Alexa

যাজকদের যৌন নিপীড়নের কথা স্বীকার করলেন পোপ

যাজকদের যৌন নিপীড়নের কথা স্বীকার করলেন পোপ

ফাইল ছবি

যাজকদের যৌন নিপীড়নের কথা প্রথমবারের মতো স্বীকার করলেন পোপ ফ্রান্সিস। মধ্যপ্রাচ্যে ঐতিহাসিক সফরে গিয়ে মঙ্গলবার (৫ ফেব্রুয়ারি) তিনি জানান, যাজকেরা যৌন নিপীড়ন করে থাকেন নানদের। এমনকি অনেক যাজক নানদের যৌনদাসীও করে রাখেন।

পোপ ফ্রান্সিস বলেন, তাঁর পূর্বসূরি পোপ বেনেডিক্ট যাজকদের যৌন হয়রানির নিপীড়ন থেকে নানদের মুক্ত করতে পুরো একটি প্রতিষ্ঠান বন্ধ করে দিয়েছিলেন।

তবে তিনি জানান, সমস্যা চিহ্নিত করার উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। এই কাজ এখনো চলছে।

সংযুক্ত আরব আমিরাতে তিন দিনের ঐতিহাসিক সফরে, ইয়েমেন, সিরিয়া, ইরাক ও লিবিয়া যুদ্ধসহ নানা ইস্যুতে কথা বলেছেন পোপ ফ্রান্সিস। সেখানে সকল ধর্মের আন্তর্জাতিক গুরুদের সম্মেলনে, বিশ্বব্যাপী ধর্মীয় সহিংসতা বন্ধ করে সহনশীলতা বাড়ানোর আহবান জানিয়েছেন তিনি।

মধ্যপ্রাচ্যে নারী নিপীড়ন আর বঞ্চনার আলোচনার মধ্যে, খ্রিস্টানদের চার্চে সংঘটিত যৌন সহিংসতা নিয়ে মুখ খুললেন তিনি। চার্চগুলোতে যৌন নির্যাতন নিয়ে বহুদিন ধরেই অসংখ্য অভিযোগের মুখে তিনি শেষ পর্যন্ত সব স্বীকারই করে নিলেন। বিশ্বে বর্তমানে আলোচিত ‘হ্যাশ ট্যাগ মি টু’ আন্দোলনের মধ্যে তাঁর এই স্বীকারোক্তি নতুন আলোচনার জন্ম দিয়েছে।

উল্লেখ্য, গত রোববার (৩ ফেব্রুয়ারি) সংযুক্ত আরব আমিরাতে যান খ্রিস্টানদের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় গুরু পোপ ফ্রান্সিস। সেখানে আন্তঃধর্মীয় আন্তর্জাতিক সম্মেলন শেষে মঙ্গলবার (৫ ফেব্রুয়ারি) ভ্যাটিকেনে ফিরেছেন তিনি।

আরব উপদ্বীপে এটাই ছিল কোনো রোমান ক্যাথলিকের প্রথম সফর। পোপ ফ্রান্সিস তাঁর এই সফরকে ‘প্রথা ভাঙার সফর’ হিসেবে অভিহিত করেছেন।

সূত্র: বিবিসি

আপনার মতামত লিখুন :