প্রফেসর ড. খান তৌহিদ ওসমান স্মরণে



ড. মুহীবুল আজিজ, অতিথি লেখক, বার্তা২৪.কম
প্রফেসর ড. খান তৌহিদ ওসমান

প্রফেসর ড. খান তৌহিদ ওসমান

  • Font increase
  • Font Decrease

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রফেসর ড. খান তৌহিদ ওসমান চলে গেলেন না ফেরার দেশে। মনে-প্রাণে পরহিতৈষী একজন শিক্ষাবিদ হিসেবে তাঁকে দেখে এসেছি এতগুলো বছর। দেখা হলেই কুশল জিজ্ঞেসা করতেন।

কুশল বিনিময় দু’রকম। তৌহিদ ভাই প্রশ্ন করবার আগে স্মিত হতেন এবং তাতেই অর্ধেকটা কথা বলা হয়ে যেতো। আরেকরকম হলো, প্রশ্ন করে তারপর স্মিত হওয়া। অনুকূল-প্রতিকূল সকল সময়ে নিজের আদর্শকে সবকিছুর ওপরে স্থান দিতে দেখেছি তাঁকে।

মাঝে-মাঝে বলতাম, ওসমান ভাই, ধূমপানটা ছাড়া যায় না? সম্প্রতি দেখা হয় নি। কিজানি, শেষের দিকে ছেড়েছিলেন কিনা।

তিনি ছিলেন মূলত উদ্ভিদবিজ্ঞানের শিক্ষক এবং উদ্ভিদবিজ্ঞানী। ইন্টারমিডিয়েটে আমার প্রিয় বিষয় ছিল উদ্ভিদবিজ্ঞান। এ সি দত্তের বোটানি পড়েছি তখন। চট্টগ্রাম কলেজে আমাদের বিষয়টি পড়াতেন নুরুল হুদা, আবদুল মতিন স্যার, রওশন ম্যাডাম সহ অনেকেই।

তারপর, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে মৃত্তিকাবিজ্ঞান বিভাগ চালু হলে তিনি যোগদান করেন সেখানে। বস্তুত সেটাই ছিল তাঁর সবচাইতে আগ্রহের বিষয়।

একবার একটা কাজে গিয়েছিলাম তাঁর কক্ষে। আমি জানতাম তাঁর অনেক গবেষণা-প্রবন্ধ দেশে-বিদেশে ছাপা হয়েছে। সে-বিষয়ে কথা হলো। একথা-সেকথার পর জিজ্ঞ্যেস করলাম: আচ্ছা, ওসমান ভাই, আপনার গ্রন্থ ছাপা হয়েছে বিশ্বখ্যাত স্প্রিঙ্গার সিরিজে? বললেন, তুমি জানো কিভাবে? বললাম, জেনেছি আর কি।

স্মিত হেসে দেখালেন তাঁর সেই আন্তর্জাতিক গবেষণা-গ্রন্থ। ২০১২ সালে বেরিয়েছিল Soils : Principles, Properties and Management. ২০১৪ সালে Soil Degradation Conservation and Remediation.

যতদূর জানি, স্প্রিঙ্গারের এই প্রকাশনাগুলো বেরিয়েছিল নেদারল্যান্ড থেকে। কিন্তু দেখলাম এই নিয়ে তাঁর স্বভাবে তেমন কোনো উত্তেজনা বা হামবড়া ভাব নেই। হ্যাঁ, বই বেরিয়েছে আরকি!

ওসমান ভাইয়ের সেই সারল্যপূর্ণ ছবিটাই হচ্ছে আমার কাছে ‘মাই কাইন্ড অব পার্সন’। পোশাকে-আশাকে অত্যন্ত সাদাসিধে মানুষটাকে প্রথম দেখায় আমি ভেবেছিলাম, দর্শনের শিক্ষক। তবে, দর্শনই তো সবকিছুর মূল।

প্রফেসর ড. খান তৌহিদ ওসমান জ্ঞানের সেই জায়গাটাতে যেতে পেরেছিলেন যেখানে নিজেকে মনে হয় ‘জ্ঞানসাম্রাজ্যের শিশু’ মাত্র। তাঁর প্রয়াণে আমরা একজন মেধাবী শিক্ষাবিদকে হারালাম এবং হারালাম একজন ভালো মানুষকে।

উল্লেখ্য, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের (চবি) মৃত্তিকা বিজ্ঞান বিভাগের অবসরপ্রাপ্ত প্রফেসর ড. খান তৌহিদ ওসমান বুধবার (২৮ অক্টোবর) ভোর ৩টা ৩০ মিনিটে ইন্তেকাল করেন।