রাজনৈতিক কাকদের নিয়ে বিএনপির দল গঠন: তথ্যমন্ত্রী

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, চট্টগ্রাম
চট্টগ্রামে ছয় দফা দিবসের আলোচনায় তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ/ ছবি: বার্তা২৪.কম

চট্টগ্রামে ছয় দফা দিবসের আলোচনায় তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ/ ছবি: বার্তা২৪.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে হত্যার পরে রাজনৈতিক কাকদের নিয়ে বিএনপি গঠন করায় দলটি ঐতিহাসিক ছয় দফা, ৭ মার্চ পালন করে না বলে মন্তব্য করেছেন তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ।

তিনি বলেন, ‘স্বাধীনতার পরিকল্পনার প্রেক্ষিতেই ছয় দফা ঘোষণা করেছিলেন বঙ্গবন্ধু। কিন্তু বিএনপি বাংলাদেশে বিশ্বাস না করে পাকিস্তানী ভাবধারায় বিশ্বাসী। এজন্যই দলটি ঐতিহাসিক দিবসগুলো পালন করে না। চট্টগ্রামে কয়েক ধরনের বিএনপি রয়েছে। কিছু হঠাৎ বিএনপি, আর কিছু বাই-চান্স বিএনপি।’

শুক্রবার (৭ জুন) বিকালে চট্টগ্রাম প্রেসক্লাবের বঙ্গবন্ধু হলে ছয় দফা দিবস উপলক্ষে আলোচনায় সভায় তিনি এসব কথা বলেন।

তথ্যমন্ত্রী বলেন, ‘দীর্ঘ সময় দল ক্ষমতায় থাকায় দলে অনেক সুযোগ সন্ধানীর অনুপ্রবেশ ঘটেছে। এরা প্রায় সময় দল ও সরকারের উন্নয়ন কর্মকাণ্ডকে প্রশ্নবিদ্ধ করার অপচেষ্টা চালানোর চেষ্টা করে। তাদের চিহ্নিত করতে হবে।’

সভায় শিক্ষা উপমন্ত্রী ব্যারিস্টার মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল বলেন, ‘তরুণ ও নতুন, যারা আওয়ামী লীগের রাজনীতিতে এসেছি, আমাদের ছয় দফা ভালো করে জানতে হবে। যে যুগান্তকারী চিন্তা ছয় দফায় লিপিবদ্ধ হয়েছিল তা ধারণ করতে হবে। অন্যথায় কেউ ভবিষ্যৎ রাজনীতিতে ঠিকে থাকতে পারবে না।’

তিনি ছয় দফা ঘোষণা করা চট্টগ্রামের ঐতিহাসিক লালদিঘিতে ছয় দফা নিয়ে ভাস্কর্য স্থাপনের জন্য সিটি মেয়রের প্রতি আহ্বান জানান।

নগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দিন বলেন, ‘রাজনীতিতে সুস্পষ্ট ধারণা থাকতে হবে। আদর্শ ধারণ করে ত্যাগের মন মানসিকতায় এগিয়ে আসতে হবে। ছয় দফার মাধ্যমেই জাতীয়তাবাদের উন্মেষ হয়েছিল। এর হাত ধরেই এসেছে স্বাধীনতা, সার্বভৌমত্ব।’

সভায় সভাপতিত্ব করেন নগর আওয়ামী লীগের (ভারপ্রাপ্ত) সভাপতি মাহতাব উদ্দিন। এতে অন্যদের মধ্যে রাউজানের সাংসদ ফজলে করিম চৌধুরী, দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মোসলেম উদ্দিন আহমেদ, সাধারণ সম্পাদক মফিজুর রহমান, মহানগর আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি নঈম উদ্দিন চৌধুরী, খোরশেদ আলম সুজন প্রমুখ বক্তব্য রাখেন। সভা পরিচালনা করেন নগর আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক শফিকুল ইসলাম।

আপনার মতামত লিখুন :