মুসলমানদের প্রতি সহানুভূতি প্রকাশে নিউজিল্যান্ডের নারীদের মাথায় স্কার্ফ

ইসলাম ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
নিউজিল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী জাসিন্ডা আরডার্ন, ছবি: সংগৃহীত

নিউজিল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী জাসিন্ডা আরডার্ন, ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

ক্রাইস্টচার্চের দুই মসজিদে হামলার পর নিউজিল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী জাসিন্ডা আরডার্ন মুসলমানদের প্রতি সহানুভূতি প্রকাশে চেষ্টা ত্রুটি রাখেননি। প্রধানমন্ত্রী নিজে ইসলামের প্রতি সম্মান দেখিয়ে শালীন পোশাক পরিধান করে শহীদ পরিবারের পাশে এসে সান্ত্বনা দিয়েছেন। পার্লামেন্টের অধিবেশন শুরু করেছেন পবিত্র কোরআন তেলাওয়াতের মাধ্যমে। পার্লামেন্টে ‘আসসালামু আলাইকুম’ বলে ভাষণ শুরু করেছেন।

শুক্রবার (২২মার্চ) রাষ্ট্রীয় টেলিভিশন ও রেডিওতে জুমার আজান সম্প্রচারের উদ্যোগ নিয়েছেন। রাস্তার মোড়ে মোড়ে আরবিতে ‘ইন্নালিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন’ লেখা স্মৃতিস্থম্ভ স্থাপন করেছেন।

এবার মুসলিম সমাজের সঙ্গে সংহতি প্রকাশ করে নিউজিল্যান্ডের নারীরা শুক্রবার (২২ মার্চ) দেশজুড়ে একদিনের জন্য মাথা ঢেকে রাখবেন বলে ঘোষণা দিয়েছেন।

‘হেডস্কার্ফ ফর হারমনি’ শিরোনামের আয়োজিত কর্মসূচির আয়োজকরা বলছেন, কী ধরনের কাপড় মাথায় পরতে হবে, অথবা কিভাবে তা পরতে হবে, তা নিয়ে বিশেষ কোনো নিয়মকানুন থাকবে না।

শুধু এর মাধ্যমে কিউইরা নিউজিল্যান্ডের মুসলমান নারীদের প্রতি তাদের সহমর্মিতা প্রকাশ করবেন বলে নিউজিল্যান্ড হেরাল্ড সংবাদপত্র খবর দিয়েছে।

এ কর্মসূচি ইতোমধ্যে ব্যাপক আলোচনার জন্ম দিয়েছে। অকল্যান্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রফেসর ড. যাইন আলী বলেছেন, এই কর্মসূচি নিয়ে তিনি ভীষণভাবে গর্বিত। নিউজিল্যান্ডের মুসলমান নারীরাও অনুষ্ঠানটি নিয়ে গর্বিত হতে পারেন বলে তিনি মন্তব্য করেন।

১৫ মার্চ শুক্রবার একজন শ্বেতাঙ্গ শ্রেষ্ঠত্ববাদী উগ্রপন্থী নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চ শহরের দু’টি মসজিদে হামলা চালিয়ে ৫০ জনকে হত্যা করে।

এ হত্যাকান্ডের জের ধরে মুসলমানরা যে শোক বয়ে বেড়াচ্ছেন তার মর্ম অনুধাবনের অংশ হিসেবে এ কর্মসূচি পালিত হবে।

আপনার মতামত লিখুন :