যবিপ্রবির প্রথম বর্ষে ভর্তির মেধাতালিকা প্রকাশ



যবিপ্রবি করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে (যবিপ্রবি) প্রথম বর্ষে ভর্তির আবেদনকৃত শিক্ষার্থীদের মেধা তালিকা প্রকাশ করা হয়েছে। বিশ্ববিদ্যালয়ের সাতটি অনুষদের ডিনগণ মেধা তালিকা প্রস্তুত করে যবিপ্রবির উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আনোয়ার হোসেনের হাতে তুলে দেওয়ার পর তা বিশ্ববিদ্যালয়ের ওয়েবসাইটে প্রকাশ করা হয়।

শনিবার (০৪ ডিসেম্বর) বিকেলে যবিপ্রবির ডিনস কমিটির আহ্বায়ক স্বাক্ষর করা এক বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, জিএসটি গুচ্ছভুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়সমূহের ভর্তি পরীক্ষায় ফলাফলপ্রাপ্ত বিভিন্ন ইউনিট হতে যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে ২০২০-২১ শিক্ষাবর্ষে বিভিন্ন অনুষদভুক্ত বিভাগসমূহে ভর্তির জন্য আবেদনকারীগণের মধ্যে হতে ন্যূনতম শর্ত পূরণকারীদের মেধা তালিকা প্রকাশ করা হলো।

ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থীদের আগামী ৬ ডিসেম্বর থেকে ১০ ডিসেম্বর রাত ১১টা ৫৯ মিনিটের মধ্যে https://admission.just.edu.bd ওয়েবসাইটে গিয়ে সংশ্লিষ্ট লিংকের মাধ্যমে বিভাগ নির্বাচনের জন্য ‘চয়েস ফর্ম’ পূরণ করতে হবে। ভর্তির সময়, প্রয়োজনীয় কাগজপত্র ও ভর্তি ফি সংক্রান্ত সংক্রান্ত সকল তথ্য www.just.edu.bd ওয়েবসাইটে পাওয়া যাবে।

এ বছর সাতটি অনুষদের অধীনে ২৬টি বিভাগে মোট ৯৩০টি আসনের বিপরীতে ৫২ হাজার ৬৪০ জন ভর্তিচ্ছু আবেদন করেছেন। এরমধ্যে প্রকৌশল ও প্রযুক্তি অনুষদের সাতটি বিভাগের ২৫০টি আসনের বিপরীতে ৯ হাজার ৫৬৬ জন, জীববিজ্ঞান ও প্রযুক্তি অনুষদের চারটি বিভাগের ১৬০টি আসনের বিপরীতে ১৩ হাজার ৪৮৭ জন, ফলিত বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি অনুষদের চারটি বিভাগের ১৫০টি আসনের বিপরীতে ৮ হাজার ৯৫৮ জন, স্বাস্থ্য বিজ্ঞান অনুষদের দুটি বিভাগের ৪০টি আসনের বিপরীতে ২ হাজার ৪ জন, কলা ও সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদের একটি বিভাগের ৪০টি আসনের বিপরীতে ৫ হাজার ৩৬২ জন, বিজ্ঞান অনুষদের তিনটি বিভাগের ১২০টি আসনের বিপরীতে ৬ হাজার ৩৩২ জন এবং ব্যবসায় শিক্ষা অনুষদের চারটি ১৭০টি আসনের বিপরীতে ৬ হাজার ৯৩১ জন ভর্তিচ্ছু আবেদন করেছেন।

এ ছাড়াও মোট আসনের মুক্তিযোদ্ধা, ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠী, প্রতিবন্ধী এবং যবিপ্রবিতে কর্মরত শিক্ষক/কর্মকর্তা/কর্মচারীদের সন্তানদের জন্য পোষ্য কোটা সংরক্ষিত থাকবে। যবিপ্রবিতে বিদেশি নাগরিকদের ভর্তির জন্য বিশ্ববিদ্যালয়ের ইন্টারন্যাশনাল সার্ভিস সেন্টারের মাধ্যমে আবেদনের অনুরোধ জানানো হয়েছে। আর আগামী ২৫ জানুয়ারি একাডেমিক ক্যালেন্ডার অনুযায়ী প্রথম বর্ষের শিক্ষার্থীদের ওরিয়েন্টশন ও ক্লাস শুরু হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

ঢাবির আরবি বিভাগের উন্নয়ন ফি মওকুফ



ঢাবি করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) আরবি বিভাগের ২০২০-২১ শিক্ষাবর্ষের স্নাতকোত্তরের চলতি শিক্ষাবর্ষের উন্নয়ন ফি সম্পূর্ণ মওকুফ করা হয়েছে।

রবিবার (৩ জুলাই) শিক্ষার্থীদের দাবি ও শতবর্ষের উপহার হিসেবে মিটিংয়ে মাধ্যমে এ সিদ্ধান্ত আসে বলে বিষয়টি গণমাধ্যমে নিশ্চিত করেছেন আরবি বিভাগের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ আব্দুল কাদির।

অধ্যাপক আব্দুল কাদির বলেন, শতবর্ষের উপহার হিসেবে আরবি বিভাগের ২০২০-২১ শিক্ষাবর্ষের স্নাতকোত্তরের চলতি শিক্ষাবর্ষের উন্নয়ন ফি সম্পূর্ণ মওকুফ করা হয়েছে। আমাদের বিভাগের ২০১৫-১৬ শিক্ষাবর্ষের জন্য উন্নয়ন ফি ছিল চার হাজার, ২০১৬-১৭ শিক্ষাবর্ষের জন্য ছিল পাঁচ হাজার, আবার ২০১৭-১৮ শিক্ষাবর্ষের জন্য ছিল চার হাজার।

তিনি আরও বলেন, গতবছর করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের জন্য ১ হাজার কমিয়ে নিয়ে আসছিলাম। আমরা এবছর আগে পুনরায় পাঁচ হাজার টাকা উন্নয়ন ফি ধার্য করেছিলাম। শিক্ষার্থীদের দাবিতে শুরুতে চার হাজার করেছিল। পরবর্তীতে শিক্ষার্থীরা আবার দাবি করলে, মিটিংয়ে আলোচনা করে শতবর্ষী বিভাগ হিসেবে ও বিশ্ববিদ্যালয়ের শতবর্ষ উপলক্ষে শিক্ষার্থীদের চলতি বছরের পুরো উন্নয়ন ফি মওকুফ করার সিদ্ধান্ত আসে।

প্রসঙ্গত, ফি মওকুফের আগে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আরবি বিভাগের উন্নয়ন ফি কমানোর দাবি করায় মাস্টার্সের প্রথম সেমিস্টার ফাইনাল পরীক্ষা দুদফা স্থগিত করে বিভাগটির একাডেমিক কমিটি। সেই সঙ্গে ফি কমানোর দাবি করায় কয়েকজন শিক্ষার্থীকে বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বহিষ্কারের হুমকি দেওয়া হয়েছে বলে অভিযোগ উঠে বিভাগের চেয়ারম্যান অধ্যাপক আবদুল কাদিরের বিরুদ্ধে। তবে সেই সময়ে চেয়ারম্যান দাবি করে, শিক্ষার্থীরা ভর্তি না হওয়ায় পরীক্ষা সাময়িকভাবে পিছিয়ে দেওয়া হয়েছে।

তারই কিছুদিন পর আজ রোববার (৩ জুলাই) বিভাগটির ২০২০-২১ শিক্ষাবর্ষের স্নাতকোত্তরের চলতি শিক্ষাবর্ষের উন্নয়ন ফি সম্পূর্ণ মওকুফ করার সিদ্ধান্ত আসে।

;

ঢাবির ‘ক’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষার ফল সোমবার



ঢাবি করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) ২০২১-২০২২ শিক্ষাবর্ষে বিজ্ঞান অনুষদভুক্ত ‘ক’ ইউনিটের অধীনে প্রথম বর্ষে (স্নাতক সম্মান) ভর্তি পরীক্ষার ফল আগামীকাল সোমবার (৪ জুলাই) প্রকাশ করা হবে।

দুপুর সাড়ে ১২টায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে প্রশাসনিক ভবনস্থ অধ্যাপক আব্দুল মতিন চৌধুরী ভার্চুয়াল ক্লাসরুমে আনুষ্ঠানিকভাবে এই ভর্তি পরীক্ষার ফল প্রকাশ করবেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান।

রোববার (৩ জুলাই) দুপুরে ‘গ’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা ফল প্রকাশ শেষে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান নিজেই বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

এর আগে, গত ১১ জুন বেলা ১১টা থেকে দুপুর ১২টা ৩০ মিনিট পর্যন্ত ঢাকা ও ঢাকার বাইরে সাতটি বিভাগীয় শহরে ‘ক’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়েছিল। বিজ্ঞান অনুষদের জন্য নির্ধারিত এই ইউনিটে মোট আসন রয়েছে ১৮৫১টি। এর বিপরীতে ১ লাখ ১৫ হাজার ৭০৮ জন শিক্ষার্থী এ পরীক্ষায় অংশ নিয়েছিল।

;

ঢাবির ‘গ’ ইউনিটে ভর্তি পরীক্ষায় সেরাদের সেরা তিন



ঢাবি করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম
ঢাবির ‘গ’ ইউনিটে ভর্তি পরীক্ষায় সেরাদের সেরা তিন

ঢাবির ‘গ’ ইউনিটে ভর্তি পরীক্ষায় সেরাদের সেরা তিন

  • Font increase
  • Font Decrease

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) ২০২১-২০২২ শিক্ষাবর্ষে ব্যবসা শিক্ষা অনুষদভুক্ত ‘গ’ ইউনিটের অধীনে ১ম বর্ষ স্নাতক (সম্মান) শ্রেণিতে ভর্তি পরীক্ষায় ৯৩০টি আসনের বিপরীতে ৪ হাজার ২৮৯ জন উত্তীর্ণ হয়েছে।

রোববার (৩ জুলাই) দুপুর সাড়ে ১২টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনিক ভবনস্থ অধ্যাপক আব্দুল মতিন চৌধুরী ভার্চুয়াল ক্লাসরুমে সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে আনুষ্ঠানিকভাবে এ ফলাফল প্রকাশ করেন।

এবার ‘গ’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষার ফলে প্রথম হয়েছেন নটর ডেম কলেজের শিক্ষার্থী সারোয়ার হোসাইন খান। তার প্রাপ্ত নম্বর ৯৬ দশমিক ৭৫। মাধ্যমিক এবং উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষার জিপিএর ভিত্তিতে প্রাপ্ত নম্বরসহ মোট প্রাপ্ত নম্বর ১১৬ দশমিক ৭৫। তিনি ভর্তি পরীক্ষায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রে পরীক্ষা দিয়েছেন।

দ্বিতীয় হয়েছেন আনিমা পারভেজ ইলমা। তিনি দাউদ পাবলিক স্কুল অ্যান্ড কলেজ থেকে উচ্চমাধ্যমিক পাস করেছেন। তার প্রাপ্ত নম্বর ৯০ দশমিক ০০। মাধ্যমিক এবং উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষার জিপিএর ভিত্তিতে প্রাপ্ত নম্বরসহ মোট প্রাপ্ত নম্বর ১১০ দশমিক ১০। তিনি ভর্তি পরীক্ষায় খুলনা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রে পরীক্ষা দিয়েছেন।

তৃতীয় হয়েছেন সরকারি রাজেন্দ্র কলেজের মো. আব্দুল্লাহ খান। তার প্রাপ্ত নম্বর ৮৭ দশমিক ৭৫। মাধ্যমিক এবং উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষার জিপিএর ভিত্তিতে প্রাপ্ত নম্বরসহ মোট প্রাপ্ত নম্বর ১০৭ দশমিক ৭৫। তিনি ভর্তি পরীক্ষায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রে পরীক্ষা দিয়েছেন।

উল্লেখ্য, উত্তীর্ণ সকল শিক্ষার্থীকে মেধাক্রম ১ থেকে ১১০০ স্থান অর্জনকারীদের আগামী ৬ জুলাই বিকাল ৩টা থেকে ২১ জুলাই বিকাল ৫টা পর্যন্ত ভর্তি পরীক্ষার ওয়েবসাইটে বিস্তারিত ফরম ও বিষয়ের পছন্দক্রম ফরম পূরণ করতে হবে।

ভর্তি পরীক্ষায় উত্তীর্ণ বিভিন্ন কোটায় আবেদনকারীদের ৬ জুলাই থেকে ২১ জুলাইয়ের মধ্যে সংশ্লিষ্ট কোটার ফরম কলা অনুষদের ডিন অফিস থেকে সংগ্রহ করতে হবে এবং যথাযথভাবে পূরণ করে উক্ত সময়ের মধ্যে ডিন অফিসে জমা দিতে হবে।

ফলাফল নিরীক্ষণের জন্য নির্ধারিত ফি প্রদান সাপেক্ষে আগামী ৬ জুলাই থেকে ২১ জুলাই পর্যন্ত বিজনেস অনুষদের ডিন অফিসে আবেদন করা যাবে।

;

ঢাবি ‘গ’ ইউনিটের ফল প্রকাশ, পাসের হার ১৪.৩০ শতাংশ



ঢাবি করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) ২০২১-২০২২ শিক্ষাবর্ষে ব্যবসা শিক্ষা অনুষদভুক্ত ‘গ’ ইউনিটের অধীনে ১ম বর্ষ স্নাতক (সম্মান) শ্রেণিতে ভর্তি পরীক্ষার ফল প্রকাশিত হয়েছে।

সোমবার (২৭ জুন) দুপুর সাড়ে ১২টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনিক ভবনস্থ অধ্যাপক আব্দুল মতিন চৌধুরী ভার্চুয়াল ক্লাসরুমে সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে আনুষ্ঠানিকভাবে এ ফলাফল প্রকাশ করেন।

‘এ বছর ‘গ’ ইউনিটে আবেদন করেছিলেন ৩০ হাজার ৬৯৩ জন। এরমধ্যে অংশগ্রহণ করেছেন ২৯ হাজার ৯৯৭ জন। যেখানে ভর্তির যোগ্য বিবেচিত হয়েছেন ১৪ দশমিক ৩০ শতাংশ পরীক্ষার্থী এবং অকৃতকার্য হয়েছে ৮৫ দশমিক ৭০ শতাংশ। ভর্তির যোগ্য বিবেচিত এই ৪ হাজার ২৮৯ জনের মধ্যে শেষ পর্যন্ত ৯৪০ জন মেধাক্রম অনুযায়ী কলা অনুষদের বিভিন্ন বিভাগে ২০২০-২১ শিক্ষাবর্ষের স্নাতক (সম্মান) শ্রেণিতে ভর্তি হওয়ার সুযোগ পাবেন।

ফল জানা যাবে যেভাবে- ভর্তি পরীক্ষায় অংশ নেওয়া শিক্ষার্থীরা https://admission.eis.du.ac.bd ওয়েবসাইট থেকে পরীক্ষার ফলাফল জানতে পারবে। এছাড়া রবি, এয়ারটেল, বাংলালিংক অথবা টেলিটক নম্বর থেকে DU GA <roll no> টাইপ করে ১৬৩২১ নম্বরে এসএমএস পাঠালে ফিরতি এসএমএসে ফলাফল জানা যাবে।

উল্লেখ্য, গত ৩ জুন সকাল ১১টা থেকে সাড়ে ১২টা পর্যন্ত (দেড় ঘণ্টা) এই ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা চলে। ঢাকা ও ঢাকার বাইরে সাতটি বিভাগীয় শহরে এ পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়।

৯৩০টি আসনের বিপরীতে আবেদন করেছিল ৩৩ হাজার ৬৯৩ জন ভর্তিচ্ছু৷ সে হিসাবে প্রতি আসনের বিপরীতে লড়ছে ৩৬ জন শিক্ষার্থী৷ গত বছর আসনপ্রতি গড়ে পরীক্ষার্থী ছিল ২১ জন। তবে গত বছর ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ‘গ’ ইউনিটে আসন সংখ্যা ছিল ১ হাজার ২৫০টি। এবার ৩২০টি আসন কমিয়ে ৯৩০টি রাখা হয়েছে।

;