টেলিগ্রামে সাইবার হামলা, সন্দেহ চীনের দিকে

টেক ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

জনপ্রিয় প্রাইভেট মেসেজিং অ্যাপ টেলিগ্রামের সার্ভারে শক্তিশালী সাইবার হামলার ঘটনা ঘটেছে। এই হামলার জন্য চীনকে দায়ী করেছেন প্রতিষ্ঠানটির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা প্যাভেল দুরোভ।

টুইট বার্তায় তিনি বলেন, টেলিগ্রামের সাইটে ‘ডিডিওএস’ নামের শক্তিশালী একটি সিস্টেম ব্যবহার করে সাইবার হামলা চালনো হয়; যার আইপি অ্যাড্রেস থেকে চীনের লোকেশন দেখা যায়। ঠিক হংকংয়ে প্রত্যাবর্তন বিল নিয়ে যখন বিক্ষোভ চলছিল তখনই টেলিগ্রামে হামলা হয়।

প্যাভেল দুরোভ বলেন, বিশ্বের ইতিহাসে সবচেয়ে আলোচিত হংকং বিক্ষোভ চলাকালীন টেলিগ্রামের সার্ভারে হামলা বিচ্ছিন্ন কোনো ঘটনা নয়। এছাড়া হংকংয়ে ওই বিক্ষোভের সময় বেশ কিছু সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের সাইট বন্ধ করে দেয় চীন।

ডিডিওএস সিস্টেমটি ব্যবহার করে টেলিগ্রামের সাইটে একযোগে বিপুল পরিমাণে রিকোয়েস্ট পাঠায়, যা সার্ভারে কৃত্রিম একটি চাপ সৃষ্টি করে জ্যাম তৈরি করে।

তবে টেলিগ্রামের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তার টুইটার বার্তার কোনো প্রতিক্রিয়া জানায়নি চীনের সাইবার স্পেস অ্যাডমিনিস্ট্রেশন। চীনের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র জেং শুয়াং টেলিগ্রামের সার্ভারে সাইবার আক্রমণের বিষয়ে সাংবাদিকরা প্রশ্ন করলে তিনি এ বিষয়ে অবগত নন বলে এড়িয়ে যান।

মূলত টেলিগ্রামের মত প্রাইভেট ইনক্রিপটেড মেসেজিং অ্যাপগুলো অনলাইনে আন্দোলন করার জনপ্রিয় মাধ্যম। কারণ এসব অ্যাপ ব্যবহার করে কর্তৃপক্ষের দৃষ্টিগোচরে গিয়ে নীরবে আন্দোলনের কার্যক্রম পরিচালনা করা যায়।

প্রসঙ্গত, ২০১৪ সালে হংকংয়ে আম্ব্রেলা বিক্ষোভের সময় চীনের বেইজিংয়ে ফটো শেয়ারিং অ্যাপ ইনস্টাগ্রাম বন্ধ করে দেওয়া হয়।

সূত্র: রয়টার্স

আরও পড়ুন: গণবিক্ষোভের মুখে হংকংয়ে সরকারি দফতর বন্ধ ঘোষণা

আপনার মতামত লিখুন :