ইউনিয়ন ব্যাংকের বার্ষিক ব্যবসা সম্মেলন ২০২৩ অনুষ্ঠিত



নিউজ ডেস্ক, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
ইউনিয়ন ব্যাংকের বার্ষিক ব্যবসা সম্মেলন ২০২৩ অনুষ্ঠিত

ইউনিয়ন ব্যাংকের বার্ষিক ব্যবসা সম্মেলন ২০২৩ অনুষ্ঠিত

  • Font increase
  • Font Decrease

শরী‘আহ ভিত্তিক ইউনিয়ন ব্যাংক লিমিটেড এর বার্ষিক ব্যবসা সম্মেলন ২০২৩ কক্সবাজারে অনুষ্ঠিত হয়।

প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে ব্যবসা সম্মেলনের উদ্বোধন করেন ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও সিইও এ. বি. এম. মোকাম্মেল হক চৌধুরী। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত ব্যবস্থাপনা পরিচালক মোঃহাবিবুর রহমান, উপ-ব্যবস্থাপনা পরিচালক মোঃ নজরুল ইসলাম এবং এসইভিপি গোলাম মোস্তফা।

এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন প্রধান কার্যালয়ের বিভাগীয় প্রধানগণ ও শাখা ব্যবস্থাপকবৃন্দ।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও সিইওএ. বি. এম. মোকাম্মেল হক চৌধুরী তাঁর বক্তব্যের শুরুতেই সমবেত সকলকে সাফল্যের জন্য অভিনন্দন জানান এবং কাঙ্খিত সেবা প্রদানের মাধ্যমে ২০২৩ সালের ব্যবসায়িক লক্ষ্যমাত্রা অর্জনে সর্বাত্মক প্রচেষ্টা গ্রহণের পরামর্শ দেন। উল্লেখ্য, যে সকল শাখা ব্যবস্থাপকগণ ২০২২ সালের লক্ষ্যমাত্রা অর্জন করেন সম্মেলনে তাদেরকে পুরস্কৃত করা হয়।

;

চতুর্থ শিল্প বিপ্লবের সুফল পেতে বিজ্ঞান চর্চা বাড়াতে হবে: বিদ্যুৎ প্রতিমন্ত্রী



স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
চতুর্থ শিল্প বিপ্লবের সুফল পেতে বিজ্ঞান চর্চা বাড়াতে হবে: বিদ্যুৎ প্রতিমন্ত্রী

চতুর্থ শিল্প বিপ্লবের সুফল পেতে বিজ্ঞান চর্চা বাড়াতে হবে: বিদ্যুৎ প্রতিমন্ত্রী

  • Font increase
  • Font Decrease

বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ বলেছেন, চতুর্থ শিল্প বিপ্লবের সুফল পেতে হলে বিজ্ঞান চর্চা বাড়াতে হবে। আর্টিফিসিয়াল ইন্টেলিজেন্সের ব্যবহার যতই বাড়াতে পারবো তত দ্রুত টেকসই উন্নয়ন নিশ্চিত করা হবে।

শুক্রবার (২৭ জানুয়ারি ) ঢাকা রেসিডেনসিয়াল মডেল কলেজের ‘১৪তম ডিআরএমসি-সামিট ন্যাশনাল সায়েন্স কার্নিভাল-২০২৩’ উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে তিনি এ মন্তব্য করেন ।

তিনি বলেন, এ ধরণের আয়োজন থেকেই বেরিয়ে আসবে দেশের শ্রেষ্ঠ বিজ্ঞানীরা যারা দেশের সীমা অতিক্রম করে বিশ্বের বুকে বাংলাদেশকে তুলে ধরবে। বাংলাদেশের প্রেক্ষাপট ধারণ করে নির্মাণ করবে টেকসই বিদ্যুৎ ও জ্বালানি ব্যবস্থা।

‘যায়েদ সাসটেইন্যাবিলিটি প্রাইজ ২০২৩’ অর্জন করায় ঢাকা রেসিডেনসিয়াল মডেল কলেজ দলকে অভিনন্দন জানিয়ে বলেন, একাগ্রতা থাকলে বাংলাদেশের তরুণরা আগামীতে আরও ভাল করবে। সরকার নানাভাবে সহযোগিতা করছে। বাংলাদেশ জ্বালানি ও বিদ্যুৎ গবেষণা কাউন্সিল হতেও, জ্বালানি ও বিদ্যুৎ খাতের দক্ষতা বৃদ্ধি, আর্থিকভাবে সাশ্রয়ী ও পরিবেশবান্ধব টেকসই জ্বালানি শক্তি উন্নয়নে নতুন উদ্ভাবনী প্রযুক্তি ও পদ্ধতিসমূহ খুঁজে বের করে উদ্ভাবনী সমাধানে গবেষণার জন্য প্রয়োজনীয় আর্থিক ও অন্যান্য সহযোগিতা করা হচ্ছে।


তিন দিনব্যাপী বিজ্ঞান উৎসবের আয়োজনে প্রজেক্ট ডিসপ্লে, দেয়াল পত্রিকা, স্ক্র্যাপ বুক ডিসপ্লে, ফটোগ্রাফি প্রদর্শনী, অলিম্পিয়াডস, আইকিউ টেস্ট, সাইন্সফিকশন লিখন, ইলাসট্রেইশন এক্সজিবিশন, পোস্টার ডিজাইনিং এক্সজিবিশন, গেইমিং কনটেস্ট, লাইন ফলোইং, প্রভৃতি কুইজ, সুডোকু প্রতিযোগিতা, বিজ্ঞান ভিত্তিক উপস্থিত বক্তৃতা ও রোবোটিক ওয়ার্কশপ প্রতিযোগিতা অন্তর্ভুক্ত রয়েছে। ৪৫০টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা অংশ নিয়েছেন।

ঢাকা রেসিডেনসিয়াল মডেল কলেজের অধ্যক্ষ ব্রিগেডিয়ার জেনারেল কাজী শামীম ফরহাদের সভাপতিত্বে অনুঠানে অন্যান্যের মধ্যে টাইটেল স্পন্সর সামিট গ্রুপের ভাইস চেয়ারম্যান লতিফ খান, বিজিএমই সভাপতি ফারুক হাসান ও কনফিডেন্স ইনফ্রাস্ট্রাকচার লিমিটেডের নির্বাহী পরিচালক মো. শহিদুল ইসলাম বক্তব্য রাখেন।

;

বিকাশ-বিজ্ঞানচিন্তা বিজ্ঞান উৎসবে অংশ নিলো ৩ হাজার শিক্ষার্থী



নিউজ ডেস্ক, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
বিকাশ-বিজ্ঞানচিন্তা বিজ্ঞান উৎসবে অংশ নিলো ৩ হাজার শিক্ষার্থী

বিকাশ-বিজ্ঞানচিন্তা বিজ্ঞান উৎসবে অংশ নিলো ৩ হাজার শিক্ষার্থী

  • Font increase
  • Font Decrease

ঢাকা, চট্টগ্রাম, সিলেট, রাজশাহী ও রংপুরের পর খুলনা ও বরিশালে ৪০টি স্কুলের ৭ শতাধিক শিক্ষার্থীদের উদ্ভাবনী ও গবেষণাধর্মী বিভিন্ন প্রকল্প প্রদর্শন, কুইজ, বিজ্ঞানবিষয়ক আলোচনা, রোবট প্রদর্শনী, প্রশ্নোত্তর পর্ব ও বিজ্ঞান ম্যাজিকসহ নানা আয়োজনের মধ্য দিয়ে শেষ হলো ‘বিকাশ-বিজ্ঞানচিন্তা বিজ্ঞান উৎসব ২০২২’-এর আঞ্চলিক পর্ব। প্রায় ৩ হাজার শিক্ষার্থীর অংশগ্রহণে আঞ্চলিক পর্বে বিজ্ঞান প্রকল্প ও কুইজের বিজয়ীরা এবার ফেব্রুয়ারিতে ঢাকায় অনুষ্ঠিত হতে যাওয়া গ্র্যান্ড ফাইনালে অংশ নেবে।

বিকাশ ও বিজ্ঞান ভিত্তিক মাসিক পত্রিকা বিজ্ঞানচিন্তা-র যৌথ আয়োজনে খুলনা এবং বরিশালে আয়োজিত এই উৎসবে দু’টি বিভাগ থেকে প্রায় ৫৫টি প্রজেক্ট প্রদর্শন করে শিক্ষার্থীরা। উৎসবে খুদে বিজ্ঞানীদের নানান উদ্ভাবনী প্রকল্পের মধ্য থেকে প্রতিটি বিভাগে সেরা দশ প্রকল্পকে পুরস্কৃত করা হয়। পাশাপাশি, কুইজে অংশগ্রহণকারী মাধ্যমিকের ১০ জন ও নিম্ন মাধ্যমিকের ১০ জন বিজয়ীকেও পুরস্কার দেয়া হয়।

এবারের বিজ্ঞান উৎসবে দেশজুড়ে আড়াই’শ স্কুলের প্রায় ৩ হাজার শিক্ষার্থী মোট ২৫৪টি উদ্ভাবনী প্রজেক্ট প্রদর্শন করেছেন।

খুলনায় সেন্ট জোসেফস্ হাই স্কুলে জাতীয় পতাকা ও উৎসবের পতাকা উত্তোলন এবং জাতীয় সংগীতের মধ্য দিয়ে অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করেন খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের সহ-উপাচার্য মোসাম্মাৎ হোসনে আরা। এসময় উপস্থিত ছিলেন সেন্ট জোসেফস্ হাই স্কুলের প্রধান শিক্ষক আলফ্রেড রণজিৎ মণ্ডল। বরিশালে এ,আর,এস মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়ে বিজ্ঞান উৎসবের উদ্বোধন করেন বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ের উপচার্য ড. মো. ছাদেকুল আরেফিন। এসময় উপস্থিত ছিলেন এ.আর.এস মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. আনোয়ার হোসেন। দু’টি অনুষ্ঠানেই বরেণ্য অধ্যাপক, গবেষক ও শিক্ষাবিদ সহ উপস্থিত ছিলেন বিকাশের ইভিপি ও হেড অব রেগুলেটরি অ্যান্ড করপোরেট অ্যাফেয়ার্স কর্মকর্তা হুমায়ুন কবির এবং বিজ্ঞানচিন্তার নির্বাহী সম্পাদক আবুল বাসার।

‘বিজ্ঞানে বিকাশ’ স্লোগান নিয়ে দেশব্যাপী শিক্ষার্থীদের বিজ্ঞান শিক্ষা ও চর্চায় আগ্রহী করতে বিজ্ঞান উৎসব শুরু হয় ২০১৯ সাল থেকে। তারই ধারাবাহিকতায় ২০২২ এর বিজ্ঞান উৎসব ঢাকায় শুরু হয়ে বিভাগীয় পর্যায়ে সম্পন্ন হলো। এরপর আবারো ঢাকায় চূড়ান্ত পর্বের আয়োজনের মধ্য দিয়ে শেষ হবে এই বিজ্ঞান উৎসব।

;