এক এজেন্সি মাত্র ৫০০ জনকে উমরায় পাঠাতে পারবে

ইসলাম ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
মক্কা শরীফ, ছবি: সংগৃহীত

মক্কা শরীফ, ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

উমরা ব্যবস্থাপনার বিশৃঙ্খলা নিয়ে অভিযোগ বেশ পুরনো। বিভিন্ন সময় অভিযোগের প্রেক্ষিতে বেশকিছু হজ এজেন্সিকে জরিমানাও দিতে হয়েছে। হজ ও উমরা নীতিমালা উপেক্ষা করে উমরা ব্যবস্থাপনায় এবার রাশ টানার সিদ্ধান্ত নিয়েছে ধর্ম মন্ত্রণালয়। এরই প্রেক্ষিত্রে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে, চলতি বছর থেকে কোনো হজ এজেন্সি ৫০০ জনের বেশি কাউকে উমরায় পাঠাতে পারবে না। তবে কোনো হজ এজেন্সির আগ্রহী উমরাযাত্রীর সংখ্যা বেশি হলে সংশ্লিষ্ট এজেন্সির আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে প্রয়োজনে সংখ্যা বাড়িয়ে সরকার প্রজ্ঞাপন জারি করবে।

রোবাবর (১৮ নভেম্বর) ধর্ম মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সহকারী সচিব আবদুল্লাহ আরিফ মোহাম্মদ স্বাক্ষরিত এক জরুরি বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়, জাতীয় হজ ও ওমরা নীতি-১৪৩৯ হিজরি/২০১৮খ্রি. অনুসারে উমরা পরিচালনা সংক্রান্ত সব কার্যক্রম গ্রহণ করতে হবে।

জাতীয় হজ ও ওমরা নীতির অনুচ্ছেদ নং ২১.২.৩ মোতাবেক প্রতি উমরা এজেন্সি সর্বোচ্চ ৫০০ জনকে পাঠাতে পারবে। তবে উমরাযাত্রীর সংখ্যা বেশি হলে প্রয়োজনে সংখ্যা বাড়িয়ে প্রজ্ঞাপন জারি করবে সরকার।

উমরা পালনকারী কোনো ব্যক্তি মারা গেলে বা অসুস্থ থাকারে কারণে যথাসময়ে দেশে ফিরতে না পারলে তা জেদ্দাস্থ হজ কাউন্সেলরকে জানাতে হবে।

সেই সঙ্গে প্রতি বছর হিজরি শাওয়াল মাসের ১৫ তারিখের মধ্যে সংশ্লিষ্ট এজেন্সির মাধ্যমে উমরা পালনকারীরা যথাসময়ে দেশে ফিরেছেন মর্মে পরিচালক, হজ অফিস, ঢাকা বরাবর প্রতিবেদন দাখিল করতে হবে।

এছাড়া কোনো এজেন্সি জাতীয় হজ ও ওমরা নীতি-১৪৩৯ হিজরি/২০১৮ খ্রি. এর অনুচ্ছেদ ২১ এ বর্ণিত কোনো নির্দেশনা লঙ্ঘন করলে সংশ্লিষ্ট এজেন্সির বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে বিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখ করা হয়।