১০ বছর পরে পৃথিবীতে কোনো বিশেষ ভাষা রাজত্ব করবে না

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম
ছবিঃ সংগৃহীত

ছবিঃ সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

১০ বছর পরে পৃথিবী হবে মাতৃভাষার পৃথিবী,এখানে  কোন বিশেষ ভাষা রাজত্ব করবেনা বলে মন্তব্য করেছেন ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার। তিনি বলেন, আজকে আমরা যদি বাংলাকে সেই স্থানে নিয়ে যেতে না পারি তাহলে আমরা পিছিয়ে থাকবো। তাই প্রযুক্তির সাথে বাংলা ভাষাকে সম্পৃক্ত করতে আমাদের সবাইকে এগিয়ে আসতে হবে।

শনিবার ( ২৩ ফেব্রুয়ারি) রাজধানীর একটি হোটেলে ডিজিটাল আর্থিক সেবাদাতা প্রতিষ্ঠান নগদ এর ডিজিটাল কেওয়াইসি নিবন্ধন প্রক্রিয়া উদ্বোধন কালে এসব মন্তব্য করেন মন্ত্রী।

তিনি বলেন  আজকের নগদের এই সেবা উদ্বোধন এর মাধ্যমে কে ওয়াই সি এর মত একটি সময়সাপেক্ষ  বিষয়কে অনেক দ্রুত এবং সংক্ষিপ্ত করা সম্ভব হয়েছে। ডিজিটাল ফিনান্সিয়াল সার্ভিস কে আরও সুপরিচিত করতে এ সেক্টরে প্রতিযোগিতা প্রয়োজন আর নগদ এই সেক্টর কে নিয়ে কাজ করার ফলে এ প্রতিযোগিতার দ্বার উন্মোচিত হলো।

বাংলাদেশ ডাক বিভাগের মহাপরিচালক সুশান্ত কুমার মন্ডল বলেন, ‘আর্থিক লেনদেন ব্যবস্থাপনার ক্ষেত্রে আমাদের একশ’ বছরেরও বেশি অভিজ্ঞতা রয়েছে। দেশজুড়ে ডাক বিভাগের ৯৮৮৬টি ডাকঘর ও এর কর্মী নেটওয়ার্কের মাধ্যমে ডিজিটাল আর্থিক খাতে দ্রুততা ও কার্যকারীতার সাথে আমরা যেকোনো অনিয়ম মোকাবিলায় প্রস্তুত।’ 

অনুষ্ঠানে বিজয় সফটওয়্যার এর গুরুত্বের কথা উল্লেখ করে নগদের ব্যবস্থাপনা পরিচালক তানভীর এ. মিশুক বলেন, এই সফটওয়্যার এর কারণে কেওয়াইসি ডিজিটালাইজড করা অনেক সহজ হয়ে গিয়েছে। তিনি আরও বলেন ‘দেশের যেসব মানুষ আর্থিক অন্তর্ভুক্তির বাইরে রয়েছে তাদের আর্থিক স্বাধীনতা প্রদানের লক্ষ্যেই নগদ কাজ করে যাচ্ছে।

গ্রাহকদের জন্য ঝামেলাহীন প্রক্রিয়া নিশ্চিত করতে এই  ডিজিটাল কেওয়াইসি নিবন্ধন উন্মোচন করলো নগদ।  এ প্রক্রিয়া সম্পন্ন করতে ক্রেতাদের জাতীয় পরিচয়পত্র ও নিবন্ধনকৃত মোবাইল ফোন নিয়ে আসতে হবে। গ্রাহকের ছবি ও পরিচয়পত্রের তথ্য কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তার সহায়তায় রিয়েল টাইমে নির্বাচন কমিশনের ডাটাবেজের সাথে মিলিয়ে দেখা হবে। কেওয়াইসি আবেদন পত্রের নির্দিষ্ট ঘর স্বয়ংক্রিয় স্ক্যানিং প্রক্রিয়ায় পরিচয় পত্রের তথ্য থেকে পূরণ হবে। এক্ষেত্রে, প্রত্যেক গ্রাহকের জন্য এ প্রক্রিয়া সম্পন্ন হবে ৩০ সেকেন্ডেরও কম সময়ে।

বর্তমানে নগদ অ্যাপটি শুধুমাত্র অ্যান্ড্রয়েড প্ল্যাটফর্মেই রয়েছে। কম মেগাবাইটের সহজে ব্যবহারযোগ্য এ অ্যাপটির বেটা সংস্করণে ব্যবহারকারী ছিলো ৫০ হাজারেরও বেশি।

 

আপনার মতামত লিখুন :