Alexa

৪ জুলাই থেকে বিমানের হজ ফ্লাইট শুরু, ফিরতি ১৭ আগস্ট

৪ জুলাই থেকে বিমানের হজ ফ্লাইট শুরু, ফিরতি ১৭ আগস্ট

৪ জুলাই থেকে বিমানের হজ ফ্লাইট শুরু করার সিদ্ধান্ত হয়েছে, ছবি: সংগৃহীত

বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইনস আগামী ৪ জুলাই থেকে হজ ফ্লাইট শুরু করবে। হজযাত্রী পরিবহনে ৩২ দিনে ১৫৭টি ডেডিকেটেড ও ৩২টি শিডিউল ফ্লাইট পরিচালনা করবে সংস্থাটি। হজ ফ্লাইট শেষ হবে ৫ আগস্ট।

এ বছর বাংলাদেশ থেকে হজে যাবেন এক লাখ ২৭ হাজার ১৯৮ জন। এর মধ্যে ৬৩ হাজার ৫৯৯ জনকে পরিবহন করবে রাষ্ট্রায়ত্ত সংস্থাটি। বিমানের ফিরতি হজ ফ্লাইট ১৭ আগস্ট থেকে শুরু হয় শেষ হবে ১৪ সেপ্টেম্বর।

বিমান সূত্রে জানা গেছে, এ বছরই প্রথম ঢাকা থেকে মদিনায় ১১টি হজ ফ্লাইট পরিচালনা করা হবে। এ ছাড়া চট্টগ্রাম থেকে জেদ্দা ১০টি, সিলেট থেকে জেদ্দা ৩টি, চট্টগ্রাম থেকে মদিনা ৭টি হজ ফ্লাইট পরিচালনা করা হবে। বাকি ১২৬টি ফ্লাইট ঢাকা থেকে জেদ্দায় নিয়ে যাবে হজযাত্রীদের।

এ বছর হজ ফ্লাইটে নিজস্ব বোয়িং উড়োজাহাজ ব্যবহার করবে বিমান। হজ ফ্লাইট চলার সময় নিয়মিত শিডিউল ঠিক রাখতে ২টি উড়োজাহাজ স্বল্প মেয়াদে লিজ নেওয়া হবে।

এ বছরই প্রথম ঢাকায় সৌদি আরবের প্রি-এরাইভাল ইমিগ্রেশন করা হবে হজযাত্রীদের। ফলে সৌদি আরবে গিয়ে হজযাত্রীদের ইমিগ্রেশনের জন্য লাইনে দাঁড়াতে হবে না।

তবে এ কারণে ফ্লাইটের এক দিন আগেই হজযাত্রীদের তথ্য সৌদি আরব পাঠাতে হবে। ওই সময়ের পর ফ্লাইটে নতুন করে যাত্রী নেওয়া যাবে না। একই সঙ্গে নির্ধারিত শিডিউলের বাইরে অতিরিক্ত কোনো স্লটও দেবে না সৌদি সরকার।

বিগত হজ মৌসুমে স্লট জটিলতা, শিডিউল ঠিক না রাখায় এক লাখ সৌদি রিয়াল জরিমানা দিয়েছিল বিমান। এবার জটিলতা এড়াতে কঠোর হচ্ছে সংস্থাটি। সিদ্ধান্ত হয়েছে, এ বছর কোনো যাত্রী হজ ফ্লাইটের যাত্রা বাতিল করলে বা সময় পরিবর্তন করলে জরিমানা আদায় করা হবে।

হজ ফ্লাইট চালুর বিষয়ে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের মহাব্যবস্থাপক (জনসংযোগ) শাকিল মেরাজ জানিয়েছেন, সুষ্ঠুভাবে হজ ফ্লাইট পরিচালনা করতে বিমানের পক্ষ থেকে সকল প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছে। আশা করছি, এবার আর কোনো ধরনের জটিলতা সৃষ্টি হবে না। হজযাত্রীরা আরামে হজযাত্রা করবেন।

আপনার মতামত লিখুন :