নোবেলকে জেলে পাঠাতে চেয়েছিলেন জেমস!

বিনোদন ডেস্ক, বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম
জেমস ও মাঈনুল আহসান নোবেল

জেমস ও মাঈনুল আহসান নোবেল

  • Font increase
  • Font Decrease

ভারতীয় চ্যানেল জি বাংলায় প্রচারিত গানের প্রতিযোগিতামূলক অনুষ্ঠান ‌‌‘সা রে গা মা পা’-এর মাধ্যমে তুমুল জনপ্রিয়তা অর্জন করেছেন মাঈনুল আহসান নোবেল। জনপ্রিয়তা পেলেও প্রতিযোগিতায় যৌথভাবে তৃতীয় হয়েছেন নোবেল। সে কারণে ‘সা রে গা মা পা’র ফলাফল নিয়ে গণমাধ্যমে কথা বলতে একেবারেই নারাজ তিনি।

তবে সম্প্রতি দেশের একটি গণমাধ্যমে দেওয়া সাক্ষাৎকারে নোবেল দাবি করেছেন, জেমসের গাওয়া তুমুল জনপ্রিয় ‘পাগলা হাওয়া’ গানটি ‘সা রে গা মা পা’র মঞ্চে গেয়েছিলেন তিনি। কিন্তু জেমসের ম্যানেজার তাকে ফোন করে গানটি টেলিকাস্ট করতে না করেন। এমনকি তাকে নাকি জেলে পাঠানোর হুমকিও দেওয়া হয়েছিল।

জেমসের গান গেয়ে জনপ্রিয়তা পেয়েছেন তার সঙ্গে কখনো কথা হয়েছে? এমন প্রশ্নের জবাবে নোবেল সেই সাক্ষাৎকারে বলেন, “না, তার সঙ্গে আমার পার্সোনাল কোনো যোগাযোগ নেই। ব্যক্তিগতভাবে তাকে আমি খুব শ্রদ্ধা করি। তার অনেক গানই গেয়েছি, আমার ওয়ান অব দ্য মোস্ট ফেভারিট সং ‘পাগলা হাওয়া’। এই গানটি গেয়েছিলাম ‘সা রে গা মা পা’য়। যে এপিসোডে ‘রূপালি গিটার’ প্রচারিত হয়েছিল, ওই এপিসোডেই গেয়েছিলাম ‘পাগলা হাওয়া’। কিন্তু গানটি টেলিকাস্ট হয়নি। কেন হয়নি, সেটা আজ আপনার মাধ্যমে জানাতে চাই।”
https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Aug/01/1564633512702.jpgনোবেল আরও বলেন, ‘জেমস ভাই তার ম্যানেজারকে দিয়ে ফোন করিয়ে বলেন, ‘পাগলা হাওয়া’ গানটি যেন টেলিকাস্ট না হয়। আমাকে জেলে পাঠানোর হুমকি পর্যন্ত দেওয়া হয়, এমন নানা রকমের আন-এক্সপেক্টেড কার্যকলাপ হয়েছে আর কি! একজন আইডলের কাছ থেকে এ ধরনের হুমকি-ধমকি সত্যিই অপ্রত্যাশিত। আমি তার ছেলের বয়সী। এর পরও জেমস ভাইয়ের প্রতি আমার শ্রদ্ধা ও ভালোবাসা কখনোই কমবে না। বিষয়টা সংবাদমাধ্যমে জানাতে ইচ্ছে হলো, তাই জানালাম। কেননা গানটির অডিও ইউটিউবে দেওয়ার পর অনেকেই প্রশ্ন তুলেছেন, গানটি কেন প্রচারিত হয়নি?’
https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Aug/01/1564633535468.jpgতবে এ প্রসঙ্গে কথা বলতে জেমসের ম্যানেজার রুবাইয়াৎ ঠাকুর রবির সঙ্গে একাধিকবার যোগাযোগের চেষ্টা করে বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম। তবে এই প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত তার সাড়া পাওয়া যায়নি।

আপনার মতামত লিখুন :