Barta24

মঙ্গলবার, ২৩ জুলাই ২০১৯, ৮ শ্রাবণ ১৪২৬

English Version

অক্ষয়ের মুখে নারী বিজ্ঞানীদের জয়গান

অক্ষয়ের মুখে নারী বিজ্ঞানীদের জয়গান
নিত্যিয়া মেনন, তাপসী পান্নু, অক্ষয় কুমার, বিদ্যা বালন ও কৃতি কুলহারি
বিনোদন ডেস্ক
বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম


  • Font increase
  • Font Decrease

শুধু বিনোদন নয়, অনুপ্রেরণা ও সমাজের বিভিন্ন দিক নিজের অভিনীত ছবির মধ্যে তুলে ধরেন অক্ষয় কুমার। বলিউডের এই তারকার ‘টয়লেট: এক প্রেম কথা’ ছবিটির কথাই ধরে নেওয়া যাক। যার মাধ্যমে সকলকে শৌচালয় ব্যবহারের গুরুত্ব বুঝিয়েছিলেন তিনি।

পরে ২০১৮ সালে মুক্তি পায় অক্ষয়ের অভিনীত ‘প্যাডম্যান’। এই ছবির মধ্য দিয়ে নারীদের স্যানিটারি ন্যাপকিন ব্যবহারে উদ্বুদ্ধ করেছিলেন বলিউডের এই সুপারস্টার।

অক্ষয় কুমারের পরবর্তী মিশন হচ্ছে ‘মিশন মঙ্গল’। যার মাধ্যমে নারী বিজ্ঞানীদের অর্জনের গল্প তুলে ধরবেন তিনি। ২০১৩ সালে ভারতের ‘মঙ্গলযান’ মিশনের উপর ভিত্তি করেই নির্মিত হয়েছে ছবিটি। গত ৮ জুলাই ইউটিউবে প্রকাশ পেয়েছে ছবিটির টিজার।

‘মিশন মঙ্গল’-এ অক্ষয় কুমারকে দেখা যাবে ভারতের মহাকাশ গবেষণাকেন্দ্র ইন্ডিয়ান স্পেস রিসার্চ অরগানাইজেশনের (ইসরো) সিনিয়র বিজ্ঞানী রাকেশের চরিত্রে। যিনি মার্স অরবিটার মিশন (মম) কাজ করেছেন।

‘মঙ্গল মিশন’-এ অভিনয় প্রসঙ্গে অক্ষয় কুমার বলেন- ‘এ ধরনের ছবি যখন আমার কাছে আসে খুব অনুপ্রাণিত হই। বাস্তব ঘটনা থেকে অনুপ্রাণিত হয়ে অসাধারন একটি গল্প তৈরি করা হয়েছে।’

যোগ করে অক্ষয় আরও বলেন- “অনেকেই জানে নাসা ৬ হাজার কোটি রুপির একটি স্ট্যাটেলাইট মঙ্গলে পাঠিয়েছিল। কিন্তু ইসরো সেটি সাড়ে ৪শ’ কোটিতে করে দেখিয়েছে। একবার শুধু পার্থক্যটা দেখুন... একটু সাধারণ জ্ঞানের জন্য আমরা কতো কোটি রুপি সঞ্চয় করতে পেরেছি। কিন্তু আপনারা কী এই গল্প বিশ্বাস করবেন যা এখনও বলা হয়নি? আমি আপনাদের সেই গল্পই বলতে চাই। আর এ কারণেই ছবিটিতে আমার অভিনয় করা।”
https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Jul/10/1562756959670.jpgসকল নারী বিজ্ঞানীদের জয়গান গেয়ে অক্ষয় বলেন- “ইসরো’তে ১৭ থেকে ১৮ হাজার ইঞ্জিনিয়ার এবং বিজ্ঞানী কাজ করেন। তাদের মধ্য থেকে বেশ কয়েকজন নারী বিজ্ঞানীর গল্প শুনেছি আমি। সেই সঙ্গে এই ভেবে অবাক হয়েছি যে, তারা কিভাবে কাজ ও ঘর একসঙ্গে সামাল দেন। তারা সত্যিই মহৎ। ‘মিশন মঙ্গল’-এ ইসরো’র পাঁচজন নারী বিজ্ঞানীর চরিত্রে অভিনয় করেছেন বিদ্যা বালন, তাপসী পান্নু, সোনাক্ষী সিনহা, কৃতি কুলহারি ও নিত্যিয়া মেনন। আমি বলতে চাই এই ছবিটি শুধু তাদের জন্যই।”

দক্ষিণী পরিচালক জগন শক্তি পরিচালিত ছবিটি প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পাবে আগামী ১৫ আগস্ট। একইদিন মুক্তি পাবে জন আব্রাহামের ‘বাটলা হাউস’ এবং শ্রদ্ধা-প্রভাসের ‘সাহো’।

আপনার মতামত লিখুন :

‘স্বপ্নবাজি’তে চুক্তিবদ্ধ হলেন মাহি-পিয়া

‘স্বপ্নবাজি’তে চুক্তিবদ্ধ হলেন মাহি-পিয়া
মাহিয়া মাহি ও পিয়া জান্নাতুল

তরুণ নির্মাতা রায়হান রাফির তৃতীয় সিনেমা ‘স্বপ্নবাজি’। ফ্যাশন জগতের গল্প নিয়ে নির্মিত হবে সিনেমাটি কয়েক মাস আগেই এমনটা ঘোষণা দিয়েছিলেন রাফি।

সোমবার (২২ জুলাই) ছবিটিতে অভিনয়ের জন্য আনুষ্ঠানিকভাবে চুক্তিবদ্ধ হয়েছেন মডেল-উপস্থাপিকা পিয়া জান্নাতুল। আজ রাতে চুক্তিবদ্ধ হবেন চিত্রনায়িকা মাহিয়া মাহি। বার্তাটোয়েন্টিফোর.কমকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন পরিচালক রায়হান রাফি।

শোনা যাচ্ছে, সিনেমাটির নায়ক হিসেবে থাকছেন সিয়াম আহমেদ। তবে এ বিষয়ে এখনও আনুষ্ঠানিকভাবে কোন ঘোষণা দেওয়া হয়নি।
https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Jul/23/1563891795510.jpgসিনেমাটিতে আরও দেখা যেতে পারে জয়া আহসান ও নুসরাত ইমরোজ তিশাকে। তারা দু’জন এখনও চুক্তিবদ্ধ হননি।

নির্মাতা সূত্রে জানা গেছে, জোড়া নায়ক–নায়িকার এই সিনেমাটির দৃশ্যধারণের কাজ শুরু হবে আগামী আগস্ট থেকে। পি এইচ এন্টারটেইনমেন্টের ব্যানারে সিনেমাটি প্রযোজনা করছেন পিয়াল হোসাইন।

অক্ষয়ের ২০ বছর আগে দেওয়া অটোগ্রাফ

অক্ষয়ের ২০ বছর আগে দেওয়া অটোগ্রাফ
অক্ষয় কুমার

প্রিয় তারকার জন্য প্রায় সময় ভক্তরা নানা ধরনের পাগলামী করে থাকেন। এমনকি ভক্তের জন্যও অনেক সময় অনেক কিছু করতে দেখা যায় তারকাদের। এরই ধারাবাহিকতায় ২০ বছর আগে এক ভক্তের জন্য একটি উপহার পাঠিয়েছিলেন অক্ষয় কুমার।

মঙ্গলবার (২৩ জুলাই) ২০ বছর আগে অক্ষয়ের দেওয়া সেই উপহারের একটি ছবি তুলে টুইটারে শেয়ার করেছেন আনন্দ গালান্দে নামে এক ব্যক্তি। কিন্তু কী ছিলো সেই উপহার?
https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Jul/23/1563890136135.jpgআনন্দর করা টুইটে দেখা যাচ্ছে, অক্ষয় কুমারের সাদা শার্ট পরা বুক খোলা একটি ছবি। আর সেই ছবিটির নীচে রয়েছে তার অটোগ্রাফ। এর ক্যাপশনে লেখা রয়েছে, প্রিয় অক্ষয় কুমার স্যার ১৯৯৭ সালে এই উপহারটি আপনি আমাকে পাঠিয়েছিলেন। সেসময় আমি আপনাকে একটি চিঠি পাঠানোর পর আপনি উপহার হিসেবে আপনার অটোগ্রাফসহ এই ছবিটি পাঠিয়েছিলেন। আশা করছি আপনার মনে আছে।

আনন্দর এই টুইটের জবাব দিয়ে অক্ষয় কুমার টুইটারে লিখেছেন, অবশ্যই আমার মনে আছে। আশা করছি আপনি ভালো আছেন। ঈশ্বর আপনার মঙ্গল করুক।

অক্ষয় কুমার এখন ব্যস্ত রয়েছেন ‘মিশন মঙ্গল’ ছবির প্রচারণা নিয়ে। এছাড়াও তার হাতে রয়েছে ‘সূর্যবংশী’ ও ‘গুড নিউজ’ ছবি দুটির কাজ।

এ সম্পর্কিত আরও খবর

Barta24 News

আর্কাইভ

শনি
রোব
সোম
মঙ্গল
বুধ
বৃহ
শুক্র