Alexa

ক্রাইস্টচার্চে মসজিদে হামলা, নিহত ৪৯

ক্রাইস্টচার্চে মসজিদে হামলা, নিহত ৪৯

নিউজিল্যান্ডে মসজিদে হামলা, ছবি: সংগৃহীত

নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চে দুটি মসজিদে সন্ত্রাসী হামলার ঘটনা ঘটেছে। এতে অল্পের জন্য বাংলাদেশ ক্রিকেট টিমের খেলোয়াড়রা রক্ষা পেলেও এখন পর্যন্ত দেশটির অন্তত ৪৯ জন মানুষ নিহত হয়েছে।

৪১ জন নিহত হয়েছে হ্যাগলি এরিয়ার মসজিদে আর বাকি ৮ জন লিন্ডউডের মসজিদে নিহত হয়।

শুক্রবার (১৫ মার্চ) দুপুর ১টা ৪০ (নিউজিল্যান্ড সময় অনুযায়ী) এ হামলার ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় কতজন আহত হয়েছে সেটা এখনো নিশ্চিত নয়।

এ ঘটনায় এক নারীসহ চারজনকে গ্রেফতার করেছে বলে জানিয়েছেন পুলিশ কমিশনার মাইক বুশ।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, তারা নিজের জীবন বাঁচাতে দৌড়ে পালিয়েছেন। একইসাথে মসজিদের বাইরে মানুষ পড়ে আছে এবং তাদের রক্ত বের হতে দেখেছেন।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Mar/15/1552627238020.JPG

বেঁচে যাওয়া একজনের বরাত দিয়ে বিবিসি এক প্রতিবেদনে উল্লেখ করে, হামলাকারী একজন মানুষের বুকে গুলি চালিয়ে দেয়। বন্দুকধারী ২০ মিনিটের মতো গুলি চালায়। এতে অন্তত ৬০ জন মানুষ আহত হয়। এ সময় হামলাকারী প্রতিটি মানুষের মৃত্যু নিশ্চিত করতে একাধিকবার গুলি চালায়।

যেখানে মানুষ নামাজ পড়ছে বন্দুকধারী সেই জায়গাটা নিশান করে গুলি চালায়। তারপর সে নারীরা যেখানে নামাজ পড়ে সেদিকে যায়। সেখানেও সে গুলি চালায়।

দেশটির পুলিশের বরাত দিয়ে স্থানীয় সংবাদমাধ্যমগুলো জানায়, এক ব্যক্তি দুপুরে ১টা ৪০মিনিটে ক্রাইস্টচার্চের একটি মসজিদে প্রবেশ করে। এরপর গুলি চালাতে থাকে। পরবর্তীতে লিন্ডউডের আরেকটি মসজিদে হামলা চালানো হয়। এই ঘটনায় এখন পর্যন্ত ৪০ নিহত হলেও আহতের সংখ্যা জানা যায়নি।

শুক্রবার হওয়ায় জুম্মার নামাজের কারণে মসজিদগুলোতে মানুষের সমাগম ছিলো। এছাড়া ওই এরিয়ার স্কুলগুলোতে তালা লাগিয়ে দেয়া হয়েছে। এতে করে কেউ স্কুলের ভেতর ও বাইরে আসা যাওয়া করতে পারছে না। স্থানীয়দের ঘর থেকে বের হতে নিষেধ করেছে প্রশাসন। দেশটির প্রধানমন্ত্রী জাসিন্দা আরদার্ন দিনটিকে কালো দিন হিসেবে ঘোষণা দিয়েছেন।

আপনার মতামত লিখুন :