loader
Foto

বদলি হজের লোক বাছাইয়ে সর্তক থাকুন

১৪ জুলাই শুরু হবে হজ ফ্লাইট। বাংলাদেশ থেকে এবার প্রায় ১ লাখ ২৭ হাজার ধর্মপ্রাণ মুসলামান হজপালনের জন্যে সৌদি আরব গমন করবেন। এবার যারা হজে যাচ্ছেন, তাদের প্রস্তুতি নিতে হবে এখন থেকেই। হজ পালনেচ্ছুদের সুবিধার্থে বার্তা২৪.কম ধারাবাহিকভাবে হজের নিয়ম-কানুন, মাসয়ালা, আমল ও প্রয়োজনীয় দোয়া প্রকাশ করবে। আজ থাকছে পঞ্চম পর্ব

অন্যের পক্ষ থেকে হজ আদায় হলো বদলি হজ। বদলি হজে ইহরাম বাঁধার সময় বলতে হবে, আমি অমুকের পক্ষ থেকে হজ করছি।

কারো ওপর হজ ফরজ হওয়ার পর যদি সে কোনোভাবেই আদায় করতে না পারে আর ভবিষ্যতে তার দ্বারা হজ আদায়ের সম্ভাবনা না থাকে, যেমন এমন রোগাক্রান্ত তার আর সুস্থ হওয়ার সম্ভাবনা নেই, প্যারালাইসিস রোগে আক্রান্ত কিংবা দুর্বলতার কারণে বাহনে উঠার ক্ষমতা হারিয়ে ফেলেছে; এমন ব্যক্তি তার নিজের পক্ষ থেকে অন্য কারো দ্বারা হজ করাতে পারবে। হজের পূর্ণ খরচ নির্দেশদাতাকে আদায় করতে হবে।

মাসয়ালা: অসুস্থতা বা অন্যকোনো কারণে হজ করতে অক্ষম হওয়ায় কারো মাধ্যমে বদলি হজ করানোর পর ওই ব্যক্তি যদি হজ করতে সক্ষম হয়, আর সামর্থ্য থাকে তাহলে আবার হজ আদায় করতে হবে। পূর্বের আদায়কৃত হজটি তার জন্য নফল হিসেবে গণ্য হবে।

মাসয়ালা: যে নিজের হজ আদায় করেছেন তিনি অন্যের বদলি হজের দায়িত্ব নিতে পারবেন।

মাসয়ালা: যে নিজের হজ আদায় করেনি, তার ওপর হজ ফরজও হয়নি। এমতাবস্থায় অন্যের পক্ষ থেকে তিনি বদলি হজ করতে পারবেন, তবে বিষয়টি সুন্দর না; উত্তমও হবে না।

মাসয়ালা: যে নিজের হজ আদায় করেনি কিন্তু তার ওপর হজ ফরজ হয়ে আছে। তাহলে তার জন্য অন্যের পক্ষ থেকে বদলি হজের জন্য যাওয়া জায়েজ নেই, মাকরূহে তাহরিমি ও গোনাহের কাজ। তবে ওই লোকের জন্য বৈধ না হওয়া সত্ত্বেও যদি হজ করে, তাহলে যে হজে পাঠিয়েছেন তার পক্ষ থেকে হজ আদায় হয়ে যাবে।

আরও পড়ুন: ক্রোয়েশিয়ার ব্যতিক্রমী নকশার রিজেকা মসজিদ

মাসয়ালা: কোনো নারীর কাছে যদি নিজের হজ করার পরিমাণ সম্পদ থাকে আর তার সঙ্গে হজে যাবার জন্য মাহরাম না পায় কিংবা মাহরামের খরচ বহন করার মতো সামর্থ্য না হয় তাহলে ওই নারী নিজের পক্ষ থেকে বদলি হজ করাবে কিংবা হজের জন্য অসিয়ত করে যাবে।

মাসয়ালা: বদিল হজ আদায় করার বিনিময়ে কোনো পারিশ্রমিক নেওয়া যাবে না। পারিশ্রমিক নেওয়া ও দেওয়া গোনাহের কাজ। তারপর কেউ পারিশ্রমিক নিয়ে হজ করলেও নির্দেশদাতার পক্ষ থেকে আদায় হয়ে যাবে। এক্ষেত্রে পারিশ্রমিক যা নিয়েছিল তা ফেরত দেওয়া কর্তব্য।

মাসয়ালা: হজের জন্য যে টাকা দেওয়া হয়েছে তা যদি সব না লাগে তাহলে মালিকের কাছে অবশিষ্ট টাকা ফেরত দিতে হবে। আর যদি হজের হুকুমদাতা টাকা দিয়ে বলেন, এ টাকা থেকে খরচ করবেন, যা রয়ে যাবে তা আপনার। তাহলে অবশিষ্ট বা অব্যবহৃত টাকা বদলি হজ আদায়কারী নিতে পারবেন। মদিনায় জিয়ারতের খরচ যদি নির্দেশদাতা প্রদান করেন, তাহলে তা খরচ করে মদিনায় জিয়ারত করতে পারবেন।

মাসয়ালা: বদলি হজের নির্দেশদাতা যেভাবে হজের নির্দেশ দেবেন ঠিক সেভাবেই হজ আদায় করতে হবে। উমরা ছাড়া শুধু হজের নির্দেশ দিলে ইফরাদ হজ করতে হবে। যদি তামাত্তুর জন্য নির্দেশ দেয় তাহলে তামাত্তু আদায় করতে পারবে। কিরান আদায় করার কথা বললে কিরান আদায় করবে। হজের নির্দেশদাতা শুধু হজের কথা বলেছে, কিরান, তামাত্তু বা ইফরাদ সম্পর্কে ধারণা নেই তার। এ ক্ষেত্রে আমাদের দেশে যেহেতু তামাত্তু হজ বেশি আদায় করা হয়, হজ বলতে উমরা ও হজ দু’টিই বুঝানো হয়। তাই বদলি হজ পালনকারী তামাত্তু হজই আদায় করবে। যদি ইফরাদ বা কিরান আদায় করে তাহলে সর্বসম্মতিক্রমে তা জায়েজ হবে।

মাসয়ালা: হজের নির্দেশদাতা যদি স্পষ্ট করে কোনো ধরণের নির্দিষ্ট হজ পালনের কথা বলে আর হজ পালনকারী ইচ্ছা করে নির্দেশ উপেক্ষা করে অন্যভাবে হজ আদায় করে তাহলে সেই হজ নির্দেশদাতার পক্ষ থেকে হবে না। এ ক্ষেত্রে নির্দেশদাতার সমুদয় টাকা ফেরত দিতে হবে। বদলি হজ পালনকারীর পক্ষ থেকে ফরজ হজ হিসেবেও তা আদায় হবে না। নফল হজ হিসেবে গণ্য হবে। ভবিষ্যতে বদলি হজ পালনকারীর ওপর হজ ফরজ হলে তাকে আবার হজ করতে হবে।

মাসয়ালা: হজের নির্দেশদাতার শহর থেকে হজ শুরু করতে হয়।

মাসয়ালা: হজের উপযুক্ত হবার পরও কোনো কারণে হজ না করতে পারলে তার কর্তব্য- হজের জন্য অসিয়ত করে যাওয়া। যদি কেউ অসিয়ত না করে যায় কিংবা হজের ব্যবস্থা না করে মারা যায়- তারপর তার ছেলে-মেয়ে বা উত্তরাধিকারীরা যদি তার পক্ষ থেকে বদলি হজ আদায় করে বা বদলি হজ করিয়ে নেয় তাহলে আশা করা যায় এর উসিলায় আল্লাহতায়ালা মৃত ব্যক্তিকে মাফ করে দেবেন।

মাসয়ালা: নিজের কোনো প্রিয় ব্যক্তি যেমন- উস্তাদ, পীর, পিতা-মাতা, শ্বশুর-শাশুড়ী বা কোনো আত্মীয়-স্বজনের পক্ষ থেকে বদলি হজ করতে পারবে। এতে আশা করা যায়, যার পক্ষ থেকে হজ আদায় করা হবে তিনি সওয়াব পাবেন।

মাসয়ালা: নিজের নফল হজ করার তুলনায় অন্যের ফরজ হজের বদলি হজ করা বেশি উত্তম।

লেখক: অধ্যাপক, উর্দু বিভাগ, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়

হজ বিষয়ে জানতে আরও পড়ুন

** হজ: আল্লাহপ্রেমিকদের মিলনমেলা

** হিসাব রক্ষক ও ফিল্ড সুপারভাইজার এখন সরকারি হজগাইড!

** শ্রেষ্ঠ আমল হজ, বিনিময়ে জান্নাত

** নারীদের ওপর কখন হজ ফরজ?

** যেসব পদ্ধতিতে হজ আদায় করা যায়

Author: ড. মুফতি মুহাম্মদ গোলাম রব্বানী, অতিথি লেখক, ইসলাম

barta24.com is a digital news outlet

© 2018, Copyrights Barta24.com

Emails:

[email protected]

[email protected]

Editor in Chief: Alamgir Hossain

Email: [email protected]

+880 173 0717 025

+880 173 0717 026

8/1 New Eskaton Road, Gausnagar, Dhaka-1000, Bangladesh