Barta24

শুক্রবার, ২৩ আগস্ট ২০১৯, ৮ ভাদ্র ১৪২৬

English

চালের অস্বাভাবিক দাম বৃদ্ধির সুযোগ নেই: খাদ্যমন্ত্রী

চালের অস্বাভাবিক দাম বৃদ্ধির সুযোগ নেই: খাদ্যমন্ত্রী
চালের অস্বাভাবিক দাম বৃদ্ধির সুযোগ নেই: খাদ্যমন্ত্রী, ছবি: বার্তা২৪.কম
স্টাফ করেসপন্ডেন্ট
বার্তা২৪.কম


  • Font increase
  • Font Decrease

চালের অস্বাভাবিক দাম বৃদ্ধির সুযোগ নেই উল্লেখ করে খাদ্যমন্ত্রী সাধন চন্দ্র মজুমদার বলেছেন, বাজারে অযৌক্তিক কারণে অস্বাভাবিকভাবে চালের দাম বৃদ্ধির কোনো সুযোগ নেই। তবুও কেন এই সমস্যা হচ্ছে তা খতিয়ে দেখতে হবে। দেশ হিসেবে আমরা খাদ্যে সয়ংসম্পন্ন হয়েছি অনেক আগে। ইতোমধ্যে প্রয়োজনের চেয়ে অনেক বেশি চাল ও খাদ্যশস্য মজুদ আছে। তারপরও চালের দাম বাড়বে কেন?

বৃহস্পতিবার (১০ জানুয়ারি) খাদ্য অধিদফতরে নির্বাচনের পর হঠাৎ প্রতি কেজি চালের দাম ৫ থেকে ১০ টাকা পর্যন্ত বৃদ্ধির বিষয়ে এক মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় উপস্থিত ছিলেন অটো চাল মিল মালিকদের সংগঠনের নেতৃবৃন্দ, চালের আড়তদার ও বিভিন্ন পর্যায়ের চাল ব্যবসায়িরা। অনুষ্ঠানে খাদ্যমন্ত্রী এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, দেশে কৃষক ধান উৎপাদন করে, সেই ধান প্রক্রিয়াজাত করে খুচরা বিক্রেতার কাছে পৌঁছে দেয় মিল মালিকরা। আর সেই খুচরা ব্যবসায়িরা সাধারণ ভোক্তাদের কাছে পৌঁছে দেয়। এখানে তিন স্তরে মধ্যস্থাতাকারী থাকে। চালের দাম বাড়লে এই তিন পর্যায়ের অংশগ্রহণকারীদের দায় নিতে হবে।

আমি বিষয়টি গণমাধ্যমে দেখার সঙ্গে সঙ্গে বাণিজ্যমন্ত্রীর সঙ্গে কথা বলে সংশ্লিষ্টদের ডেকেছি। আমরা এখানে বিস্তারিত কথা বলবো। সমাধানের উপায় খুঁজে বের করবো। কারণ বিষয়টি একেবারেই সাধারণ মানুষের সঙ্গে সম্পৃক্ত- যোগ করেন খাদ্যমন্ত্রী।

এ সময় উক্ত মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সদ্য দায়িত্ব নেওয়া বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুন্সি। তিনি বলেন, আমার যদিও খাদ্যের বিষয়ে কোনো কাজ নেই। কিন্তু চালের দাম বৃদ্ধি পেলে আমার জবাবদিহিতা রয়েছে। ফলে আমি খাদ্যমন্ত্রীর কাছে জানার পরপরই সম্মতি দিয়েছি, বিষয়টি নিয়ে আমাদের বসতে হবে।

টিপু মুন্সি বলেন, আমি পরিস্কার বলতে চাই যে দেশে খাদ্য মজুদ থাকে সেই দেশে হুটহাট খাদ্যের দাম বৃদ্ধি পেতে পারে না। এটা আমাদের খতিয়ে দেখতে হবে। যেকোনো মূল্যে চালের দাম স্বাভাবিক রাখতে কাজ করতে হবে।

মতবিনিময় সভায় নওগাঁ জেলা চাল কল মালিক নেতা নায়েব আলী বলেন, আমরা জাস্ট ধান ক্রয় করে প্রক্রিয়াজাত করে বাজারে চাল বিক্রি করি। এখানে সামান্য লাভ রেখে আমরা চাল ছেড়ে দেই। চালের দাম বৃদ্ধির বিষয়টি আমাদের ওপর বর্তায় না। এটা প্রতিরোধে খুচরা ব্যবসায়িদের প্রতি নজর দিতে হবে।

এ সময় আরেক চাল কল মালিক সমিতির নেতা বেলাল হোসেন বলেন, আমরা অটো রাইস মিল মালিকরা যে চাল ৪৭ টাকা কেজি দরে বিক্রি করি সেটা ঢাকায় এসে প্রতি কেজি ৭০ থেকে ৭৮ টাকা করে হয় কেমনে? এটা আমাদেরও প্রশ্ন। অযথা চাল মিল মালিকদের দোষারোপ করবেন না। এটা আমাদের প্রতি অন্যায়। কোথায় এই সমস্যা আছে সেটা সঠিক তদারকি করতে হবে।

এ সময় দেশের বিভিন্ন এলাকা থেকে আসা চাল ব্যবসায়ি ও মিল মালিকরা বক্তব্য দেন।

আপনার মতামত লিখুন :

সাম্প্রদায়িক অপশক্তি বাংলাদেশের শত্রু: কাদের

সাম্প্রদায়িক অপশক্তি বাংলাদেশের শত্রু: কাদের
ঢাকেশ্বরী মন্দিরের সামনে জন্মাষ্টমীর শোভাযাত্রার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখছেন সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের/ ছবি: বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম

সাম্প্রদায়িক অপশক্তি শুধু সংখ্যালঘুদের নয়, সারা বাংলাদেশের শত্রু বলে জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

শুক্রবার (২৩ আগস্ট) রাজধানীর ঢাকেশ্বরী মন্দিরের সামনে শ্রী কৃষ্ণ'র জন্মাষ্টমীর শোভাযাত্রার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন।

শেখ হাসিনার সরকার সংখ্যালঘুবান্ধব উল্লেখ করে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘বাংলাদেশের হিন্দু সম্প্রদায় ও সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের লোকজনকে শুধু একটি কথাই বলব, শেখ হাসিনার সরকার মাইনরিটি-বান্ধব সরকার। শেখ হাসিনা যতদিন আছেন, আপনাদের নিরাপত্তা নিয়ে উদ্বিগ্ন হওয়ার কারণ নেই।’

তিনি বলেন, ‘দুর্গাপূজাসহ অন্যান্য ধর্মীয় উৎসবগুলো শান্তিপূর্ণভাবে উদযাপিত হচ্ছে। এদিক দিয়ে শেখ হাসিনা সরকার আপনাদের কাছে সবচেয়ে বেশি নিরাপদ। আসুন আমরা সকলে মিলে শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালী করি।’

এ সময় তিনি ভারত-বাংলাদেশের সম্পর্কে কথা উল্লেখ করে বলেন, ‘বাংলাদেশের সঙ্গে ভারতের সম্পর্ক এখন নতুন উচ্চতায়। প্রতিবেশীর সঙ্গে আমাদের সম্পর্কের কোনো সমস্যা নেই। আমাদের দেশের অমীমাংসিত সমস্যাগুলো সমাধানে করে এই সম্পর্ক আরেক ধাপ এগিয়ে যাব।’

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Aug/23/1566561163289.jpg

অনুষ্ঠানে ডিএমপি কমিশনার আছাদুজ্জামান মিয়া বলেন, ‘বাংলাদেশ সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির রোল মডলে। সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি দেখতে হলে বাংলাদেশে আসতে হবে। দেশে নির্বিঘ্নে নিরাপদে মানুষ ধর্মীয় অনুষ্ঠান পালন করছে। এটা রাষ্ট্রীয় সিদ্ধান্ত।’

তিনি বলেন, ‘উৎসব করবেন আপনারা, নিরাপত্তা পালনের দায়িত্ব সরকারের। তবে নাগরিক দায়িত্ব পালন করতে হবে। যেন অন্য কারো ধর্মীয় ভাবগাম্ভীর্যে আঘাত না লাগে সেই বিষয়টি আপনাদের লক্ষ রাখতে হবে।’

পরে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের মেয়র সাঈদ খোকন আনুষ্ঠানিকভাবে জন্মাষ্টমীর শোভাযাত্রা উদ্বোধন করেন। উদ্বোধনের পরেই হাজারো কৃষ্ণভক্ত শোভাযাত্রা শুরু করেন।

ময়মনসিংহে ১০ জুয়াড়িকে সাড়ে ৯ লক্ষাধিক টাকা জরিমানা

ময়মনসিংহে ১০ জুয়াড়িকে সাড়ে ৯ লক্ষাধিক টাকা জরিমানা
ময়মনসিংহের মানচিত্র, ছবি: সংগৃহীত

 

ময়মনসিংহের সার্কিট হাউজ মাঠের পাশে ক্রীড়া পল্লীতে ৭টি ক্লাবে একযোগে ৫ ঘণ্টাব্যাপী অভিযান চালিয়ে তাস দিয়া জুয়া খেলার অপরাধে ১০ জুয়াড়িকে ৯ লাখ ৬২ হাজার টাকা জরিমানা করেছে র‌্যাপিড এ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‍্যাব)-১৪ এর ভ্রাম্যমাণ আদালত। এছাড়াও জুয়া খেলায় অংশ নেওয়া ১৬০ জনকে কান ধরানো হয়।

এ অভিযানের নেতৃত্বে দেন র‌্যাব-১৪'র অধিনায়ক লে. কর্নেল মোহাম্মদ এফতেখার উদ্দিন। অভিযানে আটকৃতদের বিরুদ্ধে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আশরাফ সিদ্দিকী

শুক্রবার (২৩ জুলাই) বিকেলে র‍্যাব-১৪ থেকে পাঠানো এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে র‍্যাব জানায়, বৃহস্পতিবার (২২ আগস্ট) রাত ১০টা থেকে ৩টা পর্যন্ত ক্রীড়া পল্লীর সাতটি ক্লাবে জুয়ার আসরে একযোগে অভিযান চালায় র‌্যাব-১৪'র একটি দল।

অভিযানে রেনেসাঁ অ্যাথলেটিক ক্লাবে খোকনকে (২৩) ১ লক্ষ ১০ হাজার টাকা, শাপলা ক্লাবে আলমগীরকে (৩৫) ১ লক্ষ ও জামালকে (৩৪) ২ লক্ষ টাকা, সূর্যমুখী ক্লাবে রফিকুলকে (৪৩) ২ লক্ষ ও শহিদুলকে (৪৫) ২ লক্ষ টাকা, বৈকালী ক্লাবে রফিকুলকে (৫৫) ২০ হাজার ও আমিনুলকে (৩৬) ৪০ হাজার টাকা, সিরাজ মেমোরিয়াল ক্লাবে আনোয়ারকে (৪৭) ১২ হাজার টাকা এবং আল-হেলাল ক্লাবে হাফিজুলকে (৩৫) ৪০ হাজার ও সাজ্জাতকে (৩৮) ৪০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

এসময় সাতটি ক্লাবেই তাস দিয়ে জুয়া খেলায় অংশ নেওয়া ১৬০ জনকে আটক করে কান ধরে উঠবস করানো হয় এবং পরবর্তীতে আর কোন দিন জুয়ায় অংশ না নেওয়ার শর্তে তাদের ছেড়ে দেওয়া হয়।

র‍্যাব-১৪ আরও জানায়, অভিযানে মোট ১৯৭ টি মোবাইল ফোন জব্দ করা হয়। পরে সেগুলোকে পানিতে ভিজিয়ে নষ্ট করা হয়। এছাড়া সাতটি ক্লাব থেকে মোট ৫০০ সেট তাস জব্দ করা হয়।

এ সম্পর্কিত আরও খবর

Barta24 News

আর্কাইভ

শনি
রোব
সোম
মঙ্গল
বুধ
বৃহ
শুক্র